০১:২৭ পূর্বাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ১৩ জুন ২০২৪, ২৯ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

অবরোধ সমর্থনে ইবিতে ব্যানার ঝুলালেন ছাত্রদল 

দেশব্যাপী ডাকা বিএনপি-জামায়াতের অবরোধ সমর্থনে ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ের (ইবি) বিভিন্ন ভবনে ব্যানার ঝুলিয়েছেন শাখা ছাত্রদল। সোমবার (০৬ নভেম্বর) দ্বিতীয় দয়ায় ডাকা অবরোধের দ্বিতীয় দিন সকাল সাতটার দিকে ব্যানার ঝুলান তারা।
জানা যায়, সকাল সাতটার দিকে বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রশাসনিক ভবন এবং রবীন্দ্র নজরুল কলা ভবনে  ব্যানার ঝুলান শাখা ছাত্রদলের নেতা-কর্মীরা। ব্যানারে ‘দেশ বাঁচাও, মানুষ বাঁচাও’, ‘রাষ্ট্র মেরামতের কাজ চলছে, সাময়িক অসুবিধার জন্য দুঃখিত’ লেখা দেখা যায়।
এ বিষয়ে শাখা ছাত্রদলের সদস্য সচিব মাসুদ রুমী মিথুন বলেন, আমরা একদফা দাবিতে আন্দোলনের অংশ হিসেবে প্রশাসন ভবনসহ বিভিন্ন একাডেমিক ভবনে ব্যানার ঝুলিয়ে দিয়েছি। জনগণের স্বার্থ রক্ষার্থেই আমরা এই কর্মসূচি পালন করছি। এটা দেশের সকল জনগণ ও শিক্ষার্থীদের দাবি। একইসঙ্গে আমরা দাবি জানাচ্ছি যেন বিশ্ববিদ্যালয়ের সকল কার্যক্রম স্থগিত রাখা হয়। ক্যাম্পাস বন্ধ না করার কারণে কোনো অপ্রীতিকর ঘটনা ঘটলে প্রশাসনকে দায় নিতে হবে। আমরা মনে করি গণতন্ত্রকে ফিরিয়ে আনতে এক দফার বিকল্প নেই। তাই দাবি আদায় না হওয়া পর্যন্ত আমরা মাঠ ছাড়বো না।
ছাত্রদলের ব্যানার ঝুলানোর কিছুক্ষণ পর শাখা ছাত্রলীগের কর্মীরা সেখান থেকে তাদের ব্যানার সড়িয়ে ফেলেন বলে দাবি করেন শাখা ছাত্রলীগের সভাপতি ফয়সাল সিদ্দিকী আরাফাত।
তিনি বলেন, সকালে আমাদের কর্মীরা বিশ্ববিদ্যালয়ে ছাত্রদলের ব্যানার দেখতে পায়। পরে তারা সেই ব্যানার সড়িয়ে ফেলে। ছাত্রদল এই ব্যানার লাগিয়ে দেশ বিরোধী চক্রান্তের পায়তারা করছেন দাবি করে তিনি বলেন, আমরা মনে করছি ছাত্রদল এই ব্যানার লাগিয়ে দেশ বিরোধী চক্রান্তের পায়তারা করছে, তারা ক্যাম্পাসকে অস্থিতিশীল করার চেষ্টা করছে। তিনি আরও বলেন, যদি কেউ ক্যম্পাসের পড়ালেখার সুষ্ঠু পরিবেশ বিঘ্ন করে তাহলে ছাত্রলীগ তাদের কঠোর হস্তে দমন করবে।
বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টর অধ্যাপক ড. শাহাদৎ হোসেন আজাদ বলেন, আমি এমন একটি খবর পেয়েছিলাম যে প্রশাসন ভবনসহ কয়েকটি ভবনে ছাত্রদলের ব্যানার ঝুলছে। খবর পেয়ে একজন সহকারী প্রক্টরকে ঘটনাস্থলে পাঠাই। তিনি গিয়ে কোনো ব্যানার পাননি। তবে কোনো ভবনে তালা দেয়নি কেউ। তাছাড়া কে কোথায় ব্যানার ঝুলিয়েছে এটা তো প্রক্টরিয়ার বডির কাজ নয়। তালা দিলে আমরা সেভাবে মুভ করতাম।
জনপ্রিয় সংবাদ

