১২:১৬ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ২৯ ফেব্রুয়ারী ২০২৪, ১৭ ফাল্গুন ১৪৩০ বঙ্গাব্দ

নারী শিক্ষার্থীকে উত্যক্তকারী শফিকের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিবে ববি প্রশাসন

বরিশাল বিশ্ববিদ্যালয়ের নারী শিক্ষার্থীকে উত্যক্তে অভিযুক্ত সাবেক শিক্ষার্থী শফিক মুন্সীর বিরুদ্ধে আইনগত  ব্যবস্থা নিবে বরিশাল বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন। এমনটাই জানিয়েছেন বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য (রু.দা) অধ্যাপক ড. মো. বদরুজ্জামান ভূঁইয়া।

মিথ্যা সংবাদ প্রচার ও ভয়ভীতি দেখিয়ে এক ছাত্রীর সঙ্গে সম্পর্ক স্থাপনের চেষ্টার অভিযোগের ভিত্তিতে বরিশাল বিশ্ববিদ্যালয়ের (ববি) সাবেক শিক্ষার্থী শফিকুর রহমান ওরফে শফিক মুন্সির বিরুদ্ধে গত ৬ ফেব্রুয়ারী তদন্ত কমিটি গঠন করেছিল বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন৷ এতে বিভাগীয় ও প্রক্টরিয়াল বডির দুটি ভিন্ন ভিন্ন তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়।

বিভাগীয় তদন্ত কমিটি রিপোর্ট ও  প্রক্টরিয়াল বডির সভায় গঠিত তদন্ত কমিটির রিপোর্ট এর মাধ্যমে সমন্বিত ফাইনাল রিপোর্ট তদন্ত কমিটি গঠন হতে ১০ কার্য দিবসের মধ্যে কর্তৃপক্ষের নিকট হস্তান্তরের জন্য বলা হয়েছিল৷

এই পরিপ্রেক্ষিতে, গত সোমবার (১২ ফেব্রুয়ারি) তদন্ত প্রতিবেদন জমা দেওয়ার বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন প্রক্টরিয়াল বডির তদন্ত কমিটির আহ্বায়ক বিশ্ববিদ্যালয়ের সহকারী প্রক্টর মাহফুজ আলম।

বিষয়টি নিয়ে প্রক্টর ড. আব্দুল কাইউম বলেন, তদন্ত প্রতিবেদন নির্ধারিত সময়ের আগেই জমা দিয়েছে তদন্ত কমিটি ৷ পরবর্তী করণীয় প্রতিবেদন কর্তৃপক্ষের সাথে বসে আলোচনা করে ঠিক করা হবে৷

বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য (রু. দা) অধ্যাপক ড. মো. বদরুজ্জামান ভূঁইয়া সবুজ বাংলাকে জানান, আমরা ভুক্তভোগী শিক্ষার্থীদের পাশে আছি, বিশ্ববিদ্যালয়ের পুরো পরিবার আমরা তার পাশে পাশে আছি ৷ শফিক মুন্সি আমাদের বর্তমান ছাত্র নয় ৷ সে আমাদের সাবেক শিক্ষার্থী ৷ তার সাথে বিশ্ববিদ্যালয়ের কোন সম্পর্ক নেই ৷ তদন্ত রিপোর্টে সুপারিশ করা হয়েছে তার বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে এবং বিষয়টি অতিমাত্রায় তদন্তের স্বার্থে এ বিষয়ে আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর সাথে যোগাযোগ করবো ৷

তিনি আরো বলেন, সাবেক শিক্ষার্থীরা হলে থাকতে পারবে না ৷ এজন্য  ইতিমধ্যে নোটিশ আকারে ও পত্রপত্রিকায় বিষয়টি তুলে ধরা হয়েছে ৷ এই শিক্ষার্থী যেন ক্যাম্পাসে এবং হলে প্রবেশ করতে না পারে তার জন্য আমরা পদক্ষেপ নিয়ে নিয়েছি ৷

উল্লেখ্য, গত ২৩ জানুয়ারি (মঙ্গলবার) ভুক্তভোগী শিক্ষার্থী সৈয়দা নাবিলা হাসান (অর্থনীতি- ২০১৮-১৯ শিক্ষাবর্ষ) বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টর বরাবর অভিযুক্ত শফিক মুন্সির বিরুদ্ধে মিথ্যা সংবাদ প্রচার ও বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসনের ভয় দেখিয়ে তার সাথে সম্পর্ক স্থাপন এর জন্য চাপ দেয়াসহ নিজ নিরাপত্তা নিয়ে শঙ্কার কথা উল্লেখ করে একটি অভিযোগ দায়ের করেন।

