০৮:১৩ অপরাহ্ন, রবিবার, ১৪ এপ্রিল ২০২৪, ১ বৈশাখ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

নর্থ সাইথ ইউনিভার্সিটির ইতিহাস ও দর্শন বিভাগে ‘মুক্তিযুদ্ধ’ বিষয়ক সেমিনার

 

নর্থ সাউথ ইউনিভার্সিটির ইতিহাস ও দর্শন বিভাগের উদ্যোগে ‘বাংলাদেশের মুক্তিযুদ্ধ ১৯৭১: আমাদের সাফল্যের মূল সামরিক নির্ধারক’ শীর্ষক সেমিনার অনুষ্ঠিত হয়েছে।

 

অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন দ্য ডেইলি স্টারের সম্পাদক ও প্রকাশক মাহফুজ আনাম। আলোচক হিসেবে উপস্থিত ছিলেন সাবেক রাষ্ট্রদূত মেজর জেনারেল (অব.) জামিল ডি. আহসান, বীর প্রতীক এবং মূল প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন নর্থ সাউথ বিশ্ববিদ্যালয়ের ইতিহাস ও দর্শন বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক মেজর জেনারেল (অব.) ড. সরোয়ার হোসেন। অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন নর্থ সাউথ বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক আতিকুল ইসলাম। অনুষ্ঠানে আরও উপস্থিত ছিলেন নর্থ সাউথ বিশ্ববিদ্যালয়ের কোষাধ্যক্ষ ও উপ-উপাচার্য (ভারপ্রাপ্ত) অধ্যাপক আব্দুর রব খান।

 

 

অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্য রাখেন অধ্যাপক ইতিহাস ও দর্শন বিভাগের চেয়ারম্যান অধ্যাপক মাহবুবুর রহমান।

 

 

ড. সরোয়ার হোসেন মুক্তিযুদ্ধের সময় সামরিক বাহিনীর গঠন ও কার্যকারিতা নিয়ে আলোচনা করেন। সামরিক কৌশলের গুরুত্ব তুলে ধরে ড. হোসেন বলেন, “১৯৭১ সালের যুদ্ধে আমাদের সশস্ত্র বাহিনীর কৌশলগত উজ্জ্বলতা ও দৃঢ়তা ফুটে উঠেছে। পরিকল্পনা ও সাহসিকতার মাধ্যমে তারা শুধু আমাদের স্বাধীনতাই নিশ্চিত করেন নি, আগামী প্রজন্মের জন্য একটি স্থায়ী দৃষ্টান্ত রেখে গেছেন।”

 

 

মেজর জেনারেল (অব.) জামিল ডি. আহসান, বীর প্রতীক বলেন, “আমাদের মুক্তিযুদ্ধের ইতিহাসের মতো হাতে গোনা মাত্র কয়েকটি দেশের এমন গৌরবোজ্জ্বল ইতিহাস আছে। এ দেশের ইতিহাসের রাজনৈতিক দিকটা অধিকাংশ মানুষই জানে। কিন্তু এই বইটিতে যুদ্ধের সামরিক-রাজনৈতিক দিক উন্মোচন করে।”

 

 

মাহফুজ আনাম বলেন, “মুক্তিযুদ্ধ নিয়ে যেসব বই আমরা পড়েছি তার অধিকাংশই আত্মজীবনীমূলক। যাইহোক, এই তথ্যবহুল বইটি দীর্ঘদিন ধরে গবেষণা করা হয়েছে এবং কাঠামোগত উপায়ে সামরিক দিক থেকে যুদ্ধের ইতিহাস উপস্থাপন করা হয়েছে। যারা ইতিহাস জানতে চান বা গবেষণা করতে চান তাদের জন্য এই বইটি খুবই গুরুত্বপূর্ণ।”

 

অধ্যাপক আতিকুল ইসলাম বলেন, “এটি অত্যন্ত নিখুঁতভাবে লেখা একটি বই। এই বইয়ের প্রকাশের মান এবং গবেষণার গভীরতা অত্যন্ত আকর্ষনীয়।”

 

অনুষ্ঠানের শেষ পর্যায়ে মেজর জেনারেল (অব.) ড. সরোয়ার হোসেনের লেখা ‘১৯৭১: প্রতিরোধ সংগ্রাম বিজয়’ বইটির বাংলা সংস্করণের মোড়ক উন্মোচন করা হয়।

