০৯:৩৮ অপরাহ্ন, রবিবার, ২১ এপ্রিল ২০২৪, ৮ বৈশাখ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

নবীনদের উন্নত বিশ্বের শিক্ষার্থীদের সঙ্গে প্রতিযোগিতার প্রস্তুতি নেবার আহ্বান উপাচার্যের

 

জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয় উপাচার্য প্রফেসর ড. মো. মশিউর রহমান বলেছেন, ‘শিক্ষার্থীদের এমনভাবে তৈরি হতে হবে যেন উন্নত বিশ্বের তরুণের সঙ্গে প্রতিযোগিতায় টিকে থাকা যায়, বিজয়ী হওয়া যায়। তাদেরকে একাত্তরের রণাঙ্গনের গল্প বলবে। বঙ্গবন্ধু কন্যার সাহসী অভিযাত্রার কথা বলবে। নিজেদের এমনভাবে যোগ্য করে গড়ে তুলবে যেন মাথা উঁচু করে বলতে পার আমরা স্মার্ট বাংলাদেশের গর্বিত নাগরিক।’ ২৮ ফেব্রুয়ারি ২০২৪ বুধবার রাজধানীর মোহাম্মদপুর সরকারি মহিলা কলেজের ‘নবীনবরণ ২০২৪’ অনুষ্ঠানে প্রধান আলোচকের বক্তব্যে এসব কথা বলেন উপাচার্য। অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন বস্ত্র ও পাটমন্ত্রী অ্যাডভোকেট জাহাঙ্গীর কবির নানক এমপি।

নবীন শিক্ষার্থীদের উদ্দেশ্যে উপাচার্য ড. মশিউর রহমান আরও বলেন, ‘তোমরা এই কলেজে যে সময়টুকু থাকবে তার প্রতি মুহুর্ত, ক্ষণকে কাজে লাগাবে। কারণ তোমার সঙ্গে এই দেশের তোমার বয়সী কোনো তরুণের প্রতিযোগিতা হবে না। তোমার প্রতিযোগিতা হবে তোমার বয়সী উন্নত দেশের তরুণের সঙ্গে। ডিজিটাল সকল সুবিধা কাজে লাগিয়ে তুমি নিজেকে যোগ্য নাগরিকে পরিণত করবে। তোমার হাতে যে মোবাইলটি রয়েছে সেটিতে তুমি ই-বুক, ই-জার্নাল একসেস করবে। সেটি প্রতিনিয়ত ব্রাউজ করবে। নিজেকে তথ্যে সমৃদ্ধ করবে। তোমার মধ্যে যেন স্বপ্নেরা খেলা করে। সেই স্বপ্ন বাস্তবায়নে তুমি নিরন্তর ছুটে চলবে। প্রতিদিন তুমি পড়াশোনা করবে। মনে রাখবে এটি তোমার জীবনের শ্রেষ্ঠ সময়।’

 

তরুণ শিক্ষার্থীদের উদ্দেশ্যে প্রধান অতিথির বক্তব্যে বস্ত্র ও পাটমন্ত্রী অ্যাডভোকেট জাহাঙ্গীর কবির নানক বলেন, ‘তোমরা আমাদের আগামী দিনের ভবিষ্যৎ। তোমার বাবা-মা যে আশা-আকাক্সক্ষা নিয়ে পড়াশোনায় বিনিয়োগ করছেন। নিজেদের শতকষ্টে সবকিছু তোমাদের জন্য উজার করে দিচ্ছেন। সেটি যেন তোমরা অনুধাবন করতে পার। তারা যেন সবসময় তোমাদের ভালোবাসা পায় সেটি নিশ্চিত করবে। মানবিক ও আদর্শ মানুষ হিসেবে নিজেদের গড়ে তুলবে।’

মোহাম্মদপুর সরকারি মহিলা কলেজের সভাপতি অধ্যাপক সৈয়দ জাফর আলীর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি ছিলেন জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের ট্রেজারার প্রফেসর আবদুস সালাম হাওলাদার, মাইক্রোক্রেডিট রেগুলেটরি অথরিটির এক্সিকিউটিভ ভাইস চেয়ারম্যান ও কলেজের পরিচালনা পর্ষদের সদস্য মো. ফসিউল্লাহ, মোহাম্মদপুর মহিলা কলেজের পরিচালনা পর্ষদের সদস্য প্রফেসর ড. মো. রফিবুল ইসলাম, ঢাকা মাধ্যমিক ও উচ্চমাধ্যমিক শিক্ষা বোর্ডের কলেজ পরিদর্শক ও কলেজ পরিচালনা পর্ষদের সদস্য প্রফেসর এটিএম মোয়াজ্জেম হোসেন, মোহাম্মদপুর থানা আওয়ামী লীগের সভাপতি অধ্যক্ষ এম এ সাত্তার, মোহাম্মদপুর মহিলা কলেজের প্রতিষ্ঠাতা সদস্য এহসানুল হক সেতু। অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্য প্রদান করেন কলেজের অধ্যক্ষ প্রফেসর মো. আমিনুল হক। অনুষ্ঠান শেষে মনোজ্ঞ সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান পরিবেশন করা হয়।

 

 

