১০:২৯ অপরাহ্ন, শনিবার, ০২ মার্চ ২০২৪, ১৯ ফাল্গুন ১৪৩০ বঙ্গাব্দ

ড. জিয়াওকুন শি বাংলাদেশে এফএও’র নতুন প্রতিনিধি

বাংলাদেশে জাতিসংঘের খাদ্য ও কৃষি সংস্থার (এফএও) নতুন প্রতিনিধি হিসেবে যোগদান করেছেন ড. জিয়াওকুন শি। সোমবার (২৯ জানুয়ারি) আনুষ্ঠানিকভাবে পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদের কাছে পরিচয়পত্র দাখিল করেন তিনি।

এফএও’র বলছে, চীনের নাগরিক ড. শি উহান বিশ্ববিদ্যালয় থেকে আইনে স্নাতকোত্তর ও ইতিহাসে স্নাতক এবং চীনের ন্যাশনাল অ্যাকাডেমি অব গভর্নেন্স থেকে আইন বিষয়ে ডক্টরেট ডিগ্রি অর্জন করেন।

তিনি ২০১৯ সালে এফএও-তে যোগদান করেন এবং ইতালির রোমে অবস্থিত এফএও সদর দপ্তরে ডেপুটি ডিরেক্টর-জেনারেলের সিনিয়র কমপ্লায়েন্স অ্যাডভাইজার হিসেবে এবং ২০২১ সালের জানুয়ারি থেকে তিনি থাইল্যান্ডের ব্যাংকক-এ অবস্থিত এফএও আঞ্চলিক দপ্তরে বিশেষ উপদেষ্টা হিসেবে দায়িত্ব পালন করেছেন।

ড. জিয়াওকুন শি, ১৯৮৮ সালে চীনের জিয়াংফানে চীন সরকারের জিয়াংফান বিভাগের গবেষক হিসেবে তার কর্মজীবন শুরু করেন। ১৯৯৬-২০০৪ সাল পর্যন্ত, তিনি চীনের বেইজিং-এ অর্থ মন্ত্রণালয়ের নিয়োগ বিভাগে ডেপুটি ডিরেক্টর অব পার্সোনেল হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন। ২০০৭- ২০১০ সাল পর্যন্ত তিনি চীনের বেইজিং-এ অর্থ মন্ত্রণালয়ের জেনারেল ডিভিশনের পরিচালক ছিলেন। ২০০৯ সালে, তিনি চীনের জিয়াংজিতে তুজিয়া এবং মিয়াও স্বায়ত্তশাসিত সরকারের ডেপুটি প্রিফেকচার গভর্নর হিসেবে কাজ করেন। ২০১০-২০১৬ সাল পর্যন্ত, তিনি চীনের বেইজিং-এ অর্থ মন্ত্রণালয়ের জেনারেল অফিসের ডেপুটি ডিরেক্টর-জেনারেল হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন। তিনি ২০১৬- ২০১৯ সালে ইতালির রোমে অবস্থিত জাতিসংঘের তিনটি সংস্থায় গণপ্রজাতন্ত্রী চীন সরকারের স্থায়ী প্রতিনিধির কার্যালয়ে উপ-প্রতিনিধি হিসেবে প্রতিনিধিত্ব করেন।

বাংলাদেশে এফএও কর্মসূচির পরিকল্পনা ও বাস্তবায়নের নেতৃত্ব দেবেন ড. জিয়াওকুন শি।

 

 

 

 

স/ম

ড. জিয়াওকুন শি বাংলাদেশে এফএও’র নতুন প্রতিনিধি

আপডেট সময় : ১২:৩২:০১ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ৩০ জানুয়ারী ২০২৪

বাংলাদেশে জাতিসংঘের খাদ্য ও কৃষি সংস্থার (এফএও) নতুন প্রতিনিধি হিসেবে যোগদান করেছেন ড. জিয়াওকুন শি। সোমবার (২৯ জানুয়ারি) আনুষ্ঠানিকভাবে পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদের কাছে পরিচয়পত্র দাখিল করেন তিনি।

এফএও’র বলছে, চীনের নাগরিক ড. শি উহান বিশ্ববিদ্যালয় থেকে আইনে স্নাতকোত্তর ও ইতিহাসে স্নাতক এবং চীনের ন্যাশনাল অ্যাকাডেমি অব গভর্নেন্স থেকে আইন বিষয়ে ডক্টরেট ডিগ্রি অর্জন করেন।

তিনি ২০১৯ সালে এফএও-তে যোগদান করেন এবং ইতালির রোমে অবস্থিত এফএও সদর দপ্তরে ডেপুটি ডিরেক্টর-জেনারেলের সিনিয়র কমপ্লায়েন্স অ্যাডভাইজার হিসেবে এবং ২০২১ সালের জানুয়ারি থেকে তিনি থাইল্যান্ডের ব্যাংকক-এ অবস্থিত এফএও আঞ্চলিক দপ্তরে বিশেষ উপদেষ্টা হিসেবে দায়িত্ব পালন করেছেন।

ড. জিয়াওকুন শি, ১৯৮৮ সালে চীনের জিয়াংফানে চীন সরকারের জিয়াংফান বিভাগের গবেষক হিসেবে তার কর্মজীবন শুরু করেন। ১৯৯৬-২০০৪ সাল পর্যন্ত, তিনি চীনের বেইজিং-এ অর্থ মন্ত্রণালয়ের নিয়োগ বিভাগে ডেপুটি ডিরেক্টর অব পার্সোনেল হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন। ২০০৭- ২০১০ সাল পর্যন্ত তিনি চীনের বেইজিং-এ অর্থ মন্ত্রণালয়ের জেনারেল ডিভিশনের পরিচালক ছিলেন। ২০০৯ সালে, তিনি চীনের জিয়াংজিতে তুজিয়া এবং মিয়াও স্বায়ত্তশাসিত সরকারের ডেপুটি প্রিফেকচার গভর্নর হিসেবে কাজ করেন। ২০১০-২০১৬ সাল পর্যন্ত, তিনি চীনের বেইজিং-এ অর্থ মন্ত্রণালয়ের জেনারেল অফিসের ডেপুটি ডিরেক্টর-জেনারেল হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন। তিনি ২০১৬- ২০১৯ সালে ইতালির রোমে অবস্থিত জাতিসংঘের তিনটি সংস্থায় গণপ্রজাতন্ত্রী চীন সরকারের স্থায়ী প্রতিনিধির কার্যালয়ে উপ-প্রতিনিধি হিসেবে প্রতিনিধিত্ব করেন।

বাংলাদেশে এফএও কর্মসূচির পরিকল্পনা ও বাস্তবায়নের নেতৃত্ব দেবেন ড. জিয়াওকুন শি।

 

 

 

 

স/ম