জনপ্রিয় সংবাদ

নর্থ সাইথ ইউনিভার্সিটির ইতিহাস ও দর্শন বিভাগে ‘মুক্তিযুদ্ধ’ বিষয়ক সেমিনার

আপডেট সময় : ০৫:৪৬:০০ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ২৮ মার্চ ২০২৪

 

নর্থ সাউথ ইউনিভার্সিটির ইতিহাস ও দর্শন বিভাগের উদ্যোগে ‘বাংলাদেশের মুক্তিযুদ্ধ ১৯৭১: আমাদের সাফল্যের মূল সামরিক নির্ধারক’ শীর্ষক সেমিনার অনুষ্ঠিত হয়েছে।

 

অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন দ্য ডেইলি স্টারের সম্পাদক ও প্রকাশক মাহফুজ আনাম। আলোচক হিসেবে উপস্থিত ছিলেন সাবেক রাষ্ট্রদূত মেজর জেনারেল (অব.) জামিল ডি. আহসান, বীর প্রতীক এবং মূল প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন নর্থ সাউথ বিশ্ববিদ্যালয়ের ইতিহাস ও দর্শন বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক মেজর জেনারেল (অব.) ড. সরোয়ার হোসেন। অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন নর্থ সাউথ বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক আতিকুল ইসলাম। অনুষ্ঠানে আরও উপস্থিত ছিলেন নর্থ সাউথ বিশ্ববিদ্যালয়ের কোষাধ্যক্ষ ও উপ-উপাচার্য (ভারপ্রাপ্ত) অধ্যাপক আব্দুর রব খান।

 

 

অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্য রাখেন অধ্যাপক ইতিহাস ও দর্শন বিভাগের চেয়ারম্যান অধ্যাপক মাহবুবুর রহমান।

 

 

ড. সরোয়ার হোসেন মুক্তিযুদ্ধের সময় সামরিক বাহিনীর গঠন ও কার্যকারিতা নিয়ে আলোচনা করেন। সামরিক কৌশলের গুরুত্ব তুলে ধরে ড. হোসেন বলেন, “১৯৭১ সালের যুদ্ধে আমাদের সশস্ত্র বাহিনীর কৌশলগত উজ্জ্বলতা ও দৃঢ়তা ফুটে উঠেছে। পরিকল্পনা ও সাহসিকতার মাধ্যমে তারা শুধু আমাদের স্বাধীনতাই নিশ্চিত করেন নি, আগামী প্রজন্মের জন্য একটি স্থায়ী দৃষ্টান্ত রেখে গেছেন।”

 

 

মেজর জেনারেল (অব.) জামিল ডি. আহসান, বীর প্রতীক বলেন, “আমাদের মুক্তিযুদ্ধের ইতিহাসের মতো হাতে গোনা মাত্র কয়েকটি দেশের এমন গৌরবোজ্জ্বল ইতিহাস আছে। এ দেশের ইতিহাসের রাজনৈতিক দিকটা অধিকাংশ মানুষই জানে। কিন্তু এই বইটিতে যুদ্ধের সামরিক-রাজনৈতিক দিক উন্মোচন করে।”

 

 

মাহফুজ আনাম বলেন, “মুক্তিযুদ্ধ নিয়ে যেসব বই আমরা পড়েছি তার অধিকাংশই আত্মজীবনীমূলক। যাইহোক, এই তথ্যবহুল বইটি দীর্ঘদিন ধরে গবেষণা করা হয়েছে এবং কাঠামোগত উপায়ে সামরিক দিক থেকে যুদ্ধের ইতিহাস উপস্থাপন করা হয়েছে। যারা ইতিহাস জানতে চান বা গবেষণা করতে চান তাদের জন্য এই বইটি খুবই গুরুত্বপূর্ণ।”

 

অধ্যাপক আতিকুল ইসলাম বলেন, “এটি অত্যন্ত নিখুঁতভাবে লেখা একটি বই। এই বইয়ের প্রকাশের মান এবং গবেষণার গভীরতা অত্যন্ত আকর্ষনীয়।”

 

অনুষ্ঠানের শেষ পর্যায়ে মেজর জেনারেল (অব.) ড. সরোয়ার হোসেনের লেখা ‘১৯৭১: প্রতিরোধ সংগ্রাম বিজয়’ বইটির বাংলা সংস্করণের মোড়ক উন্মোচন করা হয়।