০৯:৪৭ অপরাহ্ন, রবিবার, ০৩ মার্চ ২০২৪, ২০ ফাল্গুন ১৪৩০ বঙ্গাব্দ

শেষ হলো আখেরি মোনাজাত

♦  ইজতেমামুখী মানুষের ঢল

♦ বন্ধ থাকবে বিভিন্ন রাস্তা

♦  বিশ^ ইজতেমার প্রথম পর্ব শেষ হচ্ছে

 

আখেরি মোনাজাতের মাধ্যমে বিশ্ব ইজতেমার প্রথম পর্ব শেষ হচ্ছে আজ। সকাল ৯টা থেকে সাড়ে ৯টার মধ্যে অনুষ্ঠিত হবে এ মোনাজাত। এ উপলক্ষে গতকাল দিনগত রাত ১২টার পর ঢাকা-ময়মনসিংহ মহাসড়কের আব্দুল্লাহপুর থেকে গাজীপুর মহানগরীর ভোগড়া বাইপাস ও টঙ্গীর স্টেশন রোড থেকে কামারপাড়া পর্যন্ত সড়কে সব ধরনের যান চলাচল বন্ধ থাকবে। গতকাল সকালে ইজতেমা ময়দানে গাজীপুর মেট্রোপলিটন পুলিশের (জিএমপি) উপ-কমিশনার ইব্রাহিম সাংবাদিকদের এসব কথা বলেন।
তিনি বলেন, বিশ^ ইজতেমার প্রথম পর্বের আখেরি মোনাজাত উপলক্ষে জিএমপির ট্রাফিক বিভাগকে ঢেলে সাজানো হয়েছে। যেহেতু আখেরি মোনাজাতে অংশ নিতে দূরদূরান্ত থেকে দেশ-বিদেশের লাখ লাখ ধর্মপ্রাণ মুসল্লি অংশ নেবেন, সে কারণে তাদের সুবিধার জন্য গতকাল শনিবার রাত ১২টা থেকে ঢাকা-ময়মনসিংহ মহাসড়কের রাজধানীর আবদুল্লাহপুর থেকে গাজীপুর মহানগরীর ভোগড়া বাইপাস, আবদুল্লাহপুর থেকে কামারপাড়া রোড হয়ে গাজীপুর মহানগরীর টঙ্গী স্টেশন রোড পর্যন্ত সড়ক, আবদুল্লাহপুর থেকে আশুলিয়ার বাইপাইল পর্যন্ত এবং মিরের বাজার থেকে টঙ্গী পর্যন্ত সড়কে সব ধরনের যানবাহন চলাচল বন্ধ থাকবে। সেক্ষেত্রে ঢাকাগামী লোকজন ও যানবাহনগুলোকে ভোগড়া বাইপাস দিয়ে ৩০০ ফিট রাস্তা ব্যবহার করে চলাচল করতে বলা হয়েছে। যেসব লোকজন ময়মনসিংহ বা গাজীপুর যাবেন, তারা বাইপাইল থেকে জয়দেবপুর চৌরাস্তা হয়ে চলে যাবেন।
দ্বিতীয় দিনেও ইজতেমামুখী মানুষের ঢল
গতকাল ছিল বিশ্ব ইজতেমার প্রথম পর্বের দ্বিতীয় দিন। এদিনও ছিল ইজতেমামুখী মানুষের ঢল। আজ আখেরি মোনাজাতের আগ পর্যন্ত মানুষের এ ঢল অব্যাহত থাকবে। গতকাল বাদ ফজর থেকে ইজতেমা মাঠে লাখ-লাখ মুসল্লির উদ্দেশে হয়েছে পবিত্র কোরআন-হাদিসের আলোকে গুরুত্বপূর্ণ বয়ান। লাখো মুসল্লির আল্লাহু আকবার ধ্বনিতে মুখরিত টঙ্গীর তুরাগ তীর। সকাল থেকে রাত পর্যন্ত অবিরাম চলেছে এই বয়ান। এদিন বাদ ফজর মুসল্লিদের উদ্দেশে বয়ান করেন ভারতের মাওলানা আব্দুর রহমান। তার বয়ান বাংলায় তর্জমা করেন
