১০:৩৯ অপরাহ্ন, রবিবার, ০৩ মার্চ ২০২৪, ২০ ফাল্গুন ১৪৩০ বঙ্গাব্দ

নিরাপত্তার চাদরে ঢাকা থাকবে বিশ্ব ইজতেমা ময়দান- পুলিশ প্রধান

বাংলাদেশ পুলিশের মহাপরিদর্শক চৌধুরী আব্দুল্লাহ আল মামুন বলেছেন, প্রতিবারের মতো এবারও ইজতেমা ময়দান নিরাপত্তার চাদরে ঢাকা থাকবে। যে কোন ধরনের পরিস্থিতি ও চ্যালেঞ্জ মোকাবেলায় পুলিশের সক্ষমতা ও আস্থা রয়েছে। সে অনুযায়ী তাদের ব্রিফিং ও প্রশিক্ষণ দেয়া হয়েছে। কে কোথায় কিভাবে চ্যালেঞ্জ আসলে তারা দায়িত্ব পালন করবে তা মোকাবেলা করবে সে প্রশিক্ষন তারা পেয়েছে।

আজ বুধবার (৩১ জানুয়ারি) গাজীপুরের টঙ্গীতে ইজতেমা মাঠ পরিদর্শন শেষে  পুলিশের কন্ট্রোল রুমে নিরপত্তা ব্যবস্থা নিয়ে আয়োজিত ব্রিফিংয়ে এ কথা বলেন।

পুলিশ প্রধান বলেন,  বর্তমান নিরাপত্তা ব্যবস্থায় আমাদের বোম ডিসপোসাল ইউনিট, সোয়াট টিম, ডগ স্কোয়াড, সিআরটি,  বিস্ফোরক প্রশিক্ষক টিম, ক্রাইম সিন , চুরি, ডাকাতি, ছিনতাই প্রতিরোধে টিম, নৌ টহল, হেলিকপ্টার টিম প্রস্তত থাকবে। এছাড়াও পর্যাপ্ত সংখ্যক সিসি টিভি, নাইট ভিশন আইপি ক্যামেরা দিয়ে পর্যবেক্ষণ করা হবে, ওয়াচ টাওয়ার থাকবে। প্রতিটি প্রবেশ পথে মেটাল ডিটেক্টর দিয়ে সাদা পোশাকে নিরাপত্তা ব্যবস্থা থাকবে। ইজতেমা স্থলে গুরুত্বপূর্ণ ব্যক্তিদের নিরাপত্তা নিশ্চিতেও আমরা বিশেষ নিরাপত্তা ব্যবস্থা নিয়েছি।

এ নিরাপত্তা ব্যবস্থা শুধু ইজতেমা স্থলে নয়, নিরাপত্তা পরিকল্পনা আমরা রেল ষ্টেশন.  ডিএমপি এলাকা থেকে শুরু করে  ও ঢাকা জেলা, ডিএমপি পুলিশ  গাজীপুর জেলা ও  জিএমপি, সকলে মিলে আমরা একটি সমন্বিত পরিকল্পনা করেছি। এখানে বিভিন্ন ইউনিট আছে সকলেই সমন্বয় করেছি। এখানে র‌্যাব আছে, টুরিস্ট পুলিশ আছে, নৌ পুলিশ আছে, আর্মড পুলিশ আছে।

তিনি বলেন, ইজতেমা স্থলে বিদেশী মেহমানদের স্বাগত জানানোর জন্য মুরুব্বীরা যে ব্যবস্থা নিয়েছেন আমরাও তাদের সে ব্যবস্থাপনার সাথে সামঞ্জস্য রেখে নিরাপত্তা পরিকল্পনা সাজিয়েছি। তাদের সাথে ঘনিষ্ট যোগাযোগ রেখে যখন যা দরকার সে অনুযায়ী আমরা ব্যবস্থা নিয়েছি। বিভিন্ন গোয়েন্দা সংস্থার সাথে নিবিড় যোগাযোগ থাকায় তাদের কাছ থেকে যে বার্তা পাওয়া যাচ্ছে সে অনুযায়ী ব্যবস্থা নেয়া হচ্ছে বলে জানান পুলিশ প্রধান।

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে কেউ যাতে কোন ধরনের বিভ্রান্তিমূলক পোষ্ট ছবি  তথ্য আদান করে সাম্প্রদায়িক সম্প্রতি বিনষ্ট করতে না পারে সে জন্য আমাদের সাইবার মনিটরিং ও সাইবার পেট্রোলিং জোরদার করা হয়েছে।

