০৫:৫৪ পূর্বাহ্ন, রবিবার, ২৬ মে ২০২৪, ১১ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

নওগাঁর শ্রেষ্ঠ প্রতিষ্ঠান ও শ্রেষ্ঠ শিক্ষক নির্বাচিত হলেন যারা

জাতীয় শিক্ষা সপ্তাহে নওগাঁর শ্রেষ্ঠ প্রতিষ্ঠান ও শ্রেষ্ঠ শিক্ষক নির্বাচন হয়েছে। ১৭ টি ধাপে যাচাই-বাছাই অন্তে সোমবার রাত ৯টায় জেলা শিক্ষা অফিসে এ কার্যক্রম সমাপ্ত হয়। পরে নির্বাচিত শ্রেষ্ঠ প্রতিষ্ঠান, প্রধান শিক্ষক ও সহকারী শিক্ষকের তালিকা প্রকাশ করা হয়।
জেলা শিক্ষা অফিস সূত্রে জানা যায়, এবারে জেলার ১১টি উপজেলা থেকে আসা উপজেলার শ্রেষ্ঠ প্রতিষ্ঠান ও শ্রেষ্ঠ শিক্ষকদের মধ্যে থেকে অধিকতর যাচাই-বাছাই শেষে জেলার শ্রেষ্ঠ প্রতিষ্ঠান ও শ্রেষ্ঠ শিক্ষকদের তালিকা প্রকাশ করা হয়েছে। এ তালিকায় জেলার শ্রেষ্ঠ শিক্ষা প্রতিষ্ঠান হিসাবে স্থান পেয়েছে বদলগাছী সরকারি পাইলট উচ্চ বিদ্যালয়, বদলগাছী, নওগাঁ। সরকারি কলেজ, গাউসুল আজম কামিল মাদ্রাসা, নওগাঁ। কড়িদহ টেকনিক্যাল অ্যান্ড বিসনেস ম্যানেজমেন্ট কলেজ, পোরশা।
শ্রেষ্ঠ প্রতিষ্ঠান প্রধান নির্বাচিত হয়েছেন (স্কুল) মো. আব্দুল গফুর প্রাং, প্রধান শিক্ষক, মধুপুর উচ্চ বিদ্যালয়, রাণীনগর। শ্রেষ্ঠ অধ্যক্ষ নির্বাচিত হয়েছেন প্রফেসর মো. নাজমুল হাসান, নওগাঁ সরকারি ডিগ্রি কলেজ। শ্রেষ্ঠ অধ্যক্ষ (মাদ্রাসা) নির্বাচিত হয়েছেন ড. মো. মামুনুর রশীদ, কালিকাপুর আলিম মাদ্রাসা, মান্দা। শ্রেষ্ঠ অধ্যক্ষ (কারিগরি) নির্বাচিত হয়েছেন মো. বান্দাইখাড়া টেকনিক্যাল এন্ড বিসনেস ম্যানেজমেন্ট কলেজ, মান্দা এবং শ্রেষ্ঠ শিক্ষক নির্বাচিত হয়েছেন নওগাঁ কৃষ্ণধন কেডি সরকারি উচ্চ বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক মো. হাসমত আলী। নওগাঁ সরকারি কলেজ শিক্ষক ড. মো. আনোয়ার হোসেন, খঞ্জনপুর তালকুড়া লতিফিয়া আলিম মাদ্রাসা, সাপাহার এর শিক্ষক মো. আব্দুল হালিম, ইনডেক্স টেকনিক্যাল এন্ড বিসনেস ম্যানেজমেন্ট কলেজ, মান্দার শিক্ষক মো. জাহাঙ্গীর আলম।
অনুভূতি প্রকাশ করে শ্রেষ্ঠ মাদ্রাসা শিক্ষক মো. আব্দুল হালিম বলেন, আল্লাহর রহমতে আমি জেলার শ্রেষ্ঠ শিক্ষক নির্বাচিত হয়েছি। আমি অতিতের মতো ভবিষ্যতেও আমার সর্বোচ্চ প্রচেষ্টা দিয়ে শিক্ষার্থীদের মাঝে জ্ঞান বিতরণ করে যাবো।
এ বিষয়ে অনুভূতি প্রকাশ করে জেলার শ্রেষ্ঠ শিক্ষক মো. আব্দুল গফুর প্রাং বলেন, জেলার শ্রেষ্ঠ প্রধান শিক্ষক হিসাবে নির্বাচিত হওয়ায় মহান আল্লাহর দরবারে লাখো কোটি শুকরিয়া আদায় করছি। আমার দায়িত্ব সঠিকভাবে পালনের জন্য এ পর্যন্ত উপজেলায় মোট সাতবার শ্রেষ্ঠ প্রধান শিক্ষক নির্বাচিত হয়েছি এবং এই বারসহ জেলায় তিনবার শ্রেষ্ঠ প্রধান শিক্ষক হিসাবে নির্বাচিত হলাম। তাই আমি শিক্ষা কর্মকর্তাগণসহ আমার সহকর্মী ও দেশবাসীর নিকট কৃতজ্ঞতা জানাচ্ছি। আমি শিক্ষা সংশ্লিষ্ট সকলেরসহ দেশবাসীর কাছে দোয়া চাই ভবিষ্যতেও যেন আমার দায়িত্ব সঠিকভাবে পালনের মাধ্যমে দেশের কল্যাণে নিজেকে নিয়োজিত রাখতে পারি।

ঘূর্ণিঝড় রেমাল মোকাবেলায় কতটুকু প্রস্তুত পবিপ্রবি?