স/মিফা

অব্যাহত অভিযানেও চলছে অবৈধ ক্লিনিক হাসপাতাল-ডায়াগনস্টিক সেন্টার

নারী শিক্ষার্থীকে উত্যক্তকারী শফিকের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিবে ববি প্রশাসন

আপডেট সময় : ০৫:৫৫:৪৬ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ১৩ ফেব্রুয়ারী ২০২৪

বরিশাল বিশ্ববিদ্যালয়ের নারী শিক্ষার্থীকে উত্যক্তে অভিযুক্ত সাবেক শিক্ষার্থী শফিক মুন্সীর বিরুদ্ধে আইনগত  ব্যবস্থা নিবে বরিশাল বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন। এমনটাই জানিয়েছেন বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য (রু.দা) অধ্যাপক ড. মো. বদরুজ্জামান ভূঁইয়া।

মিথ্যা সংবাদ প্রচার ও ভয়ভীতি দেখিয়ে এক ছাত্রীর সঙ্গে সম্পর্ক স্থাপনের চেষ্টার অভিযোগের ভিত্তিতে বরিশাল বিশ্ববিদ্যালয়ের (ববি) সাবেক শিক্ষার্থী শফিকুর রহমান ওরফে শফিক মুন্সির বিরুদ্ধে গত ৬ ফেব্রুয়ারী তদন্ত কমিটি গঠন করেছিল বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন৷ এতে বিভাগীয় ও প্রক্টরিয়াল বডির দুটি ভিন্ন ভিন্ন তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়।

বিভাগীয় তদন্ত কমিটি রিপোর্ট ও  প্রক্টরিয়াল বডির সভায় গঠিত তদন্ত কমিটির রিপোর্ট এর মাধ্যমে সমন্বিত ফাইনাল রিপোর্ট তদন্ত কমিটি গঠন হতে ১০ কার্য দিবসের মধ্যে কর্তৃপক্ষের নিকট হস্তান্তরের জন্য বলা হয়েছিল৷

এই পরিপ্রেক্ষিতে, গত সোমবার (১২ ফেব্রুয়ারি) তদন্ত প্রতিবেদন জমা দেওয়ার বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন প্রক্টরিয়াল বডির তদন্ত কমিটির আহ্বায়ক বিশ্ববিদ্যালয়ের সহকারী প্রক্টর মাহফুজ আলম।

বিষয়টি নিয়ে প্রক্টর ড. আব্দুল কাইউম বলেন, তদন্ত প্রতিবেদন নির্ধারিত সময়ের আগেই জমা দিয়েছে তদন্ত কমিটি ৷ পরবর্তী করণীয় প্রতিবেদন কর্তৃপক্ষের সাথে বসে আলোচনা করে ঠিক করা হবে৷

বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য (রু. দা) অধ্যাপক ড. মো. বদরুজ্জামান ভূঁইয়া সবুজ বাংলাকে জানান, আমরা ভুক্তভোগী শিক্ষার্থীদের পাশে আছি, বিশ্ববিদ্যালয়ের পুরো পরিবার আমরা তার পাশে পাশে আছি ৷ শফিক মুন্সি আমাদের বর্তমান ছাত্র নয় ৷ সে আমাদের সাবেক শিক্ষার্থী ৷ তার সাথে বিশ্ববিদ্যালয়ের কোন সম্পর্ক নেই ৷ তদন্ত রিপোর্টে সুপারিশ করা হয়েছে তার বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে এবং বিষয়টি অতিমাত্রায় তদন্তের স্বার্থে এ বিষয়ে আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর সাথে যোগাযোগ করবো ৷

তিনি আরো বলেন, সাবেক শিক্ষার্থীরা হলে থাকতে পারবে না ৷ এজন্য  ইতিমধ্যে নোটিশ আকারে ও পত্রপত্রিকায় বিষয়টি তুলে ধরা হয়েছে ৷ এই শিক্ষার্থী যেন ক্যাম্পাসে এবং হলে প্রবেশ করতে না পারে তার জন্য আমরা পদক্ষেপ নিয়ে নিয়েছি ৷

উল্লেখ্য, গত ২৩ জানুয়ারি (মঙ্গলবার) ভুক্তভোগী শিক্ষার্থী সৈয়দা নাবিলা হাসান (অর্থনীতি- ২০১৮-১৯ শিক্ষাবর্ষ) বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টর বরাবর অভিযুক্ত শফিক মুন্সির বিরুদ্ধে মিথ্যা সংবাদ প্রচার ও বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসনের ভয় দেখিয়ে তার সাথে সম্পর্ক স্থাপন এর জন্য চাপ দেয়াসহ নিজ নিরাপত্তা নিয়ে শঙ্কার কথা উল্লেখ করে একটি অভিযোগ দায়ের করেন।

স/মিফা