ইজতেমার আগত মুসুল্লীদের গমনাগমন স্বাভাবিক রাখতে আমরা বিশেষ ট্রাফিক ব্যবস্থা গড়ে তুলেছি। ইতিমধ্যেই ইজতেমা শান্তিপূর্ন আয়োজন সফল করতে আমরা বিভিন্নভাবে প্রস্ততি নিয়েছি। মুসুল্লীদের যে কোন সমস্যায় কন্ট্রোল রুম প্রস্তত রয়েছে। সবশেষে যে কোন সমস্যায় ৯৯৯ এ ফোন করলেও পুলিশ ব্যবস্থা নিবে।

পুলিশ প্রধান বলেন, আমরা জনগনের সেবায় প্রস্তত আছি, আমরা সবসময় দেশবাসীকে নিরাপত্তা দিয়ে নিরাপত্তার দায়িত্ব পালন করে গর্ববোধ করি। প্রয়োজনে নিজের জীবন দিয়েও দেশের শান্তিশৃঙ্খলা বজায় রাখতে পুলিশের প্রতিটি সদস্য দৃড়প্রতিজ্ঞ।  কেউ যদি সন্ত্রাসী,নাশকতামূলক কাজের মাধ্যমে এখানে ধর্মীয় ভাবগাম্ভীর্য ও পরিবেশ নষ্ট করার কোন পরিকল্পনা নিয়ে থাকে তার বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা নেয়া হবে বলেও হুশিয়ারী দেন।

পুলিশ প্রধান দেশবাসীর উদ্দেশ্যে বলেন, কেউ গুজবে কান দিবেন না। একটি মহল দেশের শান্তি শৃঙ্খলা নষ্ট করার জন্য চেষ্টা করে। সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি বিনষ্ট করার চেষ্টা করে। বিভিন্ন দল, গ্রুপ, সম্প্রদায়ের মাঝে বিবেধ সৃষ্টির মাধ্যমে দেশকে অস্থিতিশীল করার চেষ্টা করে তাদের গুজবে কান দিবেন না। পুলিশ দেশের মানুষের সেবায় নিয়োজিত আছে।

 

 

স/মিফা

নিরাপত্তার চাদরে ঢাকা থাকবে বিশ্ব ইজতেমা ময়দান- পুলিশ প্রধান

আপডেট সময় : ০৫:৩৫:৩৮ অপরাহ্ন, বুধবার, ৩১ জানুয়ারী ২০২৪

বাংলাদেশ পুলিশের মহাপরিদর্শক চৌধুরী আব্দুল্লাহ আল মামুন বলেছেন, প্রতিবারের মতো এবারও ইজতেমা ময়দান নিরাপত্তার চাদরে ঢাকা থাকবে। যে কোন ধরনের পরিস্থিতি ও চ্যালেঞ্জ মোকাবেলায় পুলিশের সক্ষমতা ও আস্থা রয়েছে। সে অনুযায়ী তাদের ব্রিফিং ও প্রশিক্ষণ দেয়া হয়েছে। কে কোথায় কিভাবে চ্যালেঞ্জ আসলে তারা দায়িত্ব পালন করবে তা মোকাবেলা করবে সে প্রশিক্ষন তারা পেয়েছে।

আজ বুধবার (৩১ জানুয়ারি) গাজীপুরের টঙ্গীতে ইজতেমা মাঠ পরিদর্শন শেষে  পুলিশের কন্ট্রোল রুমে নিরপত্তা ব্যবস্থা নিয়ে আয়োজিত ব্রিফিংয়ে এ কথা বলেন।

পুলিশ প্রধান বলেন,  বর্তমান নিরাপত্তা ব্যবস্থায় আমাদের বোম ডিসপোসাল ইউনিট, সোয়াট টিম, ডগ স্কোয়াড, সিআরটি,  বিস্ফোরক প্রশিক্ষক টিম, ক্রাইম সিন , চুরি, ডাকাতি, ছিনতাই প্রতিরোধে টিম, নৌ টহল, হেলিকপ্টার টিম প্রস্তত থাকবে। এছাড়াও পর্যাপ্ত সংখ্যক সিসি টিভি, নাইট ভিশন আইপি ক্যামেরা দিয়ে পর্যবেক্ষণ করা হবে, ওয়াচ টাওয়ার থাকবে। প্রতিটি প্রবেশ পথে মেটাল ডিটেক্টর দিয়ে সাদা পোশাকে নিরাপত্তা ব্যবস্থা থাকবে। ইজতেমা স্থলে গুরুত্বপূর্ণ ব্যক্তিদের নিরাপত্তা নিশ্চিতেও আমরা বিশেষ নিরাপত্তা ব্যবস্থা নিয়েছি।

