০৭:৩৪ অপরাহ্ন, রবিবার, ২১ এপ্রিল ২০২৪, ৮ বৈশাখ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

বর্ধিত মন্ত্রিসভার সদস্যদের নাম ঘোষণা আগামী সপ্তাহে

◉ বর্তমান মন্ত্রিসভার সঙ্গে যুক্ত হতে যাচ্ছেন ১০-১২ জন
◉ থাকছেন সংরক্ষিত আসনের সংসদ সদস্যরা
◉ বিবেচনায় থাকছে বিভাগ ও জেলা

দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে জয়ের পর শেখ হাসিনার নেতৃত্বে টানা চতুর্থ দফায় সরকার গঠন করেছে বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ। গত ১১ জানুয়ারি ৩৭ সদস্যের নতুন মন্ত্রিসভা শপথ গ্রহণের পর থেকেই গুঞ্জন ছিলো আকার বাড়ানো হবে মন্তিসভার। সূত্র বলছে, এরই মধ্যে শুরু হয়ে গেছে মন্ত্রিসভা সম্প্রসারণের আলোচনা। আগামী সপ্তাহের মধ্যেই ঘোষণা আসবে নতুন মন্ত্রীদের নাম। বর্তমান মন্ত্রিসভার সঙ্গে যুক্ত হতে যাচ্ছেন অন্তত ১০ থেকে ১২ জন।
দল ও সরকার সূত্রে জানা গেছে, নতুন করে যাদের নাম যুক্ত হবে তাদের বেশিরভাগই প্রতিমন্ত্রী ও উপমন্ত্রী হিসেবে দায়িত্ব পেতে পারেন। গতকাল বুধবার সংরক্ষিত আসনের সংসদ সদস্যদের শপথ গ্রহণ হওয়ায় আগামী সপ্তাহের যেকোনো দিন আসতে পারে বর্ধিত মন্ত্রিসভার ষোষণা। এজন্য প্রাথমিক প্রস্তুতিও শেষ করেছে মন্ত্রিপরিষদ বিভাগ।

মন্ত্রিসভায় যুক্ত হওয়াদের মধ্যে সংরক্ষিত নারী আসনের সংসদ সদস্যদের তিন-চারজন থাকতে পারেন। অর্থ, স্বাস্থ্যসহ বেশ কিছ গুরুত্বপূর্ণ মন্ত্রণালয়ে পূর্বের মন্ত্রিসভাগুলোতে একাধিক মন্ত্রী, প্রতিমন্ত্রী বা উপমন্ত্রী থাকলেও এবার একজন মন্ত্রী বা প্রতিমন্ত্রী দায়িত্ব পেয়েছেন। এসব মন্ত্রাণালয়ে যুক্ত হতে পারেন নতুন একজন মন্ত্রী, প্রতিমন্ত্রী বা উপমন্ত্রী। এর মধ্যে পরিকল্পনা মন্ত্রণালয়েও একজন প্রতিমন্ত্রী, অর্থ মন্ত্রণালয়ে একজন প্রতিমন্ত্রী, স্থানীয় সরকার মন্ত্রণালয়ে একজন প্রতিমন্ত্রী বা উপমন্ত্রী, স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ে একজন প্রতিমন্ত্রী বা উপমন্ত্রী, শিক্ষা মন্ত্রণালয়ে একজন প্রতিমন্ত্রী বা উপমন্ত্রী যুক্ত হতে পারেন। এছাড়া ডাক, টেলিযোগাযোগ ও তথ্যপ্রযুক্তি মন্ত্রণালয়ে প্রতিমন্ত্রীর পাশাপাশি একজন পূর্ণ মন্ত্রী দেওয়া হয়েছে অতীতে। এবার প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহ্মেদ পলক একাই দায়িত্ব সামলাচ্ছেন। এই মন্ত্রণালয়ে পূর্ণ মন্ত্রী কিংবা বিভাগ ভাগ করে আরেকজন প্রতিমন্ত্রী নিয়োগের বিষয়ে আলোচনা রয়েছে। এছাড়া এখনো দুটি মন্ত্রণালয়ে শ্রম ও কর্মসংস্থান এবং সংস্কৃতি মন্ত্রণালয়ে কোনো মন্ত্রী-প্রতিমন্ত্রী দেওয়া হয়নি। এই দুই মন্ত্রণালয়ে দুজন নারী সদস্যকে দায়িত্ব দেওয়া হতে পারে।

বর্তমান মন্ত্রিসভায় ৩৭ সদস্যের মধ্যে প্রধানমন্ত্রী বাদে পূর্ণ মন্ত্রী রয়েছেন ২৫ জন এবং প্রতিমন্ত্রী ১১ জন, কোনো উপমন্ত্রী নেই। এর মধ্যে ঢাকা, সিলেট ও চট্টগ্রাম বিভাগের প্রাধান্য দেখা গেছে। রাজশাহী, রংপুর, খুলনা, বরিশাল ও ময়মনসিংহ বিভাগে মন্ত্রিসভায় প্রতিনিধিত্ব কম। এই বিবেচনায় এবার কম পাওয়া বিভাগ ও দীর্ঘদিন মন্ত্রী না থাকা জেলাগুলোকে বিবেচনায় নেওয়া হতে পারে।

 

