০৭:০৯ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ১৬ জুলাই ২০২৪, ১ শ্রাবণ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

হাইমচরে মা ইলিশ রক্ষায় সচেতনতামূলক সভা

হাইমচরে মা ইলিশ রক্ষায় সচেতনতামূলক সভায় নৌ এসপি কামরুজ্জামান
নিরাপদে মা ইলিশকে ডিম ছাড়ার সুযোগ করে দিতে হবে

চাঁদপুরের হাইমচরে মা ইলিশ রক্ষায় সচেতনতামূলক সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। এ সময় নৌ পুলিশ চাঁদপুর অ লের পুলিশ সুপার (এসপি)নৌ এসপি মোহাম্মদ কামরুজ্জামান বলেছেন,নিরাপদে মা ইলিশকে ডিম ছাড়ার সুযোগ করে দিতে হবে ।

তিনি বলেছেন, মা ইলিশ ও জাটকা রক্ষায় যে অভিযান দেয়া হয়, ওই অভিযান যতই কঠোর হয়, কিন্তু জেলেরা বিধি নিষেধ মানেন না। এটি আমার এই অ লের আড়াই বছর অভিজ্ঞতা থেকে বলছি। জাতীয় সম্পদ রক্ষায় সরকার জেলেদেরকে প্রনোদনা দিচ্ছে। এ বছরও আগামী ১২ অক্টোবর থেকে ২ নভেম্বর পর্যন্ত ২২ দিনের জন্য প্রত্যেক জেলেকে ২৫ কেজি করে চাল খাদ্য সহায়তা করে দেয়া হবে।

বুধবার (৪ অক্টোবর) বিকেলে চাঁদপুরের হাইমচর উপজেলার ১ নম্বর গাজীপুর ইউনিয়ন মনিপুর কুতুবপুর মুজিবকিল্লা মিলনায়তন ২০২৩-২৪ অর্থবছরে “ইলিশ সম্পদ উন্নয়ন ও ব্যবস্থাপনা প্রকল্প “এর আওতায় আসন্ন মা ইলিশ রক্ষা অভিযান -২০২৩ বিষয়ক ইউনিয়ন পর্যায়ের সচেতনতা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে এসব কথা বলেন।

তিনি বলেন, ইলিশ আমাদের সকলের সম্পদ। বিশেষ করে এই ইলিশ উৎপাদন বাড়লে জেলে থেকে শুরু করে সকলেই উপকৃত হবে। যেহেতু চাঁদপুরের মতলব উত্তর উপজেলার ষাটনল থেকে হাইমচর উপজেলার চরভৈরবী পর্যন্ত অভয়াশ্রম এলাকা। সেহেতু আমাদের প্রত্যেককে এই সময়ে মা ইলিশকে নিরাপদে ডিম ছাড়ার সুযোগ করে দিতে হবে। এটি আমাদের সকলেরই দায়িত্ব।

এসপি বলেন, আগামী মা ইলিশ রক্ষা অভিযান সফল করতে সরকার আমাদের যে দায়িত্ব দিয়েছে, তা আমরা কঠোরভাবে পালন করব। জেলেরা যেন এই সময় বাড়িতে থাকেন এবং কোনভাবেই নৌকা নিয়ে নদীতে না নামেন। হাইমচরে অভিযানের কাজ এগিয়ে নিতে সরকারের পক্ষ থেকে ২৩০সিসি পাওয়ারের একটি স্পীড বোট দেয়া হয়েছে। এটি অভিযানের বেশ সহায়ক হবে বলে মনি করি। একই সাথে নৌ পুলিশ সর্বদা অভিযানে দায়িত্ব পালন করবেন।

