০৬:১৪ পূর্বাহ্ন, সোমবার, ২২ এপ্রিল ২০২৪, ৯ বৈশাখ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

জিএম কাদেরকে খুলনায় উকিল নোটিস

🔸১০০ কোটি টাকা মানহানি

জাতীয় পার্টির চেয়ম্যানের পদ থেকে আগেই বহিষ্কৃৃত জিএম কাদের দল থেকে কাউকে অব্যাহতির এখতিয়ার রাখেন না দাবি করে ১০০ কোটি টাকার মানহানির অভিযোগ এনে গতকাল তাকে লিগ্যাল নোটিস পাঠিয়েছেন খুলনা জেলা জাপার সদস্য সচিব এড. এসএম মাসুদুর রহমান।

লিগ্যাল নোটিসে তিনি উল্লেখ করেন, জিএম কাদের ও মুজিবুল হক চুন্নু দল থেকে বহিষ্কৃত। নতুন কাউন্সিলে কাউন্সিলরদের সর্বসম্মতিতে সাবেক রাষ্ট্রপতি ও দলের প্রতিষ্ঠাতা চেয়ারম্যান হুসেইন মুহম্মদ এরশাদের স্ত্রী বেগম রওশন এরশাদকে জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান নির্বাচিত করা হয়। এরশাদপুত্র রাহগীর আল মাহি সাদ এরশাদ দলের যুগ্ম-মহাসচিব নির্বাচিত হয়েছেন। সেটা জানার পরও জিএম কাদের দল থেকে রাহগীর আল মাহি সাদ এরশাদকে বহিষ্কার করতে পারেন না। কারণ তিনি তো দলের চেয়ারম্যানই নন। তিনি দল থেকে অব্যাহতির কথা বলে প্রেস বিজ্ঞপ্তি প্রচার করে জনসম্মুখে রাহগীর আল মাহি সাদ এরশাদের মানহানি করেছেন। এই রকম মানহানিকর সংবাদ প্রচার করে নেতার একশত কোটি টাকার মান সম্মানের ক্ষতি সাধন করেছেন। সঙ্গে সঙ্গে পেনাল কোডের ৪৯৯ ধারা ও মানহানিকর তথ্য প্রকাশ, প্রচারের জন্য ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে-২০১৮ এর ২৯ (১)(২) ধারার অপরাধ করেছেন। তাই স্বউদ্যেগে লিগ্যাল নোটিস প্রেরণ করেছেন।

নোটিসে তিনি আরও উল্লেখ করেন, দ্রুত ক্ষমা চেয়ে বিজ্ঞপ্তি প্রত্যাহার না করলে তার বিরুদ্ধে আইনি ব্যবস্থা নেওয়া হবে। এর আগে জিএম কাদের অনুসারী মাহমুদ আলম স্বাক্ষরিত এক বিজ্ঞপ্তিতে জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান গোলাম মোহাম্মদ কাদের দলীয় গঠনতন্ত্রে প্রদত্ত ক্ষমতাবলে উল্লেখ করে জাতীয় পার্টির প্রেসিডিয়াম সদস্য সাহিদুর রহমান টেপা, চেয়ারম্যানের উপদেষ্টা এম এ কুদ্দুস খান, সাংগঠনিক সম্পাদক মাহমুদা রহমান মুন্নি, প্রাদেশিকবিষয়ক সম্পাদক খোরশেদ আলম খুশু, ধর্মবিষয়ক সম্পাদক এসএম আল জুবায়ের, যুগ্ম সাংগঠনিক সম্পাদক সুজন দে, শারফুদ্দিন আহমেদ শিপু, শারমিন পারভীন লিজা, যুগ্ম প্রচার সম্পাদক শেখ মাসুক রহমান ও যুগ্ম-মহিলাবিষয়ক সম্পাদক শাহনাজ পারভীনকে দলীয় সব পদ-পদবি থেকে অব্যাহতি দিয়েছেন। দলটির পদ পদবি থেকে অব্যাহতি দেওয়ার আগেই জিএম কাদেরের নেতৃত্ব পরিহার করে জাতীয় পার্টির প্রধান পৃষ্ঠপোষক ও সাবেক বিরোধীদলীয় নেতা বেগম রওশন এরশাদের নেতৃত্বে পৃথক জাতীয় পার্টিতে যোগ দিয়েছেন এসব নেতা। কাউন্সিলে সাদ এরশাদ, সাহিদুর রহমান টেপা কো-চেয়ারম্যান নির্বাচিত হন। বাকি নেতারা বিভিন্ন পদে দায়িত্ব পালন করছেন।