জনপ্রিয় সংবাদ

এনএসইউতে সামার-২০২৪ সেমিস্টারের ভর্তি পরীক্ষা অনুষ্ঠিত

বর্ধিত মন্ত্রিসভার সদস্যদের নাম ঘোষণা আগামী সপ্তাহে

আপডেট সময় : ০৭:১৫:৪৩ পূর্বাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ২৯ ফেব্রুয়ারী ২০২৪

◉ বর্তমান মন্ত্রিসভার সঙ্গে যুক্ত হতে যাচ্ছেন ১০-১২ জন
◉ থাকছেন সংরক্ষিত আসনের সংসদ সদস্যরা
◉ বিবেচনায় থাকছে বিভাগ ও জেলা

দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে জয়ের পর শেখ হাসিনার নেতৃত্বে টানা চতুর্থ দফায় সরকার গঠন করেছে বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ। গত ১১ জানুয়ারি ৩৭ সদস্যের নতুন মন্ত্রিসভা শপথ গ্রহণের পর থেকেই গুঞ্জন ছিলো আকার বাড়ানো হবে মন্তিসভার। সূত্র বলছে, এরই মধ্যে শুরু হয়ে গেছে মন্ত্রিসভা সম্প্রসারণের আলোচনা। আগামী সপ্তাহের মধ্যেই ঘোষণা আসবে নতুন মন্ত্রীদের নাম। বর্তমান মন্ত্রিসভার সঙ্গে যুক্ত হতে যাচ্ছেন অন্তত ১০ থেকে ১২ জন।
দল ও সরকার সূত্রে জানা গেছে, নতুন করে যাদের নাম যুক্ত হবে তাদের বেশিরভাগই প্রতিমন্ত্রী ও উপমন্ত্রী হিসেবে দায়িত্ব পেতে পারেন। গতকাল বুধবার সংরক্ষিত আসনের সংসদ সদস্যদের শপথ গ্রহণ হওয়ায় আগামী সপ্তাহের যেকোনো দিন আসতে পারে বর্ধিত মন্ত্রিসভার ষোষণা। এজন্য প্রাথমিক প্রস্তুতিও শেষ করেছে মন্ত্রিপরিষদ বিভাগ।

মন্ত্রিসভায় যুক্ত হওয়াদের মধ্যে সংরক্ষিত নারী আসনের সংসদ সদস্যদের তিন-চারজন থাকতে পারেন। অর্থ, স্বাস্থ্যসহ বেশ কিছ গুরুত্বপূর্ণ মন্ত্রণালয়ে পূর্বের মন্ত্রিসভাগুলোতে একাধিক মন্ত্রী, প্রতিমন্ত্রী বা উপমন্ত্রী থাকলেও এবার একজন মন্ত্রী বা প্রতিমন্ত্রী দায়িত্ব পেয়েছেন। এসব মন্ত্রাণালয়ে যুক্ত হতে পারেন নতুন একজন মন্ত্রী, প্রতিমন্ত্রী বা উপমন্ত্রী। এর মধ্যে পরিকল্পনা মন্ত্রণালয়েও একজন প্রতিমন্ত্রী, অর্থ মন্ত্রণালয়ে একজন প্রতিমন্ত্রী, স্থানীয় সরকার মন্ত্রণালয়ে একজন প্রতিমন্ত্রী বা উপমন্ত্রী, স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ে একজন প্রতিমন্ত্রী বা উপমন্ত্রী, শিক্ষা মন্ত্রণালয়ে একজন প্রতিমন্ত্রী বা উপমন্ত্রী যুক্ত হতে পারেন। এছাড়া ডাক, টেলিযোগাযোগ ও তথ্যপ্রযুক্তি মন্ত্রণালয়ে প্রতিমন্ত্রীর পাশাপাশি একজন পূর্ণ মন্ত্রী দেওয়া হয়েছে অতীতে। এবার প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহ্মেদ পলক একাই দায়িত্ব সামলাচ্ছেন। এই মন্ত্রণালয়ে পূর্ণ মন্ত্রী কিংবা বিভাগ ভাগ করে আরেকজন প্রতিমন্ত্রী নিয়োগের বিষয়ে আলোচনা রয়েছে। এছাড়া এখনো দুটি মন্ত্রণালয়ে শ্রম ও কর্মসংস্থান এবং সংস্কৃতি মন্ত্রণালয়ে কোনো মন্ত্রী-প্রতিমন্ত্রী দেওয়া হয়নি। এই দুই মন্ত্রণালয়ে দুজন নারী সদস্যকে দায়িত্ব দেওয়া হতে পারে।

বর্তমান মন্ত্রিসভায় ৩৭ সদস্যের মধ্যে প্রধানমন্ত্রী বাদে পূর্ণ মন্ত্রী রয়েছেন ২৫ জন এবং প্রতিমন্ত্রী ১১ জন, কোনো উপমন্ত্রী নেই। এর মধ্যে ঢাকা, সিলেট ও চট্টগ্রাম বিভাগের প্রাধান্য দেখা গেছে। রাজশাহী, রংপুর, খুলনা, বরিশাল ও ময়মনসিংহ বিভাগে মন্ত্রিসভায় প্রতিনিধিত্ব কম। এই বিবেচনায় এবার কম পাওয়া বিভাগ ও দীর্ঘদিন মন্ত্রী না থাকা জেলাগুলোকে বিবেচনায় নেওয়া হতে পারে।