জনপ্রিয় সংবাদ

ইবির স্পোর্টস সাইন্স বিভাগের নতুন চেয়ারম্যান অধ্যাপক ড. দেবাশীষ শর্মা

নবীনদের উন্নত বিশ্বের শিক্ষার্থীদের সঙ্গে প্রতিযোগিতার প্রস্তুতি নেবার আহ্বান উপাচার্যের

আপডেট সময় : ১০:০৩:৫২ অপরাহ্ন, বুধবার, ২৮ ফেব্রুয়ারী ২০২৪

 

জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয় উপাচার্য প্রফেসর ড. মো. মশিউর রহমান বলেছেন, ‘শিক্ষার্থীদের এমনভাবে তৈরি হতে হবে যেন উন্নত বিশ্বের তরুণের সঙ্গে প্রতিযোগিতায় টিকে থাকা যায়, বিজয়ী হওয়া যায়। তাদেরকে একাত্তরের রণাঙ্গনের গল্প বলবে। বঙ্গবন্ধু কন্যার সাহসী অভিযাত্রার কথা বলবে। নিজেদের এমনভাবে যোগ্য করে গড়ে তুলবে যেন মাথা উঁচু করে বলতে পার আমরা স্মার্ট বাংলাদেশের গর্বিত নাগরিক।’ ২৮ ফেব্রুয়ারি ২০২৪ বুধবার রাজধানীর মোহাম্মদপুর সরকারি মহিলা কলেজের ‘নবীনবরণ ২০২৪’ অনুষ্ঠানে প্রধান আলোচকের বক্তব্যে এসব কথা বলেন উপাচার্য। অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন বস্ত্র ও পাটমন্ত্রী অ্যাডভোকেট জাহাঙ্গীর কবির নানক এমপি।

নবীন শিক্ষার্থীদের উদ্দেশ্যে উপাচার্য ড. মশিউর রহমান আরও বলেন, ‘তোমরা এই কলেজে যে সময়টুকু থাকবে তার প্রতি মুহুর্ত, ক্ষণকে কাজে লাগাবে। কারণ তোমার সঙ্গে এই দেশের তোমার বয়সী কোনো তরুণের প্রতিযোগিতা হবে না। তোমার প্রতিযোগিতা হবে তোমার বয়সী উন্নত দেশের তরুণের সঙ্গে। ডিজিটাল সকল সুবিধা কাজে লাগিয়ে তুমি নিজেকে যোগ্য নাগরিকে পরিণত করবে। তোমার হাতে যে মোবাইলটি রয়েছে সেটিতে তুমি ই-বুক, ই-জার্নাল একসেস করবে। সেটি প্রতিনিয়ত ব্রাউজ করবে। নিজেকে তথ্যে সমৃদ্ধ করবে। তোমার মধ্যে যেন স্বপ্নেরা খেলা করে। সেই স্বপ্ন বাস্তবায়নে তুমি নিরন্তর ছুটে চলবে। প্রতিদিন তুমি পড়াশোনা করবে। মনে রাখবে এটি তোমার জীবনের শ্রেষ্ঠ সময়।’

 

তরুণ শিক্ষার্থীদের উদ্দেশ্যে প্রধান অতিথির বক্তব্যে বস্ত্র ও পাটমন্ত্রী অ্যাডভোকেট জাহাঙ্গীর কবির নানক বলেন, ‘তোমরা আমাদের আগামী দিনের ভবিষ্যৎ। তোমার বাবা-মা যে আশা-আকাক্সক্ষা নিয়ে পড়াশোনায় বিনিয়োগ করছেন। নিজেদের শতকষ্টে সবকিছু তোমাদের জন্য উজার করে দিচ্ছেন। সেটি যেন তোমরা অনুধাবন করতে পার। তারা যেন সবসময় তোমাদের ভালোবাসা পায় সেটি নিশ্চিত করবে। মানবিক ও আদর্শ মানুষ হিসেবে নিজেদের গড়ে তুলবে।’

মোহাম্মদপুর সরকারি মহিলা কলেজের সভাপতি অধ্যাপক সৈয়দ জাফর আলীর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি ছিলেন জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের ট্রেজারার প্রফেসর আবদুস সালাম হাওলাদার, মাইক্রোক্রেডিট রেগুলেটরি অথরিটির এক্সিকিউটিভ ভাইস চেয়ারম্যান ও কলেজের পরিচালনা পর্ষদের সদস্য মো. ফসিউল্লাহ, মোহাম্মদপুর মহিলা কলেজের পরিচালনা পর্ষদের সদস্য প্রফেসর ড. মো. রফিবুল ইসলাম, ঢাকা মাধ্যমিক ও উচ্চমাধ্যমিক শিক্ষা বোর্ডের কলেজ পরিদর্শক ও কলেজ পরিচালনা পর্ষদের সদস্য প্রফেসর এটিএম মোয়াজ্জেম হোসেন, মোহাম্মদপুর থানা আওয়ামী লীগের সভাপতি অধ্যক্ষ এম এ সাত্তার, মোহাম্মদপুর মহিলা কলেজের প্রতিষ্ঠাতা সদস্য এহসানুল হক সেতু। অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্য প্রদান করেন কলেজের অধ্যক্ষ প্রফেসর মো. আমিনুল হক। অনুষ্ঠান শেষে মনোজ্ঞ সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান পরিবেশন করা হয়।