০৯:২৯ অপরাহ্ন, রবিবার, ০৩ মার্চ ২০২৪, ২০ ফাল্গুন ১৪৩০ বঙ্গাব্দ
আফ্রিকান কাপ অব নেশন্স

দক্ষিণ আফ্রিকার কাছে হারলো ফুটবল বিশ্বকাপের সেমিফাইনালিস্টরা

আফ্রিকান নেশনস কাপ থেকে আগেই বিদায় নিয়েছেন মোহাম্মদ সালাহ ও সাদিও মানে। এবার আরও একটি অঘটনের স্বীকার হয়ে আসর থেকে বিদায় নিলেন আশরাফ হাকিমিও।

গতকাল মঙ্গলবার রাতে দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে ২-০ গোলে হেরে আফ্রিকান নেশনস কাপের আসর থেকে ছিটকে গেছে হাকিমির মরক্কো। অপরদিকে শেষ ষোলো পর্বের খেলায় জিতে কোয়ার্টার ফাইনালে উঠে গেছে দক্ষিণ আফ্রিকা।

কাতার বিশ্বকাপে চমক দেখিয়ে ফুটবলবিশ্বের নজরে আসে মরক্কো। আফ্রিকার প্রথম দেশ হিসেবে বিশ্বকাপের সেমিফাইনালে গিয়েছিল দেশটি। অথচ গতকাল আইভরি কোস্টের সান পেদ্রোর লরেট পোকো স্টেডিয়ামে অঘটনের ম্যাচে হেরে বিদায় নিতে হয়েছে আসরের অন্যতম ফেবারিট দল মরক্কোকে।

ম্যাচের ৫৭ মিনিটে প্রথম গোল হজম করে ১-০ ব্যবধানে পিছিয়ে যায় মরক্কো। তবে ৮৩ মিনিটে সমতায় ফেরার দারুণ সুযোগ পায় তারা। ডি-বক্সের ভেতরে আফ্রিকার খেলোয়াড় মাথবি এমবালার হ্যান্ডবল হলে পেনাল্টি পায় মরক্কো। তবে দারুণ সুযোগটি মিস করে বসেন মরক্কোর ডিফেন্ডার আশরাফ হাকিমি। তার শট করা বলটি ক্রসবার থেকে ফিরে আসে। এতে হতাশায় ডুবেন মরক্কোর সমর্থকরা।

ম্যাচের অতিরিক্ত সময়ের চতুর্থ মিনিটে সফিয়ান আমরাবাত লালকার্ড দেখলে ১০ জনের দলে পরিণত হয় মরক্কো। ফলে গোল করা সহজ হয়ে যায় দক্ষিণ আফ্রিকার জন্য। সে সুযোগ কাজে লাগাতে দেরিও করেনি তারা। ১ মিনিট পরই গোল করে ব্যবধান ২-০ করে নিজেদের জয় নিশ্চিত করে দক্ষিণ আফ্রিকা।

ম্যাচের পর মরক্কোর কোচ ওয়ালিদ রেগরাগুই আক্ষেপের সুরে বলেন, ‘আমরা হয়তো প্রথমার্ধে খেলাটি নিষ্পত্তি করতে পারতাম। এই পর্যায়ে (আসরের) আপনি যে কোনো সুযোগ নষ্ট করার জন্য অবিলম্বে শাস্তি পেতে পারেন। পেনাল্টি (মিস) আমাদের অনেক ক্ষতি করেছে। আমাদের যা কিছু করার দরকার ছিল, আমরা সেগুলো করতে পারিনি। আমিই এর সম্পূর্ণ দায় নিচ্ছি।’

 

 

 

 

স/ম

কাপ্তাইয়ে সড়ক দূর্ঘটনায় এক শিক্ষার্থীর মৃত্যু : আহত ২ জন

আফ্রিকান কাপ অব নেশন্স

দক্ষিণ আফ্রিকার কাছে হারলো ফুটবল বিশ্বকাপের সেমিফাইনালিস্টরা

আপডেট সময় : ০১:০৮:১৫ অপরাহ্ন, বুধবার, ৩১ জানুয়ারী ২০২৪

আফ্রিকান নেশনস কাপ থেকে আগেই বিদায় নিয়েছেন মোহাম্মদ সালাহ ও সাদিও মানে। এবার আরও একটি অঘটনের স্বীকার হয়ে আসর থেকে বিদায় নিলেন আশরাফ হাকিমিও।

গতকাল মঙ্গলবার রাতে দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে ২-০ গোলে হেরে আফ্রিকান নেশনস কাপের আসর থেকে ছিটকে গেছে হাকিমির মরক্কো। অপরদিকে শেষ ষোলো পর্বের খেলায় জিতে কোয়ার্টার ফাইনালে উঠে গেছে দক্ষিণ আফ্রিকা।

কাতার বিশ্বকাপে চমক দেখিয়ে ফুটবলবিশ্বের নজরে আসে মরক্কো। আফ্রিকার প্রথম দেশ হিসেবে বিশ্বকাপের সেমিফাইনালে গিয়েছিল দেশটি। অথচ গতকাল আইভরি কোস্টের সান পেদ্রোর লরেট পোকো স্টেডিয়ামে অঘটনের ম্যাচে হেরে বিদায় নিতে হয়েছে আসরের অন্যতম ফেবারিট দল মরক্কোকে।

ম্যাচের ৫৭ মিনিটে প্রথম গোল হজম করে ১-০ ব্যবধানে পিছিয়ে যায় মরক্কো। তবে ৮৩ মিনিটে সমতায় ফেরার দারুণ সুযোগ পায় তারা। ডি-বক্সের ভেতরে আফ্রিকার খেলোয়াড় মাথবি এমবালার হ্যান্ডবল হলে পেনাল্টি পায় মরক্কো। তবে দারুণ সুযোগটি মিস করে বসেন মরক্কোর ডিফেন্ডার আশরাফ হাকিমি। তার শট করা বলটি ক্রসবার থেকে ফিরে আসে। এতে হতাশায় ডুবেন মরক্কোর সমর্থকরা।

ম্যাচের অতিরিক্ত সময়ের চতুর্থ মিনিটে সফিয়ান আমরাবাত লালকার্ড দেখলে ১০ জনের দলে পরিণত হয় মরক্কো। ফলে গোল করা সহজ হয়ে যায় দক্ষিণ আফ্রিকার জন্য। সে সুযোগ কাজে লাগাতে দেরিও করেনি তারা। ১ মিনিট পরই গোল করে ব্যবধান ২-০ করে নিজেদের জয় নিশ্চিত করে দক্ষিণ আফ্রিকা।

ম্যাচের পর মরক্কোর কোচ ওয়ালিদ রেগরাগুই আক্ষেপের সুরে বলেন, ‘আমরা হয়তো প্রথমার্ধে খেলাটি নিষ্পত্তি করতে পারতাম। এই পর্যায়ে (আসরের) আপনি যে কোনো সুযোগ নষ্ট করার জন্য অবিলম্বে শাস্তি পেতে পারেন। পেনাল্টি (মিস) আমাদের অনেক ক্ষতি করেছে। আমাদের যা কিছু করার দরকার ছিল, আমরা সেগুলো করতে পারিনি। আমিই এর সম্পূর্ণ দায় নিচ্ছি।’

 

 

 

 

স/ম