বাংলাদেশের মাওলানা আব্দুল মতিন। বাদ জোহর বয়ান করেন ভারতের মাওলানা ইসমাইল গোদরা। বাদ আসর বয়ান করেন ভারতের মাওলানা জুহাইরুল হাসান। বাদ মাগরিব বয়ান করেন ভারতের মাওলানা ইব্রাহিম দেওলা।
আরো তিন মুসল্লির মৃত্যু : গাজীপুরের টঙ্গীতে বিশ্ব ইজতেমায় আরো তিন মুসল্লির মৃত্যু হয়েছে।
এ নিয়ে এখন পর্যন্ত ইজতেমায় ১০ জনের মৃত্যু হলো। গত শুক্রবার দুপুর থেকে শনিবার দুপুর ১২টা পর্যন্ত ইজতেমা ময়দানে তিন মুসল্লির মৃত্যু হয়। বার্ধক্যজনিত বিভিন্ন রোগ ও হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে তারা মারা যান। মারা যাওয়া মুসল্লিরা হলেনÑ শেরপুর সদরের জুগনিবাগ গ্রামের মৃত শমশের আলীর ছেলে নওশের আলী (৬৫), ভোলার সামানদার গ্রামের বেলায়েত হোসেনের ছেলে আব্দুল কাদের (৫৫) ও নেত্রকোনা সদরের কালিয়াঝুড়ি এলাকার হোসেন আহম্মদের ছেলে স্বাধীন (৪৫)।
এর আগে গত বুধ ও বৃহস্পতিবার মারা যান চারজন। এছাড়া, ময়দানে আসার সময় এক পুলিশ সদস্যসহ তিনজনের মৃত্যু হয়। ইজতেমা আয়োজক কমিটির গণমাধ্যম সমন্বয়ক হাবিবুল্লাহ রায়হান এসব তথ্য নিশ্চিত করেছেন।
বয়ানে ওলামায়ে কেরাম বলেন, ‘পরকালের চিরস্থায়ী সুখ শান্তির জন্য আমাদের প্রত্যককে দুনিয়াতে জীবিত থাকা অবস্থায় দ্বীনের দাওয়াতের কাজে জানমাল দিয়ে মেহনত করতে হবে।
ঈমান-আমলের মেহনত ছাড়া কেউ হাশরের ময়দানে কামিয়াব হতে পারবে না।
যৌতুকবিহীন বিয়ে : বিশ্ব ইজতেমার অন্যতম আকর্ষণ যৌতুকবিহীন বিয়ে গতকাল বাদ আসর ইজতেমার বয়ান মঞ্চের পাশেই অনুষ্ঠিত হয়। ভারতের মাওলানা জোবায়রুল হাসান এই বিয়ে পড়ান। বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন বিশ্ব ইজতেমার মিডিয়া সমন্বয়ক হাবিবুল্লাহ রায়হান। কনের সম্মতিতে ও তার অনুপস্থিতিতে বর এবং কনে পক্ষের লোকজনের উপস্থিতিতে ৭২ জোড়া বর-কনের যৌতুকবিহীন বিয়ে সম্পন্ন হয়। বিয়েতে মোহরানা ধার্য করা হয় ‘মোহর ফাতেমী’র নিয়মানুযায়ী। এ নিয়ম অনুযায়ী মোহরানা ধরা হয় দেড়শ’ তোলা রুপা বা এর সমমূল্যের অর্থ। এজন্য সকাল থেকে অভিভাবকরা হবু দম্পতির নাম তালিকাভুক্ত করান। বিয়ের পর বয়ান মঞ্চ থেকে মোনাজাতের মাধ্যমে সব নব দম্পতির সুখ-সমৃদ্ধিময় জীবন কামনা করা হয় এবং মঞ্চের আশপাশের মুসল্লিদের মাঝে খোরমা-খেজুর বিতরণ করা হয়।

