ঢাকা ০৪:২০ পূর্বাহ্ন, শুক্রবার, ০৮ ডিসেম্বর ২০২৩, ২৩ অগ্রহায়ণ ১৪৩০ বঙ্গাব্দ

রাজবাড়ীতে বিএনপি’র ডাকা হরতালের প্রতিবাদে আওয়ামী লীগের শান্তি সমাবেশ

রাজবাড়ীর গোয়ালন্দে বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দল বিএনপির ১ দফা দাবি আদায়ের লক্ষে ডাকা হরতালের প্রতিবাদে শান্তি সমাবেশ করেছে উপজেলা আওয়ামী লীগ ও অঙ্গ সংগঠন।

রোববার (২৯ অক্টোবর) সকাল ৯ টা থেকে শুরু করে শান্তি সমাবেশ দুপুর ১২ টায় শেষ হয়। এসময় হরতালের বিরোধিতা করে একটি বিক্ষোভ মিছিল করে আওয়ামী লীগ। মিছিলটি গোয়ালন্দ বাজার বাসস্ট্যান্ড থেকে বের হয়ে জামতলা বাজার প্রদক্ষিণ করে পুনরায় আবার বাজার বাসস্ট্যান্ডে এসে শেষ হয়। এসময় হরতাল বিরোধী বিভিন্ন ধরনের স্লোগান দেন আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীরা।

গোয়ালন্দ উপজেলা আওয়ামী লীগ ও সহযোগী সংগঠনের আয়োজনে শান্তি সমাবেশে উপস্থিত ছিলেন, গোয়ালন্দ উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ও উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান মোঃ মোস্তফা মুন্সি, সাধারণ সম্পাদক বিপ্লব ঘোষ, পৌর আওয়ামী লীগের সভাপতি ও পৌর মেয়র নজরুল ইসলাম মন্ডল, সাধারণ সম্পাদক শফিকুল ইসলাম সুজ্জল, রাজবাড়ী জেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগের সাধারণ সম্পাদক ও উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান আসাদুজ্জামান চৌধুরী, রাজবাড়ী জেলা পরিষদ সদস্য ও উপজেলা যুবলীগের সভাপতি মোঃ ইউনুস মোল্লা, সাধারণ সম্পাদক রফিকুল ইসলাম সালু, উপজেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি ও উজানচর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান গোলজার হোসেন মৃধা, উপজেলা ছাত্রলীগের সভাপতি মোঃ তুহিন দেওয়ান,সাধারণ সম্পাদক আবির হোসেন রিদয়, উপজেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগের সভাপতি আল মাহমুদ মিশা, সাধারণ সম্পাদক হিরু মৃধাসহ যুব মহিলা লীগ,কৃষক লীগসহ সকল সহযোগী সংগঠনের নেতৃবৃন্দ।

শান্তি সমাবেশে বক্তারা বলেন, বিএনপি জামাতের সন্ত্রাস, নৈরাজ্য ও অনৈতিক হরতালের প্রতিবাদে শান্তি সমাবেশের আয়োজন করা হয়েছে। বিএনপিকে হরতালের নামে সাধারণ মানুষের জান-মালের ক্ষতি করতে দেয়া হবেনা। গাড়ি ভাংচুর ও অগ্নিসংযোগ করতে দেয়া হবেনা। আমরা আওয়ামী লীগের প্রত্যেকটা নেতাকর্মী পাহারাদার হিসেবে রাজপথে থেকে সাধারণ মানুষের জান-মাল রক্ষা করবো। যদি কোনো বিএনপির নেতাকর্মী শান্ত গোয়ালন্দ অশান্ত করতে চায় তাহলে তাদের ঘর থেকে বের হতে দেয়া হবেনা, সেইসাথে তাদেরকে উপযুক্ত জবাব দেয়া হবে।

এদিকে সকাল থেকে দুপুর পর্যন্ত গোয়ালন্দ উপজেলার ঢাকা-খুলনা মহাসড়ক ঘুরে দেখা যায়, মহাসড়কের বিভিন্ন পয়েন্টে ছিলো আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর কড়া পাহারা। যেকোনোপ্রকার অপ্রীতিকর ঘটনা মোকাবিলা করতে দেয়া হচ্ছে টহল। দূরপাল্লার গণপরিবহন চলাচল বন্ধ রয়েছে। মাঝেমধ্যে দৌলতদিয়া থেকে কুষ্টিয়া ও ফরিদপুরের উদ্দেশ্যে লোকাল বাস চলাচল করছে। সেইসাথে মাহিন্দ্র ও অটোরিকশার চলাচল ছিলো চোখে পরার মত। বিএনপি নেতাকর্মীদের কাউকেই মহাসড়কে অবস্থান করতে দেখা যায়নি এবং কোনো প্রকার বিশৃঙ্খলা ও অশান্ত পরিবেশের সৃষ্টি হয়নি।

গোয়ালন্দ ঘাট থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (তদন্ত) উত্তম ঘোষ জানান, বিএনপির ডাকা হরতালের প্রভাব গোয়ালন্দে পরেনি। যানবাহন চলাচল স্বাভাবিক রয়েছে। হরতালের নামে অগ্নিসংযোগ, সাধারণ মানুষের জান-মালের ক্ষতিসহ সকল প্রকার বিশৃঙ্খলা ও অপ্রীতিকর ঘটনা মোকাবিলায় গোয়ালন্দ ঘাট থানা সর্বদা প্রস্তুত।