বিশেষ অতিথির বক্তব্য দেন-চাঁদপুর জেলা মৎস্য কর্মকর্তা মো. গোলাম মেহেদী হাসান। তিনি বক্তব্যে ইলিশ সম্পদ উন্নয়ন, সংরক্ষণ ও মা ইলিশ রক্ষা অভিযান সফল করার জন্য সকলের সহযোগিতা কামনা করেন। একই সাথে জেলেরা বিধি নিষেধ অমান্য করলে কোন প্রকার ছাড় দেয়া হবে না বলে জেলেদের সতর্ক করে দেন।
হাইমচর সিনিয়র উপজেলা মৎস্য কর্মকর্তা (অতিরিক্ত দায়িত্ব) মো. মাহবুব রশীদের স ালনায় বিশেষ অতিথি হিসেবে আরো বক্তব্য দেন-উপজেলা প্রাণিসম্পদ কর্মকর্তা ডাঃ মকবুল হোসেন।

এ সময় হাইমচর নীলকমল নৌ পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ মো. জাহাঙ্গীর হোসেন, কোস্টগার্ড হাইমচর নয়ানী আউটপোস্টের কন্টিনজেন্ট কমান্ডার মো. নাসির উদ্দিন, হাইমচর উপজেলা মৎস্য অফিসরে ক্ষেত্র সহকারী মো. ইজাজ মাহমুদ, উপজেলা আওয়ামী মৎস্যজীবী লীগের সভাপতি মো. বাবুল পেদা, স্থানীয় গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গ, উপজেলা আওয়ামী মৎস্যজীবী লীগ, জেলে প্রতিনিধিগণ এবং শতাধিক মৎস্যজীবীগণ উপস্থিত ছিলেন।

সভায় আসন্ন মা ইলিশ রক্ষা অভিযান-২০২৩ উপলক্ষে বিভিন্ন পর্যায়ের স্টোক হোল্ডারগণ গুরুত্বপূর্ণ দিক নির্দেশনামূলক বক্তব্য প্রদান করেন। এছাড়াও সভায় মা ইলিশ রক্ষা অভিযান বিষয়ক লিফলেট বিতরণ করা হয়।

 

মুক্তিযোদ্ধাদের সর্বোচ্চ সম্মান দেখাতে হবে : প্রধানমন্ত্রী

হাইমচরে মা ইলিশ রক্ষায় সচেতনতামূলক সভা

আপডেট সময় : ০৯:০৭:৪০ অপরাহ্ন, বুধবার, ৪ অক্টোবর ২০২৩

হাইমচরে মা ইলিশ রক্ষায় সচেতনতামূলক সভায় নৌ এসপি কামরুজ্জামান
নিরাপদে মা ইলিশকে ডিম ছাড়ার সুযোগ করে দিতে হবে

চাঁদপুরের হাইমচরে মা ইলিশ রক্ষায় সচেতনতামূলক সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। এ সময় নৌ পুলিশ চাঁদপুর অ লের পুলিশ সুপার (এসপি)নৌ এসপি মোহাম্মদ কামরুজ্জামান বলেছেন,নিরাপদে মা ইলিশকে ডিম ছাড়ার সুযোগ করে দিতে হবে ।

তিনি বলেছেন, মা ইলিশ ও জাটকা রক্ষায় যে অভিযান দেয়া হয়, ওই অভিযান যতই কঠোর হয়, কিন্তু জেলেরা বিধি নিষেধ মানেন না। এটি আমার এই অ লের আড়াই বছর অভিজ্ঞতা থেকে বলছি। জাতীয় সম্পদ রক্ষায় সরকার জেলেদেরকে প্রনোদনা দিচ্ছে। এ বছরও আগামী ১২ অক্টোবর থেকে ২ নভেম্বর পর্যন্ত ২২ দিনের জন্য প্রত্যেক জেলেকে ২৫ কেজি করে চাল খাদ্য সহায়তা করে দেয়া হবে।

