১১:৪২ অপরাহ্ন, বুধবার, ১২ জুন ২০২৪, ২৯ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

নতুন ‘ওয়ার্নার’ পেল অস্ট্রেলিয়া

গত মাসে অস্ট্রেলিয়ার টেস্ট থেকে অবসরে গেছেন ডেভিড ওয়ার্নার। যে কারণে, ওয়ার্নারের স্থলাভিষিক্ত ক্রিকেট তারকাকে হন্যে হয়ে খুঁজছে অস্ট্রেলিয়া। তবে কি এবার নতুন ওয়ার্নারকে পেয়েই গেলো অসিরা! বোর্ড না পেলেও নতুন ওয়ার্নারকে ঠিকই পেয়ে গেছেন অস্ট্রেলিয়ার সাবেক অধিনায়ক রিকি পন্টিং।

পন্টিং বলেন, ‘সে যে প্রাকৃতিক প্রতিভা পেয়েছে তা আমাকে অস্ট্রেলিয়ান ক্রিকেটে ডেভিড ওয়ার্নারের শুরুর দিকের কথা মনে করিয়ে দেয়।’

উপরের উদ্ধৃতিতে পন্টিং বলেছিলেন, গতকাল মঙ্গলবার ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে মারকুটে ব্যাট করে অস্ট্রেলিয়াকে রেকর্ডগড়া জয় উপহার দেওয়া জ্যাক ফ্রেজার-ম্যাকগার্কের কথা।

ওয়েস্ট ইন্ডিজের ৮৬ রানের জবাবে ব্যাট করতে নেমে জস ইঙ্গলিসের সহায়তায় দলকে ৬.৫ ওভারেই দলকে জয় এনে দিয়েছিলেন ফ্রেজার-ম্যাকগার্ক। ওই ম্যাচে ৪ বাউন্ডারি আর ৩ ছক্কায় ১৮ বলে ৪১ রান করেছিলেন তিনি।

সেই মারকুটে ফ্রেজার-ম্যাকগার্ককে অস্ট্রেলিয়ার টেস্ট দলে নেওয়ার প্রস্তাব করেছেন পন্টিং। প্রথম শ্রেণির খেলায় ২২.৩৯ গড়ে ব্যাট করা ক্রিকেটারকে টেস্ট খেলানোর কথা মূলত বলেছিলেন প্রতিভাকে বিবেচনায় নিয়ে।

মেলবোর্নে পন্টিং সাংবাদিকদের বলেন, ‘অবশ্যই। শুধু তার প্রতিভার কারণে। আমরা অতীতে অন্যান্য খেলোয়াড়দের দেখেছি। এমনকি শহীদ আফ্রিদির মতোই কিছু, যিনি কিনা ১৭ বছর বয়সে একজন অতি-প্রতিভাবান মারকুটে হিসাবে ক্রিকেটমঞ্চে এসেছিলেন এবং লেগস্পিন বোলিং করতে পারে। আপনার জানার কথা, তিনি আগে তিনি সম্ভবত (২৭) টেস্ট ম্যাচ খেলেছেন।’

‘যখন আপনি এই ধরনের প্রতিভাবান ক্রিকেটার পাবেন, তখন তাকে কাজে লাগানোর জন্য সর্বোচ্চ স্তরের ক্রিকেটের সাথে পরিচিয় করিয়ে দিতে হবে। আমি মনে করি, জ্যাক এখন এটি করতে পারে। আমি অবশ্যই তাকে টেস্ট ক্রিকেট খেলতে সমর্থন করছি।’

ওয়ার্নারের সঙ্গে তুলনা করে পন্টিং বলেন, ‘আমরা যখন (ওয়ার্নারকে) শুরুতে দেখেছিলাম, সবাই সন্দেহ করেছিল, সে কৌশলী হয়ে টেস্ট ক্রিকেট খেলতে যথেষ্ট ভালো হবে কিনা।’

পন্টিং আরও বলেন, ‘কিন্তু তার (ওয়ার্নারের) যে প্রতিভা এবং দক্ষতা ছিল, আমি মনে করি জ্যাকেরও সেই প্রতিভা আছে। আমি মনে করি, যত আগে তাকে দলে নিয়ে আসা যায় এবং খেলানো যায়, তত তাড়াতাড়ি বিভিন্ন ফরম্যাটে সাফল্য পাওয়ার সুযোগ আসবে। আমি মনে করি, এটা অস্ট্রেলিয়ান ক্রিকেটের জন্য দারুণ হবে।’

ফ্রেজার-ম্যাকগার্ককে আসন্ন ওয়েস্ট ইন্ডিজ ও নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে টি-টোয়েন্টি সিরিজে স্কোয়াডে নেওয়া হয়নি। তবে এখানে দ্বিমত করেননি পন্টিং। এমনকি টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে না খেলানোর পক্ষে তিনি।

 

 

 

 

