০৬:৫০ পূর্বাহ্ন, শনিবার, ২০ এপ্রিল ২০২৪, ৭ বৈশাখ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

ঈদ বোনাস দেওয়ার আগের দিন বন্ধ কারখানা, শ্রমিকদের বিক্ষোভ

 

ঢাকার ধামরাইয়ে শ্রমিকদের ঈদ বোনাস দেওয়ার নির্ধারিত তারিখের একদিন আগে একটি কারখানা বন্ধ ঘোষণা করেছে কর্তৃপক্ষ। একদিনের জন্য গতকাল বুধবার কারখানাটি বন্ধ ঘোষণা করা হয়।

 

তবে কারখানা খুলে দেওয়ার দাবিতে সকাল থেকে বিক্ষোভ কর্মসূচি পালন করেন শ্রমিকরা। পরে তাদের বুঝিয়ে কারখানার সামনে থেকে সরিয়ে দেয় পুলিশ। সকাল ৯টার দিকে ধামরাইয়ের সোমভাগ ইউনিয়নের কাউন্সিল বাজার সংলগ্ন ওডিসি ক্রাফট প্রাইভেট লিমিটেড কারখানায় এ ঘটনা ঘটে।
শ্রমিকরা বলেন, গতকালও আমরা ঠিকঠাক কাজ করেছি। আমরা যতদূর জানি গতকাল অফিসের স্টাফদের বেতন দেওয়ার কথা ছিল। কিন্তু দেওয়া হয়নি। পরে স্টাফরা বেতনের দাবিতে অফিসের ভেতরে শান্তিপূর্ণ কর্মবিরতি পালন করেন। এরপর সবাই যার যার মতো বাড়ি চলে যান। আজ (বুধবার) সকালে কাজের জন্য কারখানায় গেলে শ্রমিকদের ভেতরে প্রবেশ করতে দেওয়া হয়নি।

 

তারা আরও বলেন, শ্রমিকদের জানানো হয় কারখানা বন্ধ, আগামীকাল (বৃহস্পতিবার) থেকে আবার কারখানা খোলা থাকবে। আগামীকাল শ্রমিকদের ঈদ বোনাস দেওয়ার কথা রয়েছে। কিন্তু ঈদ বোনাস দেওয়ার তারিখের আগের দিন কারখানা বন্ধ করে দেওয়া হলো। এ কথা গতকাল শ্রমিকদের জানানো হয়নি। কী কারণে বন্ধ হলো সেটাও শ্রমিকরা জানেন না। কারণ জানতে জোরপূর্বক কারখানার ভেতরে প্রবেশের চেষ্টা করেন শ্রমিকরা। এসময় বাধা দেওয়া হলে তার সামনেই বিক্ষোভ করেন শ্রমিকরা।

 

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক কারখানার একজন সুপারভাইজার গণমাধ্যমকে বলেন, গতকাল স্টাফদের বেতন দেওয়ার কথা ছিল। কিন্তু মালিকপক্ষ বেতন দেননি। যে কারণে স্টাফরা গতকাল কর্মবিরতি পালন করেছেন। আজ শ্রমিকরা কাজে গেলে কারখানা বন্ধ বলে শ্রমিকদের ভেতরে প্রবেশ করতে দেওয়া হয়নি। শ্রমিকরা জোরপূর্বক ঢুকতে গেলে তাদের ওপর হামলার ঘটনা ঘটে। এতে দুই থেকে তিনজন শ্রমিক আহত হওয়ার খবর আমরা পেয়েছি।
এ ব্যাপারে ওডিসি ক্রাফট লিমিটেডের ম্যানেজার (এইচআর ও অ্যাডমিন) নুরুল ইসলামের মোবাইল ফোনে কল দিয়ে জানতে চাইলে তিনি প্রথমবার কল কেটে দেন। পরে কল রিসিভ করেননি।

 

আশুলিয়া শিল্প পুলিশ-১ এর সহকারী সুপার রাশেদুল বারি গণমাধ্যমকে বলেন, শ্রমিকদের বেতন দেওয়ার কথা ছিল, কিন্তু বেতন দিতে পারেনি কর্তৃপক্ষ। এজন্য মালিকপক্ষ আজকের জন্য কারখানা বন্ধ রেখেছে। কিন্তু শ্রমিকরা কারখানায় এসে হামলা করে। আমরা শ্রমিকদের বুঝিয়ে সরিয়ে দিয়েছি। বর্তমানে কারখানার সামনে পুলিশ মোতায়েন রয়েছে। আমরা আইন-শৃঙ্খলা বজায় রাখতে সচেষ্ট আছি।