নওগাঁর শ্রেষ্ঠ প্রতিষ্ঠান ও শ্রেষ্ঠ শিক্ষক নির্বাচিত হলেন যারা

আপডেট সময় : ০৯:৪৪:২৯ পূর্বাহ্ন, মঙ্গলবার, ৭ মে ২০২৪
জাতীয় শিক্ষা সপ্তাহে নওগাঁর শ্রেষ্ঠ প্রতিষ্ঠান ও শ্রেষ্ঠ শিক্ষক নির্বাচন হয়েছে। ১৭ টি ধাপে যাচাই-বাছাই অন্তে সোমবার রাত ৯টায় জেলা শিক্ষা অফিসে এ কার্যক্রম সমাপ্ত হয়। পরে নির্বাচিত শ্রেষ্ঠ প্রতিষ্ঠান, প্রধান শিক্ষক ও সহকারী শিক্ষকের তালিকা প্রকাশ করা হয়।
জেলা শিক্ষা অফিস সূত্রে জানা যায়, এবারে জেলার ১১টি উপজেলা থেকে আসা উপজেলার শ্রেষ্ঠ প্রতিষ্ঠান ও শ্রেষ্ঠ শিক্ষকদের মধ্যে থেকে অধিকতর যাচাই-বাছাই শেষে জেলার শ্রেষ্ঠ প্রতিষ্ঠান ও শ্রেষ্ঠ শিক্ষকদের তালিকা প্রকাশ করা হয়েছে। এ তালিকায় জেলার শ্রেষ্ঠ শিক্ষা প্রতিষ্ঠান হিসাবে স্থান পেয়েছে বদলগাছী সরকারি পাইলট উচ্চ বিদ্যালয়, বদলগাছী, নওগাঁ। সরকারি কলেজ, গাউসুল আজম কামিল মাদ্রাসা, নওগাঁ। কড়িদহ টেকনিক্যাল অ্যান্ড বিসনেস ম্যানেজমেন্ট কলেজ, পোরশা।
শ্রেষ্ঠ প্রতিষ্ঠান প্রধান নির্বাচিত হয়েছেন (স্কুল) মো. আব্দুল গফুর প্রাং, প্রধান শিক্ষক, মধুপুর উচ্চ বিদ্যালয়, রাণীনগর। শ্রেষ্ঠ অধ্যক্ষ নির্বাচিত হয়েছেন প্রফেসর মো. নাজমুল হাসান, নওগাঁ সরকারি ডিগ্রি কলেজ। শ্রেষ্ঠ অধ্যক্ষ (মাদ্রাসা) নির্বাচিত হয়েছেন ড. মো. মামুনুর রশীদ, কালিকাপুর আলিম মাদ্রাসা, মান্দা। শ্রেষ্ঠ অধ্যক্ষ (কারিগরি) নির্বাচিত হয়েছেন মো. বান্দাইখাড়া টেকনিক্যাল এন্ড বিসনেস ম্যানেজমেন্ট কলেজ, মান্দা এবং শ্রেষ্ঠ শিক্ষক নির্বাচিত হয়েছেন নওগাঁ কৃষ্ণধন কেডি সরকারি উচ্চ বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক মো. হাসমত আলী। নওগাঁ সরকারি কলেজ শিক্ষক ড. মো. আনোয়ার হোসেন, খঞ্জনপুর তালকুড়া লতিফিয়া আলিম মাদ্রাসা, সাপাহার এর শিক্ষক মো. আব্দুল হালিম, ইনডেক্স টেকনিক্যাল এন্ড বিসনেস ম্যানেজমেন্ট কলেজ, মান্দার শিক্ষক মো. জাহাঙ্গীর আলম।
অনুভূতি প্রকাশ করে শ্রেষ্ঠ মাদ্রাসা শিক্ষক মো. আব্দুল হালিম বলেন, আল্লাহর রহমতে আমি জেলার শ্রেষ্ঠ শিক্ষক নির্বাচিত হয়েছি। আমি অতিতের মতো ভবিষ্যতেও আমার সর্বোচ্চ প্রচেষ্টা দিয়ে শিক্ষার্থীদের মাঝে জ্ঞান বিতরণ করে যাবো।
এ বিষয়ে অনুভূতি প্রকাশ করে জেলার শ্রেষ্ঠ শিক্ষক মো. আব্দুল গফুর প্রাং বলেন, জেলার শ্রেষ্ঠ প্রধান শিক্ষক হিসাবে নির্বাচিত হওয়ায় মহান আল্লাহর দরবারে লাখো কোটি শুকরিয়া আদায় করছি। আমার দায়িত্ব সঠিকভাবে পালনের জন্য এ পর্যন্ত উপজেলায় মোট সাতবার শ্রেষ্ঠ প্রধান শিক্ষক নির্বাচিত হয়েছি এবং এই বারসহ জেলায় তিনবার শ্রেষ্ঠ প্রধান শিক্ষক হিসাবে নির্বাচিত হলাম। তাই আমি শিক্ষা কর্মকর্তাগণসহ আমার সহকর্মী ও দেশবাসীর নিকট কৃতজ্ঞতা জানাচ্ছি। আমি শিক্ষা সংশ্লিষ্ট সকলেরসহ দেশবাসীর কাছে দোয়া চাই ভবিষ্যতেও যেন আমার দায়িত্ব সঠিকভাবে পালনের মাধ্যমে দেশের কল্যাণে নিজেকে নিয়োজিত রাখতে পারি।