০৭:৫৪ অপরাহ্ন, রবিবার, ১৪ এপ্রিল ২০২৪, ১ বৈশাখ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

চাঁদাবাজি বন্ধে লাইসেন্স দেওয়ার দাবি রিকশাচালকদের

রিকশার লাইসেন্স দেওয়ার মাধ্যমে চাঁদাবাজি ও কার্ড ব্যবসা বন্ধের দাবি জানিয়েছে রিকশা-ভ্যান-ইজিবাইক শ্রমিক ইউনিয়ন।

 

গতকাল জাতীয় প্রেস ক্লাবের সামনে রিকশা-ভ্যান-ইজিবাইক শ্রমিক ইউনিয়ন আয়োজিত এক বিক্ষোভ সমাবেশে এ দাবি জানান সংগঠনটির নেতারা।

সমাবেশে সংগঠনটির নেতারা বলেন, কার্ড ব্যবসার নামে রিকশাচালকদের কাছ থেকে সরকারের ছত্রছায়ায় চলছে অবৈধ চাঁদাবাজি। কিছুদিন আগে অবৈধ কার্ড ব্যবসায়ীদের বিরুদ্ধে আন্দোলন করায় রিকশাচালকদের ওপর সন্ত্রাসীদের দিয়ে হামলা ও প্রশাসনের মদদে মিথ্যা মামলা দিয়ে গ্রেপ্তার করে হয়রানি করা হয়। অথচ সরকার আমাদের কর্মসংস্থানের ব্যবস্থা করতে পারেনি। ব্যাটারিচালিত যানবাহনের লাইসেন্সও দিচ্ছে না। তাই কার্ড ব্যবসা ও চাঁদাবাজি বন্ধ করে রিকশার লাইসেন্স দেওয়ার দাবি জানাই।

 

তারা আরো বলেন, গরিব মানুষের পকেটে টাকা নেই, বাজার পরিস্থিতি চরম খারাপ অবস্থায় পৌঁছেছে, বাসায় খাবার নেই। অভাব-অনটনে জীবন পার করতে হচ্ছে। অন্যদিকে ধনীরা আরো ধনী হচ্ছে। সরকার সচেতনভাবে এ দুষ্টু চক্রকে লালন-পালন করছে।

 

রিকশা-ভ্যান-ইজিবাইক শ্রমিক ইউনিয়নের সহসভাপতি আব্দুল হাকিম মাইজভাণ্ডারি সভাপতিত্বে সমাবেশে উপস্থিত ছিলেন উপদেষ্টা আবদুল্লাহ আল ক্বাফী রতন, সাধারণ সম্পাদক আব্দুল কুদ্দুস, দুলাল সরদার, হাজারীবাগ থানার সভাপতি সুমন মৃধা, কামরাঙ্গীরচর থানার সাধারণ সম্পাদক আরিফুল ইসলাম আরিফ, পল্লবী থানার নেতা ইমরান হাসান শিপলু, কালাপানি অঞ্চলের নেতা সিরাজুল ইসলাম প্রমুখ।

জনপ্রিয় সংবাদ

চাঁদাবাজি বন্ধে লাইসেন্স দেওয়ার দাবি রিকশাচালকদের

আপডেট সময় : ০৭:৪৪:০৫ পূর্বাহ্ন, শনিবার, ৩০ মার্চ ২০২৪

রিকশার লাইসেন্স দেওয়ার মাধ্যমে চাঁদাবাজি ও কার্ড ব্যবসা বন্ধের দাবি জানিয়েছে রিকশা-ভ্যান-ইজিবাইক শ্রমিক ইউনিয়ন।

 

গতকাল জাতীয় প্রেস ক্লাবের সামনে রিকশা-ভ্যান-ইজিবাইক শ্রমিক ইউনিয়ন আয়োজিত এক বিক্ষোভ সমাবেশে এ দাবি জানান সংগঠনটির নেতারা।

সমাবেশে সংগঠনটির নেতারা বলেন, কার্ড ব্যবসার নামে রিকশাচালকদের কাছ থেকে সরকারের ছত্রছায়ায় চলছে অবৈধ চাঁদাবাজি। কিছুদিন আগে অবৈধ কার্ড ব্যবসায়ীদের বিরুদ্ধে আন্দোলন করায় রিকশাচালকদের ওপর সন্ত্রাসীদের দিয়ে হামলা ও প্রশাসনের মদদে মিথ্যা মামলা দিয়ে গ্রেপ্তার করে হয়রানি করা হয়। অথচ সরকার আমাদের কর্মসংস্থানের ব্যবস্থা করতে পারেনি। ব্যাটারিচালিত যানবাহনের লাইসেন্সও দিচ্ছে না। তাই কার্ড ব্যবসা ও চাঁদাবাজি বন্ধ করে রিকশার লাইসেন্স দেওয়ার দাবি জানাই।

 

তারা আরো বলেন, গরিব মানুষের পকেটে টাকা নেই, বাজার পরিস্থিতি চরম খারাপ অবস্থায় পৌঁছেছে, বাসায় খাবার নেই। অভাব-অনটনে জীবন পার করতে হচ্ছে। অন্যদিকে ধনীরা আরো ধনী হচ্ছে। সরকার সচেতনভাবে এ দুষ্টু চক্রকে লালন-পালন করছে।

 

রিকশা-ভ্যান-ইজিবাইক শ্রমিক ইউনিয়নের সহসভাপতি আব্দুল হাকিম মাইজভাণ্ডারি সভাপতিত্বে সমাবেশে উপস্থিত ছিলেন উপদেষ্টা আবদুল্লাহ আল ক্বাফী রতন, সাধারণ সম্পাদক আব্দুল কুদ্দুস, দুলাল সরদার, হাজারীবাগ থানার সভাপতি সুমন মৃধা, কামরাঙ্গীরচর থানার সাধারণ সম্পাদক আরিফুল ইসলাম আরিফ, পল্লবী থানার নেতা ইমরান হাসান শিপলু, কালাপানি অঞ্চলের নেতা সিরাজুল ইসলাম প্রমুখ।