টিউশনের নামে প্রতারণার ফাঁদ

অবরোধ সমর্থনে ইবিতে ব্যানার ঝুলালেন ছাত্রদল 

আপডেট সময় : ০১:০৪:১৮ অপরাহ্ন, সোমবার, ৬ নভেম্বর ২০২৩
দেশব্যাপী ডাকা বিএনপি-জামায়াতের অবরোধ সমর্থনে ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ের (ইবি) বিভিন্ন ভবনে ব্যানার ঝুলিয়েছেন শাখা ছাত্রদল। সোমবার (০৬ নভেম্বর) দ্বিতীয় দয়ায় ডাকা অবরোধের দ্বিতীয় দিন সকাল সাতটার দিকে ব্যানার ঝুলান তারা।
জানা যায়, সকাল সাতটার দিকে বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রশাসনিক ভবন এবং রবীন্দ্র নজরুল কলা ভবনে  ব্যানার ঝুলান শাখা ছাত্রদলের নেতা-কর্মীরা। ব্যানারে ‘দেশ বাঁচাও, মানুষ বাঁচাও’, ‘রাষ্ট্র মেরামতের কাজ চলছে, সাময়িক অসুবিধার জন্য দুঃখিত’ লেখা দেখা যায়।
এ বিষয়ে শাখা ছাত্রদলের সদস্য সচিব মাসুদ রুমী মিথুন বলেন, আমরা একদফা দাবিতে আন্দোলনের অংশ হিসেবে প্রশাসন ভবনসহ বিভিন্ন একাডেমিক ভবনে ব্যানার ঝুলিয়ে দিয়েছি। জনগণের স্বার্থ রক্ষার্থেই আমরা এই কর্মসূচি পালন করছি। এটা দেশের সকল জনগণ ও শিক্ষার্থীদের দাবি। একইসঙ্গে আমরা দাবি জানাচ্ছি যেন বিশ্ববিদ্যালয়ের সকল কার্যক্রম স্থগিত রাখা হয়। ক্যাম্পাস বন্ধ না করার কারণে কোনো অপ্রীতিকর ঘটনা ঘটলে প্রশাসনকে দায় নিতে হবে। আমরা মনে করি গণতন্ত্রকে ফিরিয়ে আনতে এক দফার বিকল্প নেই। তাই দাবি আদায় না হওয়া পর্যন্ত আমরা মাঠ ছাড়বো না।
ছাত্রদলের ব্যানার ঝুলানোর কিছুক্ষণ পর শাখা ছাত্রলীগের কর্মীরা সেখান থেকে তাদের ব্যানার সড়িয়ে ফেলেন বলে দাবি করেন শাখা ছাত্রলীগের সভাপতি ফয়সাল সিদ্দিকী আরাফাত।
তিনি বলেন, সকালে আমাদের কর্মীরা বিশ্ববিদ্যালয়ে ছাত্রদলের ব্যানার দেখতে পায়। পরে তারা সেই ব্যানার সড়িয়ে ফেলে। ছাত্রদল এই ব্যানার লাগিয়ে দেশ বিরোধী চক্রান্তের পায়তারা করছেন দাবি করে তিনি বলেন, আমরা মনে করছি ছাত্রদল এই ব্যানার লাগিয়ে দেশ বিরোধী চক্রান্তের পায়তারা করছে, তারা ক্যাম্পাসকে অস্থিতিশীল করার চেষ্টা করছে। তিনি আরও বলেন, যদি কেউ ক্যম্পাসের পড়ালেখার সুষ্ঠু পরিবেশ বিঘ্ন করে তাহলে ছাত্রলীগ তাদের কঠোর হস্তে দমন করবে।
বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টর অধ্যাপক ড. শাহাদৎ হোসেন আজাদ বলেন, আমি এমন একটি খবর পেয়েছিলাম যে প্রশাসন ভবনসহ কয়েকটি ভবনে ছাত্রদলের ব্যানার ঝুলছে। খবর পেয়ে একজন সহকারী প্রক্টরকে ঘটনাস্থলে পাঠাই। তিনি গিয়ে কোনো ব্যানার পাননি। তবে কোনো ভবনে তালা দেয়নি কেউ। তাছাড়া কে কোথায় ব্যানার ঝুলিয়েছে এটা তো প্রক্টরিয়ার বডির কাজ নয়। তালা দিলে আমরা সেভাবে মুভ করতাম।