১১:৫৩ অপরাহ্ন, বুধবার, ১২ জুন ২০২৪, ২৯ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

রাজাপুর টি এন্ড টি সড়কের ব্রীজ ও সংযোগ সড়কের বেহাল দশা

ঝালকাঠির রাজাপুর সদরের জনবহুল আবাসিক এলাকার ব্যস্ততম টি এন্ড টি সড়কের দক্ষিণ প্রান্তের ব্রীজটি ভাঙ্গা ও সংযোগ সড়কে খানা খন্দ হওয়ায় স্থানীয় লোকজন ও পথচারিদের চলাচলে দুর্ভোগ পোহাতে হচ্ছে। সহজে কোন রিক্সা ও ইজিবাইক ওই কারণে ওই ব্রীজ পারাপার হতে চাচ্ছেন না। ফলে স্থানীয়দের গৃহস্থলির মালামাল নিয়ে পড়তে হচ্ছে দুর্ভোগে। এমনকি কষ্ট করে ওই ব্রীজটি পার হয়ে রাজাপুর মডেল সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়, রাজাপুর মডেল পাইলট উচ্চ বিদ্যালয় ও রাজাপুর সরকারী বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের শতশত কোমলমতি শিক্ষার্থীদের প্রতিদিন যাতায়াত করতে হচ্ছে।
এ বিষয়ে ওই এলাকার বাসিন্দা মোঃ এনামুল হক, মোঃ মতিউর রহমান মামুন ও আরিফুর রহমান রনিসহ একাধিক এলাকাবাসি অভিযোগ করে বলেন, প্রাায় বিশ বছর আগে লোহার এ্যাংগেলের উপরে ঢালাই দিয়ে ব্রীজটি নির্মান করা হয়। প্রায় ৬/৭ বছর আগে থেকে ওই স্থানে এ ভঙ্গুর অবস্থার সৃষ্টি হয়েছে। বর্তমানে ব্রীজটি ভেঙ্গে নাজুক হয়ে গেছে। ব্রীজের সংযোগ সড়কে খানাখন্দ হওয়ায় রিক্সা, ইজিবাইক ও অন্যান্য কোন যানবাহন ওই সড়কে ঢুকতে চাচ্ছেনা। ফলে স্থানীয় বাসিন্দারা বাজারের বোঝা নিয়ে পড়েন চরম বিপাকে। এলাকার বহু স্থানে উন্নয়ন হচ্ছে কিন্তু উপজেলা সদরের ব্যস্ততম টি এন্ড টি সড়কের এসমস্যা সংস্কারের কোন উদযোগ নেই। তাই ব্রীজটি নির্মানসহ সড়কটি সংস্কারের দাবি এলাকাবাসির।
এ বিষয়ে উপজেলা এলজিইডি কর্মকর্তা অভিজিৎ মজুমদার বলেন, লোহার ষ্ট্রাকচারের উপরে নির্মিত ব্রীজগুলি ট্যাম্পোরারী। উপজেলায় ওই ধরনের যতগুলো ব্রীজ আছে সবগুলো স্থানে অর্থ বরাদ্দ সাপেক্ষে পর্যায়ক্রমে স্থায়ী ব্রীজ নির্মাণ করা হবে।
জনপ্রিয় সংবাদ

টিউশনের নামে প্রতারণার ফাঁদ

রাজাপুর টি এন্ড টি সড়কের ব্রীজ ও সংযোগ সড়কের বেহাল দশা

আপডেট সময় : ০৬:০২:৫৯ অপরাহ্ন, বুধবার, ৮ নভেম্বর ২০২৩
ঝালকাঠির রাজাপুর সদরের জনবহুল আবাসিক এলাকার ব্যস্ততম টি এন্ড টি সড়কের দক্ষিণ প্রান্তের ব্রীজটি ভাঙ্গা ও সংযোগ সড়কে খানা খন্দ হওয়ায় স্থানীয় লোকজন ও পথচারিদের চলাচলে দুর্ভোগ পোহাতে হচ্ছে। সহজে কোন রিক্সা ও ইজিবাইক ওই কারণে ওই ব্রীজ পারাপার হতে চাচ্ছেন না। ফলে স্থানীয়দের গৃহস্থলির মালামাল নিয়ে পড়তে হচ্ছে দুর্ভোগে। এমনকি কষ্ট করে ওই ব্রীজটি পার হয়ে রাজাপুর মডেল সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়, রাজাপুর মডেল পাইলট উচ্চ বিদ্যালয় ও রাজাপুর সরকারী বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের শতশত কোমলমতি শিক্ষার্থীদের প্রতিদিন যাতায়াত করতে হচ্ছে।
এ বিষয়ে ওই এলাকার বাসিন্দা মোঃ এনামুল হক, মোঃ মতিউর রহমান মামুন ও আরিফুর রহমান রনিসহ একাধিক এলাকাবাসি অভিযোগ করে বলেন, প্রাায় বিশ বছর আগে লোহার এ্যাংগেলের উপরে ঢালাই দিয়ে ব্রীজটি নির্মান করা হয়। প্রায় ৬/৭ বছর আগে থেকে ওই স্থানে এ ভঙ্গুর অবস্থার সৃষ্টি হয়েছে। বর্তমানে ব্রীজটি ভেঙ্গে নাজুক হয়ে গেছে। ব্রীজের সংযোগ সড়কে খানাখন্দ হওয়ায় রিক্সা, ইজিবাইক ও অন্যান্য কোন যানবাহন ওই সড়কে ঢুকতে চাচ্ছেনা। ফলে স্থানীয় বাসিন্দারা বাজারের বোঝা নিয়ে পড়েন চরম বিপাকে। এলাকার বহু স্থানে উন্নয়ন হচ্ছে কিন্তু উপজেলা সদরের ব্যস্ততম টি এন্ড টি সড়কের এসমস্যা সংস্কারের কোন উদযোগ নেই। তাই ব্রীজটি নির্মানসহ সড়কটি সংস্কারের দাবি এলাকাবাসির।
এ বিষয়ে উপজেলা এলজিইডি কর্মকর্তা অভিজিৎ মজুমদার বলেন, লোহার ষ্ট্রাকচারের উপরে নির্মিত ব্রীজগুলি ট্যাম্পোরারী। উপজেলায় ওই ধরনের যতগুলো ব্রীজ আছে সবগুলো স্থানে অর্থ বরাদ্দ সাপেক্ষে পর্যায়ক্রমে স্থায়ী ব্রীজ নির্মাণ করা হবে।