ট্যাগস :

রাজবাড়ীতে বিএনপি’র ডাকা হরতালের প্রতিবাদে আওয়ামী লীগের শান্তি সমাবেশ

আপডেট সময় : ০৩:৩১:৪৩ অপরাহ্ন, রবিবার, ২৯ অক্টোবর ২০২৩

রাজবাড়ীর গোয়ালন্দে বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দল বিএনপির ১ দফা দাবি আদায়ের লক্ষে ডাকা হরতালের প্রতিবাদে শান্তি সমাবেশ করেছে উপজেলা আওয়ামী লীগ ও অঙ্গ সংগঠন।

রোববার (২৯ অক্টোবর) সকাল ৯ টা থেকে শুরু করে শান্তি সমাবেশ দুপুর ১২ টায় শেষ হয়। এসময় হরতালের বিরোধিতা করে একটি বিক্ষোভ মিছিল করে আওয়ামী লীগ। মিছিলটি গোয়ালন্দ বাজার বাসস্ট্যান্ড থেকে বের হয়ে জামতলা বাজার প্রদক্ষিণ করে পুনরায় আবার বাজার বাসস্ট্যান্ডে এসে শেষ হয়। এসময় হরতাল বিরোধী বিভিন্ন ধরনের স্লোগান দেন আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীরা।

গোয়ালন্দ উপজেলা আওয়ামী লীগ ও সহযোগী সংগঠনের আয়োজনে শান্তি সমাবেশে উপস্থিত ছিলেন, গোয়ালন্দ উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ও উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান মোঃ মোস্তফা মুন্সি, সাধারণ সম্পাদক বিপ্লব ঘোষ, পৌর আওয়ামী লীগের সভাপতি ও পৌর মেয়র নজরুল ইসলাম মন্ডল, সাধারণ সম্পাদক শফিকুল ইসলাম সুজ্জল, রাজবাড়ী জেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগের সাধারণ সম্পাদক ও উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান আসাদুজ্জামান চৌধুরী, রাজবাড়ী জেলা পরিষদ সদস্য ও উপজেলা যুবলীগের সভাপতি মোঃ ইউনুস মোল্লা, সাধারণ সম্পাদক রফিকুল ইসলাম সালু, উপজেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি ও উজানচর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান গোলজার হোসেন মৃধা, উপজেলা ছাত্রলীগের সভাপতি মোঃ তুহিন দেওয়ান,সাধারণ সম্পাদক আবির হোসেন রিদয়, উপজেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগের সভাপতি আল মাহমুদ মিশা, সাধারণ সম্পাদক হিরু মৃধাসহ যুব মহিলা লীগ,কৃষক লীগসহ সকল সহযোগী সংগঠনের নেতৃবৃন্দ।

শান্তি সমাবেশে বক্তারা বলেন, বিএনপি জামাতের সন্ত্রাস, নৈরাজ্য ও অনৈতিক হরতালের প্রতিবাদে শান্তি সমাবেশের আয়োজন করা হয়েছে। বিএনপিকে হরতালের নামে সাধারণ মানুষের জান-মালের ক্ষতি করতে দেয়া হবেনা। গাড়ি ভাংচুর ও অগ্নিসংযোগ করতে দেয়া হবেনা। আমরা আওয়ামী লীগের প্রত্যেকটা নেতাকর্মী পাহারাদার হিসেবে রাজপথে থেকে সাধারণ মানুষের জান-মাল রক্ষা করবো। যদি কোনো বিএনপির নেতাকর্মী শান্ত গোয়ালন্দ অশান্ত করতে চায় তাহলে তাদের ঘর থেকে বের হতে দেয়া হবেনা, সেইসাথে তাদেরকে উপযুক্ত জবাব দেয়া হবে।

এদিকে সকাল থেকে দুপুর পর্যন্ত গোয়ালন্দ উপজেলার ঢাকা-খুলনা মহাসড়ক ঘুরে দেখা যায়, মহাসড়কের বিভিন্ন পয়েন্টে ছিলো আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর কড়া পাহারা। যেকোনোপ্রকার অপ্রীতিকর ঘটনা মোকাবিলা করতে দেয়া হচ্ছে টহল। দূরপাল্লার গণপরিবহন চলাচল বন্ধ রয়েছে। মাঝেমধ্যে দৌলতদিয়া থেকে কুষ্টিয়া ও ফরিদপুরের উদ্দেশ্যে লোকাল বাস চলাচল করছে। সেইসাথে মাহিন্দ্র ও অটোরিকশার চলাচল ছিলো চোখে পরার মত। বিএনপি নেতাকর্মীদের কাউকেই মহাসড়কে অবস্থান করতে দেখা যায়নি এবং কোনো প্রকার বিশৃঙ্খলা ও অশান্ত পরিবেশের সৃষ্টি হয়নি।

গোয়ালন্দ ঘাট থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (তদন্ত) উত্তম ঘোষ জানান, বিএনপির ডাকা হরতালের প্রভাব গোয়ালন্দে পরেনি। যানবাহন চলাচল স্বাভাবিক রয়েছে। হরতালের নামে অগ্নিসংযোগ, সাধারণ মানুষের জান-মালের ক্ষতিসহ সকল প্রকার বিশৃঙ্খলা ও অপ্রীতিকর ঘটনা মোকাবিলায় গোয়ালন্দ ঘাট থানা সর্বদা প্রস্তুত।