স/ম

জনপ্রিয় সংবাদ

টিউশনের নামে প্রতারণার ফাঁদ

নতুন ‘ওয়ার্নার’ পেল অস্ট্রেলিয়া

আপডেট সময় : ০৩:২৪:৪৯ অপরাহ্ন, বুধবার, ৭ ফেব্রুয়ারী ২০২৪

গত মাসে অস্ট্রেলিয়ার টেস্ট থেকে অবসরে গেছেন ডেভিড ওয়ার্নার। যে কারণে, ওয়ার্নারের স্থলাভিষিক্ত ক্রিকেট তারকাকে হন্যে হয়ে খুঁজছে অস্ট্রেলিয়া। তবে কি এবার নতুন ওয়ার্নারকে পেয়েই গেলো অসিরা! বোর্ড না পেলেও নতুন ওয়ার্নারকে ঠিকই পেয়ে গেছেন অস্ট্রেলিয়ার সাবেক অধিনায়ক রিকি পন্টিং।

পন্টিং বলেন, ‘সে যে প্রাকৃতিক প্রতিভা পেয়েছে তা আমাকে অস্ট্রেলিয়ান ক্রিকেটে ডেভিড ওয়ার্নারের শুরুর দিকের কথা মনে করিয়ে দেয়।’

উপরের উদ্ধৃতিতে পন্টিং বলেছিলেন, গতকাল মঙ্গলবার ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে মারকুটে ব্যাট করে অস্ট্রেলিয়াকে রেকর্ডগড়া জয় উপহার দেওয়া জ্যাক ফ্রেজার-ম্যাকগার্কের কথা।

ওয়েস্ট ইন্ডিজের ৮৬ রানের জবাবে ব্যাট করতে নেমে জস ইঙ্গলিসের সহায়তায় দলকে ৬.৫ ওভারেই দলকে জয় এনে দিয়েছিলেন ফ্রেজার-ম্যাকগার্ক। ওই ম্যাচে ৪ বাউন্ডারি আর ৩ ছক্কায় ১৮ বলে ৪১ রান করেছিলেন তিনি।

সেই মারকুটে ফ্রেজার-ম্যাকগার্ককে অস্ট্রেলিয়ার টেস্ট দলে নেওয়ার প্রস্তাব করেছেন পন্টিং। প্রথম শ্রেণির খেলায় ২২.৩৯ গড়ে ব্যাট করা ক্রিকেটারকে টেস্ট খেলানোর কথা মূলত বলেছিলেন প্রতিভাকে বিবেচনায় নিয়ে।

মেলবোর্নে পন্টিং সাংবাদিকদের বলেন, ‘অবশ্যই। শুধু তার প্রতিভার কারণে। আমরা অতীতে অন্যান্য খেলোয়াড়দের দেখেছি। এমনকি শহীদ আফ্রিদির মতোই কিছু, যিনি কিনা ১৭ বছর বয়সে একজন অতি-প্রতিভাবান মারকুটে হিসাবে ক্রিকেটমঞ্চে এসেছিলেন এবং লেগস্পিন বোলিং করতে পারে। আপনার জানার কথা, তিনি আগে তিনি সম্ভবত (২৭) টেস্ট ম্যাচ খেলেছেন।’

‘যখন আপনি এই ধরনের প্রতিভাবান ক্রিকেটার পাবেন, তখন তাকে কাজে লাগানোর জন্য সর্বোচ্চ স্তরের ক্রিকেটের সাথে পরিচিয় করিয়ে দিতে হবে। আমি মনে করি, জ্যাক এখন এটি করতে পারে। আমি অবশ্যই তাকে টেস্ট ক্রিকেট খেলতে সমর্থন করছি।’

ওয়ার্নারের সঙ্গে তুলনা করে পন্টিং বলেন, ‘আমরা যখন (ওয়ার্নারকে) শুরুতে দেখেছিলাম, সবাই সন্দেহ করেছিল, সে কৌশলী হয়ে টেস্ট ক্রিকেট খেলতে যথেষ্ট ভালো হবে কিনা।’

পন্টিং আরও বলেন, ‘কিন্তু তার (ওয়ার্নারের) যে প্রতিভা এবং দক্ষতা ছিল, আমি মনে করি জ্যাকেরও সেই প্রতিভা আছে। আমি মনে করি, যত আগে তাকে দলে নিয়ে আসা যায় এবং খেলানো যায়, তত তাড়াতাড়ি বিভিন্ন ফরম্যাটে সাফল্য পাওয়ার সুযোগ আসবে। আমি মনে করি, এটা অস্ট্রেলিয়ান ক্রিকেটের জন্য দারুণ হবে।’

ফ্রেজার-ম্যাকগার্ককে আসন্ন ওয়েস্ট ইন্ডিজ ও নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে টি-টোয়েন্টি সিরিজে স্কোয়াডে নেওয়া হয়নি। তবে এখানে দ্বিমত করেননি পন্টিং। এমনকি টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে না খেলানোর পক্ষে তিনি।

 

 

 

 

স/ম