জনপ্রিয় সংবাদ

জিএম কাদেরকে খুলনায় উকিল নোটিস

আপডেট সময় : ০৭:২৩:৩৩ পূর্বাহ্ন, রবিবার, ২৪ মার্চ ২০২৪

🔸১০০ কোটি টাকা মানহানি

জাতীয় পার্টির চেয়ম্যানের পদ থেকে আগেই বহিষ্কৃৃত জিএম কাদের দল থেকে কাউকে অব্যাহতির এখতিয়ার রাখেন না দাবি করে ১০০ কোটি টাকার মানহানির অভিযোগ এনে গতকাল তাকে লিগ্যাল নোটিস পাঠিয়েছেন খুলনা জেলা জাপার সদস্য সচিব এড. এসএম মাসুদুর রহমান।

লিগ্যাল নোটিসে তিনি উল্লেখ করেন, জিএম কাদের ও মুজিবুল হক চুন্নু দল থেকে বহিষ্কৃত। নতুন কাউন্সিলে কাউন্সিলরদের সর্বসম্মতিতে সাবেক রাষ্ট্রপতি ও দলের প্রতিষ্ঠাতা চেয়ারম্যান হুসেইন মুহম্মদ এরশাদের স্ত্রী বেগম রওশন এরশাদকে জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান নির্বাচিত করা হয়। এরশাদপুত্র রাহগীর আল মাহি সাদ এরশাদ দলের যুগ্ম-মহাসচিব নির্বাচিত হয়েছেন। সেটা জানার পরও জিএম কাদের দল থেকে রাহগীর আল মাহি সাদ এরশাদকে বহিষ্কার করতে পারেন না। কারণ তিনি তো দলের চেয়ারম্যানই নন। তিনি দল থেকে অব্যাহতির কথা বলে প্রেস বিজ্ঞপ্তি প্রচার করে জনসম্মুখে রাহগীর আল মাহি সাদ এরশাদের মানহানি করেছেন। এই রকম মানহানিকর সংবাদ প্রচার করে নেতার একশত কোটি টাকার মান সম্মানের ক্ষতি সাধন করেছেন। সঙ্গে সঙ্গে পেনাল কোডের ৪৯৯ ধারা ও মানহানিকর তথ্য প্রকাশ, প্রচারের জন্য ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে-২০১৮ এর ২৯ (১)(২) ধারার অপরাধ করেছেন। তাই স্বউদ্যেগে লিগ্যাল নোটিস প্রেরণ করেছেন।

নোটিসে তিনি আরও উল্লেখ করেন, দ্রুত ক্ষমা চেয়ে বিজ্ঞপ্তি প্রত্যাহার না করলে তার বিরুদ্ধে আইনি ব্যবস্থা নেওয়া হবে। এর আগে জিএম কাদের অনুসারী মাহমুদ আলম স্বাক্ষরিত এক বিজ্ঞপ্তিতে জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান গোলাম মোহাম্মদ কাদের দলীয় গঠনতন্ত্রে প্রদত্ত ক্ষমতাবলে উল্লেখ করে জাতীয় পার্টির প্রেসিডিয়াম সদস্য সাহিদুর রহমান টেপা, চেয়ারম্যানের উপদেষ্টা এম এ কুদ্দুস খান, সাংগঠনিক সম্পাদক মাহমুদা রহমান মুন্নি, প্রাদেশিকবিষয়ক সম্পাদক খোরশেদ আলম খুশু, ধর্মবিষয়ক সম্পাদক এসএম আল জুবায়ের, যুগ্ম সাংগঠনিক সম্পাদক সুজন দে, শারফুদ্দিন আহমেদ শিপু, শারমিন পারভীন লিজা, যুগ্ম প্রচার সম্পাদক শেখ মাসুক রহমান ও যুগ্ম-মহিলাবিষয়ক সম্পাদক শাহনাজ পারভীনকে দলীয় সব পদ-পদবি থেকে অব্যাহতি দিয়েছেন। দলটির পদ পদবি থেকে অব্যাহতি দেওয়ার আগেই জিএম কাদেরের নেতৃত্ব পরিহার করে জাতীয় পার্টির প্রধান পৃষ্ঠপোষক ও সাবেক বিরোধীদলীয় নেতা বেগম রওশন এরশাদের নেতৃত্বে পৃথক জাতীয় পার্টিতে যোগ দিয়েছেন এসব নেতা। কাউন্সিলে সাদ এরশাদ, সাহিদুর রহমান টেপা কো-চেয়ারম্যান নির্বাচিত হন। বাকি নেতারা বিভিন্ন পদে দায়িত্ব পালন করছেন।