১১:২৪ অপরাহ্ন, বুধবার, ১২ জুন ২০২৪, ২৯ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
পরবর্তী সাক্ষ্যগ্রহণ ২৩ জুলাই

খালেদার বিরুদ্ধে নাইকো মামলার

 

বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়াসহ আট জনের বিরুদ্ধে নাইকো দুর্নীতি মামলার পরবর্তী সাক্ষ্য গ্রহণের জন্য আগামী ২৩ জুলাই দিন ধার্য করা হয়েছে। মঙ্গলবার (১১ জুন) কেরানীগঞ্জে ঢাকা কেন্দ্রীয় কারাগারে অবস্থিত ঢাকার নবম (অস্থায়ী) বিশেষ জজ আদালতের বিচারক শেখ হাফিজুর রহমানের আদালত এ দিন ধার্য করেন।

এদিন খালেদা জিয়ার পক্ষে তার আইনজীবী জিয়া উদ্দিন জিয়া হাজিরা দেন।

আইনজীবী জিয়া উদ্দিন জিয়া জানান, মঙ্গলবার এ মামলার আংশিক সাক্ষ্যগ্রহণ করা হয়। এ দিন সাক্ষী আব্দুল বাকীর আংশিক জবানবন্দী গ্রহণ করা হয়। আদালত বাকীর পরবর্তী সাক্ষ্য গ্রহণের জন্য আগামী ২৩ জুলাই দিন ধার্য করেন।

এ মামলার অন্য আসামিরা হলেন- তৎকালীন মুখ্য সচিব কামাল উদ্দীন সিদ্দিকী, জ্বালানি ও খনিজ সম্পদ মন্ত্রণালয়ের ভারপ্রাপ্ত সচিব খন্দকার শহীদুল ইসলাম, সাবেক সিনিয়র সহকারী সচিব সি এম ইউসুফ হোসাইন, বাপেক্সের সাবেক মহাব্যবস্থাপক মীর ময়নুল হক, ব্যবসায়ী গিয়াস উদ্দিন আল মামুন, সেলিম ভূঁইয়া ও নাইকোর দক্ষিণ এশিয়া বিষয়ক ভাইস প্রেসিডেন্ট কাশেম শরীফ।

অপরদিকে আসামিদের মধ্যে সাবেক আইনমন্ত্রী ব্যারিস্টার মওদুদ আহমদ, সাবেক জ্বালানি প্রতিমন্ত্রী এ কে এম মোশাররফ হোসেন ও বাপেক্সের সাবেক সচিব মো. শফিউর রহমান মৃত্যুবরণ করায় তাদের মামলা থেকে অব্যাহতি দেওয়া হয়।

২০০৭ সালে খালেদা জিয়ার বিরুদ্ধে নাইকো দুর্নীতি মামলাটি করে দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক)। রাজধানীর তেজগাঁও থানায় মামলাটি করেছিলেন দুদকের সহকারী পরিচালক মুহাম্মদ মাহবুবুল আলম।

জনপ্রিয় সংবাদ

টিউশনের নামে প্রতারণার ফাঁদ

পরবর্তী সাক্ষ্যগ্রহণ ২৩ জুলাই

খালেদার বিরুদ্ধে নাইকো মামলার

আপডেট সময় : ০৯:৩২:১৯ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ১১ জুন ২০২৪

 

বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়াসহ আট জনের বিরুদ্ধে নাইকো দুর্নীতি মামলার পরবর্তী সাক্ষ্য গ্রহণের জন্য আগামী ২৩ জুলাই দিন ধার্য করা হয়েছে। মঙ্গলবার (১১ জুন) কেরানীগঞ্জে ঢাকা কেন্দ্রীয় কারাগারে অবস্থিত ঢাকার নবম (অস্থায়ী) বিশেষ জজ আদালতের বিচারক শেখ হাফিজুর রহমানের আদালত এ দিন ধার্য করেন।

এদিন খালেদা জিয়ার পক্ষে তার আইনজীবী জিয়া উদ্দিন জিয়া হাজিরা দেন।

আইনজীবী জিয়া উদ্দিন জিয়া জানান, মঙ্গলবার এ মামলার আংশিক সাক্ষ্যগ্রহণ করা হয়। এ দিন সাক্ষী আব্দুল বাকীর আংশিক জবানবন্দী গ্রহণ করা হয়। আদালত বাকীর পরবর্তী সাক্ষ্য গ্রহণের জন্য আগামী ২৩ জুলাই দিন ধার্য করেন।

এ মামলার অন্য আসামিরা হলেন- তৎকালীন মুখ্য সচিব কামাল উদ্দীন সিদ্দিকী, জ্বালানি ও খনিজ সম্পদ মন্ত্রণালয়ের ভারপ্রাপ্ত সচিব খন্দকার শহীদুল ইসলাম, সাবেক সিনিয়র সহকারী সচিব সি এম ইউসুফ হোসাইন, বাপেক্সের সাবেক মহাব্যবস্থাপক মীর ময়নুল হক, ব্যবসায়ী গিয়াস উদ্দিন আল মামুন, সেলিম ভূঁইয়া ও নাইকোর দক্ষিণ এশিয়া বিষয়ক ভাইস প্রেসিডেন্ট কাশেম শরীফ।

অপরদিকে আসামিদের মধ্যে সাবেক আইনমন্ত্রী ব্যারিস্টার মওদুদ আহমদ, সাবেক জ্বালানি প্রতিমন্ত্রী এ কে এম মোশাররফ হোসেন ও বাপেক্সের সাবেক সচিব মো. শফিউর রহমান মৃত্যুবরণ করায় তাদের মামলা থেকে অব্যাহতি দেওয়া হয়।

২০০৭ সালে খালেদা জিয়ার বিরুদ্ধে নাইকো দুর্নীতি মামলাটি করে দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক)। রাজধানীর তেজগাঁও থানায় মামলাটি করেছিলেন দুদকের সহকারী পরিচালক মুহাম্মদ মাহবুবুল আলম।