০৭:৪৫ অপরাহ্ন, সোমবার, ১৫ জুলাই ২০২৪, ৩১ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

জবির ভূমি ব্যবস্থাপনা ও আইন বিভাগে প্রথম মুট কোর্ট প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিত

জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের ভূমি ব্যবস্থাপনা ও আইন বিভাগে প্রথম মুট কোর্ট প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিত হয়েছে। মঙ্গলবার এ প্রতিযোগিতার আয়োজন করে ‘ল্যান্ড ল ক্লাব’।

প্রতিযোগিতায় মোট আটটি দল অংশগ্রহণ করে। আটটি দলের মধ্যে সেরা পিটিশনার ও সেরা রেসপনডেন্ট দুই দল নিয়ে অনুষ্ঠিত হয় ফাইনাল। ফাইনালে টিম ‘পিটিশনার-১’ কে পরাজিত করে চ্যাম্পিয়ন হয় টিম ‘রেসপন্ডেন্ট-৪।

প্রতিযোগিতায় সার্বিক তত্ত্বাবধানে ছিলেন ভূমি ব্যবস্থাপনা ও আইন বিভাগের সহকারী অধ্যাপক শাকিল আহমেদ। ফাইনাল রাউন্ডের বিচারক হিসেবে উপস্থিত ছিলেন ভূমি ব্যাবস্থাপনা ও আইন বিভাগে প্রতিষ্ঠাতা চেয়ারম্যান সহযোগী অধ্যাপক খ্রীস্টীন রিচার্ডসন, সহকারী অধ্যাপক আয়েশা সালেহ, সহকারী অধ্যাপক শাকিল আহমেদ ও আইন বিভাগের সহকারী অধ্যাপক মো. মেফতাহুল হাসান।

প্রতিযোগিতা আয়োজনের বিষয়ে সহকারী অধ্যাপক শাকিল আহমেদ বলেন, মুট কোর্ট প্রতিযোগিতার মাধ্যমে শিক্ষার্থীদের একাডেমিক পড়াশোনার পাশাপাশি তাদের স্কিলের উন্নতি হবে। আইনের ছাত্রদেন জন্য এ প্রতিযোগিতা খুবই গুরুত্বপূর্ণ। আশা করি আমাদের শিক্ষার্থীরা বাইরের প্রতিযোগিতায়ও ভালো করবে।

ল্যান্ড ল ক্লাবের পরিচালক সহকারী অধ্যাপক রাফেয়া খাতুন বলেন, মুট কোর্ট হলো একটি ছায়া কোর্ট যেখানে একটি বাস্তবিক কোর্টের আবহ তৈরি করা করা হয়। এরকম প্রতিযোগিতা আমাদের শিক্ষার্থীদের বাস্তবিক জ্ঞান বাড়াবে। এর মাধ্যমে তাদের রিসার্চ স্কিলও বৃদ্ধি পাবে ও অ্যাডভোকেসি দক্ষতা বিকাশে সহায়তা করবে।

প্রসঙ্গত, মুট কোর্ট বা মুটিং হচ্ছে আইনের ছাত্রদের একটি প্রতিযোগিতা। যেখানে একটি কাল্পনিক কেসে শিক্ষার্থীরা পিটিশনার ও রেসপন্ডেন্ট দুই দলে ভাগ হয়ে নিজেদের পক্ষে বিপক্ষে যুক্তি তর্ক উপস্থাপন করেন। এই কাল্পনিক কোর্টে বিজ্ঞ জজের আসনে একাধিক বিচারক থাকেন।

জবির ভূমি ব্যবস্থাপনা ও আইন বিভাগে প্রথম মুট কোর্ট প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিত

আপডেট সময় : ০৬:১১:৩২ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ৭ নভেম্বর ২০২৩

জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের ভূমি ব্যবস্থাপনা ও আইন বিভাগে প্রথম মুট কোর্ট প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিত হয়েছে। মঙ্গলবার এ প্রতিযোগিতার আয়োজন করে ‘ল্যান্ড ল ক্লাব’।

প্রতিযোগিতায় মোট আটটি দল অংশগ্রহণ করে। আটটি দলের মধ্যে সেরা পিটিশনার ও সেরা রেসপনডেন্ট দুই দল নিয়ে অনুষ্ঠিত হয় ফাইনাল। ফাইনালে টিম ‘পিটিশনার-১’ কে পরাজিত করে চ্যাম্পিয়ন হয় টিম ‘রেসপন্ডেন্ট-৪।

প্রতিযোগিতায় সার্বিক তত্ত্বাবধানে ছিলেন ভূমি ব্যবস্থাপনা ও আইন বিভাগের সহকারী অধ্যাপক শাকিল আহমেদ। ফাইনাল রাউন্ডের বিচারক হিসেবে উপস্থিত ছিলেন ভূমি ব্যাবস্থাপনা ও আইন বিভাগে প্রতিষ্ঠাতা চেয়ারম্যান সহযোগী অধ্যাপক খ্রীস্টীন রিচার্ডসন, সহকারী অধ্যাপক আয়েশা সালেহ, সহকারী অধ্যাপক শাকিল আহমেদ ও আইন বিভাগের সহকারী অধ্যাপক মো. মেফতাহুল হাসান।

প্রতিযোগিতা আয়োজনের বিষয়ে সহকারী অধ্যাপক শাকিল আহমেদ বলেন, মুট কোর্ট প্রতিযোগিতার মাধ্যমে শিক্ষার্থীদের একাডেমিক পড়াশোনার পাশাপাশি তাদের স্কিলের উন্নতি হবে। আইনের ছাত্রদেন জন্য এ প্রতিযোগিতা খুবই গুরুত্বপূর্ণ। আশা করি আমাদের শিক্ষার্থীরা বাইরের প্রতিযোগিতায়ও ভালো করবে।

ল্যান্ড ল ক্লাবের পরিচালক সহকারী অধ্যাপক রাফেয়া খাতুন বলেন, মুট কোর্ট হলো একটি ছায়া কোর্ট যেখানে একটি বাস্তবিক কোর্টের আবহ তৈরি করা করা হয়। এরকম প্রতিযোগিতা আমাদের শিক্ষার্থীদের বাস্তবিক জ্ঞান বাড়াবে। এর মাধ্যমে তাদের রিসার্চ স্কিলও বৃদ্ধি পাবে ও অ্যাডভোকেসি দক্ষতা বিকাশে সহায়তা করবে।

প্রসঙ্গত, মুট কোর্ট বা মুটিং হচ্ছে আইনের ছাত্রদের একটি প্রতিযোগিতা। যেখানে একটি কাল্পনিক কেসে শিক্ষার্থীরা পিটিশনার ও রেসপন্ডেন্ট দুই দলে ভাগ হয়ে নিজেদের পক্ষে বিপক্ষে যুক্তি তর্ক উপস্থাপন করেন। এই কাল্পনিক কোর্টে বিজ্ঞ জজের আসনে একাধিক বিচারক থাকেন।