০৮:৪১ অপরাহ্ন, রবিবার, ০৩ মার্চ ২০২৪, ২০ ফাল্গুন ১৪৩০ বঙ্গাব্দ

তুমব্রু সীমান্তে তিন দিনে ৩টি মর্টার শেল উদ্ধার

বান্দরবানের নাইক্ষ্যংছড়ির তুমব্রু সীমান্তে আরও একটি অবিস্ফোরিত মর্টার শেল উদ্ধার করেছে বিজিবি। শনিবার (১০ ফেব্রুয়ারি) সকাল সাড়ে ৯টায় মর্টার শেলটি তুমব্রু পশ্চিমকূল ১নং ওয়ার্ড এলাকার ব্রিজের পাশে পড়ে থাকতে দেখা যায়। খবর পেয়ে বিজিবি সদস্যরা সেটি উদ্ধার করে। এ নিয়ে ওই এলাকায় তিন দিনে ৩টি মর্টার শেল উদ্ধার হলো।

বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন নাইক্ষ্যংছড়ি থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আব্দুল মান্নান। বিজিবি সূত্র জানায়, বিজিবি এগুলো উদ্ধার করে চারপাশে লাল পতাকা দিয়ে জায়গাটি বিপদজনক চিহ্নিত করে রাখছে। নিরাপত্তার স্বার্থে সড়কে দেওয়া হয়েছে ব্যারিকেড। ফলে ব্যাহত হচ্ছে যান চলাচল। স্থানীয়দের দাবি দ্রুত সময়ের মধ্যে এসব গোলা যেন নিষ্ক্রিয় করা হয়।

গত ৮ ফেব্রুয়ারি দুপুরে ঘুমধুম ইউপির ৫ নম্বর ওয়ার্ড নোয়াপাড়া এলাকা থেকে একটি, ৯ ফেবরুয়ারি দুপুরে তমব্রু পশ্চিমকূল বিজিবি ক্যাম্পের কাছাকাছি এলাকার ধানক্ষেতে একটি ও সর্বশেষ আজ বিজবি ক্যাম্পের কাছাকাছি ব্রিজ থেকে ১টিসহ মোট ৩টি অবিস্ফোরিত মর্টারশেল উদ্ধার করা হয়। ধারণা করা হচ্ছে, এ ধরনের আরও অনেক অবিস্ফোরিত মর্টারশেল ধানক্ষেত সহ সীমান্তের আনাচে কানাচে পড়ে থাকতে পারে।

শেষ খবর পাওয়া পর্যন্ত মায়ানমারে বিদ্রোহী গোষ্ঠীর হাত থেকে প্রাণ বাঁচাতে বাংলাদেশে পালিয়ে এসে আশ্রয় নিয়েছেন দেশটির ৩৩০ জন সীমান্তরক্ষী। দুই দেশের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মধ্যে আলোচনার পর তাদের ফিরিয়ে নিতে সম্মত হয়েছে মিয়ানমার।
স/ম

ফুটপাত থেকে হকার মুক্ত করতে চসিকের ফের অভিযান

তুমব্রু সীমান্তে তিন দিনে ৩টি মর্টার শেল উদ্ধার

আপডেট সময় : ০১:৩৯:০০ অপরাহ্ন, শনিবার, ১০ ফেব্রুয়ারী ২০২৪

বান্দরবানের নাইক্ষ্যংছড়ির তুমব্রু সীমান্তে আরও একটি অবিস্ফোরিত মর্টার শেল উদ্ধার করেছে বিজিবি। শনিবার (১০ ফেব্রুয়ারি) সকাল সাড়ে ৯টায় মর্টার শেলটি তুমব্রু পশ্চিমকূল ১নং ওয়ার্ড এলাকার ব্রিজের পাশে পড়ে থাকতে দেখা যায়। খবর পেয়ে বিজিবি সদস্যরা সেটি উদ্ধার করে। এ নিয়ে ওই এলাকায় তিন দিনে ৩টি মর্টার শেল উদ্ধার হলো।

বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন নাইক্ষ্যংছড়ি থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আব্দুল মান্নান। বিজিবি সূত্র জানায়, বিজিবি এগুলো উদ্ধার করে চারপাশে লাল পতাকা দিয়ে জায়গাটি বিপদজনক চিহ্নিত করে রাখছে। নিরাপত্তার স্বার্থে সড়কে দেওয়া হয়েছে ব্যারিকেড। ফলে ব্যাহত হচ্ছে যান চলাচল। স্থানীয়দের দাবি দ্রুত সময়ের মধ্যে এসব গোলা যেন নিষ্ক্রিয় করা হয়।

গত ৮ ফেব্রুয়ারি দুপুরে ঘুমধুম ইউপির ৫ নম্বর ওয়ার্ড নোয়াপাড়া এলাকা থেকে একটি, ৯ ফেবরুয়ারি দুপুরে তমব্রু পশ্চিমকূল বিজিবি ক্যাম্পের কাছাকাছি এলাকার ধানক্ষেতে একটি ও সর্বশেষ আজ বিজবি ক্যাম্পের কাছাকাছি ব্রিজ থেকে ১টিসহ মোট ৩টি অবিস্ফোরিত মর্টারশেল উদ্ধার করা হয়। ধারণা করা হচ্ছে, এ ধরনের আরও অনেক অবিস্ফোরিত মর্টারশেল ধানক্ষেত সহ সীমান্তের আনাচে কানাচে পড়ে থাকতে পারে।

শেষ খবর পাওয়া পর্যন্ত মায়ানমারে বিদ্রোহী গোষ্ঠীর হাত থেকে প্রাণ বাঁচাতে বাংলাদেশে পালিয়ে এসে আশ্রয় নিয়েছেন দেশটির ৩৩০ জন সীমান্তরক্ষী। দুই দেশের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মধ্যে আলোচনার পর তাদের ফিরিয়ে নিতে সম্মত হয়েছে মিয়ানমার।
স/ম