এ নিরাপত্তা ব্যবস্থা শুধু ইজতেমা স্থলে নয়, নিরাপত্তা পরিকল্পনা আমরা রেল ষ্টেশন.  ডিএমপি এলাকা থেকে শুরু করে  ও ঢাকা জেলা, ডিএমপি পুলিশ  গাজীপুর জেলা ও  জিএমপি, সকলে মিলে আমরা একটি সমন্বিত পরিকল্পনা করেছি। এখানে বিভিন্ন ইউনিট আছে সকলেই সমন্বয় করেছি। এখানে র‌্যাব আছে, টুরিস্ট পুলিশ আছে, নৌ পুলিশ আছে, আর্মড পুলিশ আছে।

তিনি বলেন, ইজতেমা স্থলে বিদেশী মেহমানদের স্বাগত জানানোর জন্য মুরুব্বীরা যে ব্যবস্থা নিয়েছেন আমরাও তাদের সে ব্যবস্থাপনার সাথে সামঞ্জস্য রেখে নিরাপত্তা পরিকল্পনা সাজিয়েছি। তাদের সাথে ঘনিষ্ট যোগাযোগ রেখে যখন যা দরকার সে অনুযায়ী আমরা ব্যবস্থা নিয়েছি। বিভিন্ন গোয়েন্দা সংস্থার সাথে নিবিড় যোগাযোগ থাকায় তাদের কাছ থেকে যে বার্তা পাওয়া যাচ্ছে সে অনুযায়ী ব্যবস্থা নেয়া হচ্ছে বলে জানান পুলিশ প্রধান।

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে কেউ যাতে কোন ধরনের বিভ্রান্তিমূলক পোষ্ট ছবি  তথ্য আদান করে সাম্প্রদায়িক সম্প্রতি বিনষ্ট করতে না পারে সে জন্য আমাদের সাইবার মনিটরিং ও সাইবার পেট্রোলিং জোরদার করা হয়েছে।

ইজতেমার আগত মুসুল্লীদের গমনাগমন স্বাভাবিক রাখতে আমরা বিশেষ ট্রাফিক ব্যবস্থা গড়ে তুলেছি। ইতিমধ্যেই ইজতেমা শান্তিপূর্ন আয়োজন সফল করতে আমরা বিভিন্নভাবে প্রস্ততি নিয়েছি। মুসুল্লীদের যে কোন সমস্যায় কন্ট্রোল রুম প্রস্তত রয়েছে। সবশেষে যে কোন সমস্যায় ৯৯৯ এ ফোন করলেও পুলিশ ব্যবস্থা নিবে।

পুলিশ প্রধান বলেন, আমরা জনগনের সেবায় প্রস্তত আছি, আমরা সবসময় দেশবাসীকে নিরাপত্তা দিয়ে নিরাপত্তার দায়িত্ব পালন করে গর্ববোধ করি। প্রয়োজনে নিজের জীবন দিয়েও দেশের শান্তিশৃঙ্খলা বজায় রাখতে পুলিশের প্রতিটি সদস্য দৃড়প্রতিজ্ঞ।  কেউ যদি সন্ত্রাসী,নাশকতামূলক কাজের মাধ্যমে এখানে ধর্মীয় ভাবগাম্ভীর্য ও পরিবেশ নষ্ট করার কোন পরিকল্পনা নিয়ে থাকে তার বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা নেয়া হবে বলেও হুশিয়ারী দেন।

পুলিশ প্রধান দেশবাসীর উদ্দেশ্যে বলেন, কেউ গুজবে কান দিবেন না। একটি মহল দেশের শান্তি শৃঙ্খলা নষ্ট করার জন্য চেষ্টা করে। সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি বিনষ্ট করার চেষ্টা করে। বিভিন্ন দল, গ্রুপ, সম্প্রদায়ের মাঝে বিবেধ সৃষ্টির মাধ্যমে দেশকে অস্থিতিশীল করার চেষ্টা করে তাদের গুজবে কান দিবেন না। পুলিশ দেশের মানুষের সেবায় নিয়োজিত আছে।

 

 

স/মিফা