জনপ্রিয় সংবাদ

ঈদ বোনাস দেওয়ার আগের দিন বন্ধ কারখানা, শ্রমিকদের বিক্ষোভ

আপডেট সময় : ০৬:০২:১৪ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ৪ এপ্রিল ২০২৪

 

ঢাকার ধামরাইয়ে শ্রমিকদের ঈদ বোনাস দেওয়ার নির্ধারিত তারিখের একদিন আগে একটি কারখানা বন্ধ ঘোষণা করেছে কর্তৃপক্ষ। একদিনের জন্য গতকাল বুধবার কারখানাটি বন্ধ ঘোষণা করা হয়।

 

তবে কারখানা খুলে দেওয়ার দাবিতে সকাল থেকে বিক্ষোভ কর্মসূচি পালন করেন শ্রমিকরা। পরে তাদের বুঝিয়ে কারখানার সামনে থেকে সরিয়ে দেয় পুলিশ। সকাল ৯টার দিকে ধামরাইয়ের সোমভাগ ইউনিয়নের কাউন্সিল বাজার সংলগ্ন ওডিসি ক্রাফট প্রাইভেট লিমিটেড কারখানায় এ ঘটনা ঘটে।
শ্রমিকরা বলেন, গতকালও আমরা ঠিকঠাক কাজ করেছি। আমরা যতদূর জানি গতকাল অফিসের স্টাফদের বেতন দেওয়ার কথা ছিল। কিন্তু দেওয়া হয়নি। পরে স্টাফরা বেতনের দাবিতে অফিসের ভেতরে শান্তিপূর্ণ কর্মবিরতি পালন করেন। এরপর সবাই যার যার মতো বাড়ি চলে যান। আজ (বুধবার) সকালে কাজের জন্য কারখানায় গেলে শ্রমিকদের ভেতরে প্রবেশ করতে দেওয়া হয়নি।

 

তারা আরও বলেন, শ্রমিকদের জানানো হয় কারখানা বন্ধ, আগামীকাল (বৃহস্পতিবার) থেকে আবার কারখানা খোলা থাকবে। আগামীকাল শ্রমিকদের ঈদ বোনাস দেওয়ার কথা রয়েছে। কিন্তু ঈদ বোনাস দেওয়ার তারিখের আগের দিন কারখানা বন্ধ করে দেওয়া হলো। এ কথা গতকাল শ্রমিকদের জানানো হয়নি। কী কারণে বন্ধ হলো সেটাও শ্রমিকরা জানেন না। কারণ জানতে জোরপূর্বক কারখানার ভেতরে প্রবেশের চেষ্টা করেন শ্রমিকরা। এসময় বাধা দেওয়া হলে তার সামনেই বিক্ষোভ করেন শ্রমিকরা।

 

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক কারখানার একজন সুপারভাইজার গণমাধ্যমকে বলেন, গতকাল স্টাফদের বেতন দেওয়ার কথা ছিল। কিন্তু মালিকপক্ষ বেতন দেননি। যে কারণে স্টাফরা গতকাল কর্মবিরতি পালন করেছেন। আজ শ্রমিকরা কাজে গেলে কারখানা বন্ধ বলে শ্রমিকদের ভেতরে প্রবেশ করতে দেওয়া হয়নি। শ্রমিকরা জোরপূর্বক ঢুকতে গেলে তাদের ওপর হামলার ঘটনা ঘটে। এতে দুই থেকে তিনজন শ্রমিক আহত হওয়ার খবর আমরা পেয়েছি।
এ ব্যাপারে ওডিসি ক্রাফট লিমিটেডের ম্যানেজার (এইচআর ও অ্যাডমিন) নুরুল ইসলামের মোবাইল ফোনে কল দিয়ে জানতে চাইলে তিনি প্রথমবার কল কেটে দেন। পরে কল রিসিভ করেননি।

 

আশুলিয়া শিল্প পুলিশ-১ এর সহকারী সুপার রাশেদুল বারি গণমাধ্যমকে বলেন, শ্রমিকদের বেতন দেওয়ার কথা ছিল, কিন্তু বেতন দিতে পারেনি কর্তৃপক্ষ। এজন্য মালিকপক্ষ আজকের জন্য কারখানা বন্ধ রেখেছে। কিন্তু শ্রমিকরা কারখানায় এসে হামলা করে। আমরা শ্রমিকদের বুঝিয়ে সরিয়ে দিয়েছি। বর্তমানে কারখানার সামনে পুলিশ মোতায়েন রয়েছে। আমরা আইন-শৃঙ্খলা বজায় রাখতে সচেষ্ট আছি।