বুধবার (৪ অক্টোবর) বিকেলে চাঁদপুরের হাইমচর উপজেলার ১ নম্বর গাজীপুর ইউনিয়ন মনিপুর কুতুবপুর মুজিবকিল্লা মিলনায়তন ২০২৩-২৪ অর্থবছরে “ইলিশ সম্পদ উন্নয়ন ও ব্যবস্থাপনা প্রকল্প “এর আওতায় আসন্ন মা ইলিশ রক্ষা অভিযান -২০২৩ বিষয়ক ইউনিয়ন পর্যায়ের সচেতনতা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে এসব কথা বলেন।

তিনি বলেন, ইলিশ আমাদের সকলের সম্পদ। বিশেষ করে এই ইলিশ উৎপাদন বাড়লে জেলে থেকে শুরু করে সকলেই উপকৃত হবে। যেহেতু চাঁদপুরের মতলব উত্তর উপজেলার ষাটনল থেকে হাইমচর উপজেলার চরভৈরবী পর্যন্ত অভয়াশ্রম এলাকা। সেহেতু আমাদের প্রত্যেককে এই সময়ে মা ইলিশকে নিরাপদে ডিম ছাড়ার সুযোগ করে দিতে হবে। এটি আমাদের সকলেরই দায়িত্ব।

এসপি বলেন, আগামী মা ইলিশ রক্ষা অভিযান সফল করতে সরকার আমাদের যে দায়িত্ব দিয়েছে, তা আমরা কঠোরভাবে পালন করব। জেলেরা যেন এই সময় বাড়িতে থাকেন এবং কোনভাবেই নৌকা নিয়ে নদীতে না নামেন। হাইমচরে অভিযানের কাজ এগিয়ে নিতে সরকারের পক্ষ থেকে ২৩০সিসি পাওয়ারের একটি স্পীড বোট দেয়া হয়েছে। এটি অভিযানের বেশ সহায়ক হবে বলে মনি করি। একই সাথে নৌ পুলিশ সর্বদা অভিযানে দায়িত্ব পালন করবেন।

বিশেষ অতিথির বক্তব্য দেন-চাঁদপুর জেলা মৎস্য কর্মকর্তা মো. গোলাম মেহেদী হাসান। তিনি বক্তব্যে ইলিশ সম্পদ উন্নয়ন, সংরক্ষণ ও মা ইলিশ রক্ষা অভিযান সফল করার জন্য সকলের সহযোগিতা কামনা করেন। একই সাথে জেলেরা বিধি নিষেধ অমান্য করলে কোন প্রকার ছাড় দেয়া হবে না বলে জেলেদের সতর্ক করে দেন।
হাইমচর সিনিয়র উপজেলা মৎস্য কর্মকর্তা (অতিরিক্ত দায়িত্ব) মো. মাহবুব রশীদের স ালনায় বিশেষ অতিথি হিসেবে আরো বক্তব্য দেন-উপজেলা প্রাণিসম্পদ কর্মকর্তা ডাঃ মকবুল হোসেন।

এ সময় হাইমচর নীলকমল নৌ পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ মো. জাহাঙ্গীর হোসেন, কোস্টগার্ড হাইমচর নয়ানী আউটপোস্টের কন্টিনজেন্ট কমান্ডার মো. নাসির উদ্দিন, হাইমচর উপজেলা মৎস্য অফিসরে ক্ষেত্র সহকারী মো. ইজাজ মাহমুদ, উপজেলা আওয়ামী মৎস্যজীবী লীগের সভাপতি মো. বাবুল পেদা, স্থানীয় গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গ, উপজেলা আওয়ামী মৎস্যজীবী লীগ, জেলে প্রতিনিধিগণ এবং শতাধিক মৎস্যজীবীগণ উপস্থিত ছিলেন।

সভায় আসন্ন মা ইলিশ রক্ষা অভিযান-২০২৩ উপলক্ষে বিভিন্ন পর্যায়ের স্টোক হোল্ডারগণ গুরুত্বপূর্ণ দিক নির্দেশনামূলক বক্তব্য প্রদান করেন। এছাড়াও সভায় মা ইলিশ রক্ষা অভিযান বিষয়ক লিফলেট বিতরণ করা হয়।