 

 

 

স/ম

শেষ হলো আখেরি মোনাজাত

আপডেট সময় : ১১:৫৩:৫৯ পূর্বাহ্ন, রবিবার, ৪ ফেব্রুয়ারী ২০২৪

♦  ইজতেমামুখী মানুষের ঢল

♦ বন্ধ থাকবে বিভিন্ন রাস্তা

♦  বিশ^ ইজতেমার প্রথম পর্ব শেষ হচ্ছে

 

আখেরি মোনাজাতের মাধ্যমে বিশ্ব ইজতেমার প্রথম পর্ব শেষ হচ্ছে আজ। সকাল ৯টা থেকে সাড়ে ৯টার মধ্যে অনুষ্ঠিত হবে এ মোনাজাত। এ উপলক্ষে গতকাল দিনগত রাত ১২টার পর ঢাকা-ময়মনসিংহ মহাসড়কের আব্দুল্লাহপুর থেকে গাজীপুর মহানগরীর ভোগড়া বাইপাস ও টঙ্গীর স্টেশন রোড থেকে কামারপাড়া পর্যন্ত সড়কে সব ধরনের যান চলাচল বন্ধ থাকবে। গতকাল সকালে ইজতেমা ময়দানে গাজীপুর মেট্রোপলিটন পুলিশের (জিএমপি) উপ-কমিশনার ইব্রাহিম সাংবাদিকদের এসব কথা বলেন।
তিনি বলেন, বিশ^ ইজতেমার প্রথম পর্বের আখেরি মোনাজাত উপলক্ষে জিএমপির ট্রাফিক বিভাগকে ঢেলে সাজানো হয়েছে। যেহেতু আখেরি মোনাজাতে অংশ নিতে দূরদূরান্ত থেকে দেশ-বিদেশের লাখ লাখ ধর্মপ্রাণ মুসল্লি অংশ নেবেন, সে কারণে তাদের সুবিধার জন্য গতকাল শনিবার রাত ১২টা থেকে ঢাকা-ময়মনসিংহ মহাসড়কের রাজধানীর আবদুল্লাহপুর থেকে গাজীপুর মহানগরীর ভোগড়া বাইপাস, আবদুল্লাহপুর থেকে কামারপাড়া রোড হয়ে গাজীপুর মহানগরীর টঙ্গী স্টেশন রোড পর্যন্ত সড়ক, আবদুল্লাহপুর থেকে আশুলিয়ার বাইপাইল পর্যন্ত এবং মিরের বাজার থেকে টঙ্গী পর্যন্ত সড়কে সব ধরনের যানবাহন চলাচল বন্ধ থাকবে। সেক্ষেত্রে ঢাকাগামী লোকজন ও যানবাহনগুলোকে ভোগড়া বাইপাস দিয়ে ৩০০ ফিট রাস্তা ব্যবহার করে চলাচল করতে বলা হয়েছে। যেসব লোকজন ময়মনসিংহ বা গাজীপুর যাবেন, তারা বাইপাইল থেকে জয়দেবপুর চৌরাস্তা হয়ে চলে যাবেন।
দ্বিতীয় দিনেও ইজতেমামুখী মানুষের ঢল
গতকাল ছিল বিশ্ব ইজতেমার প্রথম পর্বের দ্বিতীয় দিন। এদিনও ছিল ইজতেমামুখী মানুষের ঢল। আজ আখেরি মোনাজাতের আগ পর্যন্ত মানুষের এ ঢল অব্যাহত থাকবে। গতকাল বাদ ফজর থেকে ইজতেমা মাঠে লাখ-লাখ মুসল্লির উদ্দেশে হয়েছে পবিত্র কোরআন-হাদিসের আলোকে গুরুত্বপূর্ণ বয়ান। লাখো মুসল্লির আল্লাহু আকবার ধ্বনিতে মুখরিত টঙ্গীর তুরাগ তীর। সকাল থেকে রাত পর্যন্ত অবিরাম চলেছে এই বয়ান। এদিন বাদ ফজর মুসল্লিদের উদ্দেশে বয়ান করেন ভারতের মাওলানা আব্দুর রহমান। তার বয়ান বাংলায় তর্জমা করেন
বাংলাদেশের মাওলানা আব্দুল মতিন। বাদ জোহর বয়ান করেন ভারতের মাওলানা ইসমাইল গোদরা। বাদ আসর বয়ান করেন ভারতের মাওলানা জুহাইরুল হাসান। বাদ মাগরিব বয়ান করেন ভারতের মাওলানা ইব্রাহিম দেওলা।
আরো তিন মুসল্লির মৃত্যু : গাজীপুরের টঙ্গীতে বিশ্ব ইজতেমায় আরো তিন মুসল্লির মৃত্যু হয়েছে।
এ নিয়ে এখন পর্যন্ত ইজতেমায় ১০ জনের মৃত্যু হলো। গত শুক্রবার দুপুর থেকে শনিবার দুপুর ১২টা পর্যন্ত ইজতেমা ময়দানে তিন মুসল্লির মৃত্যু হয়। বার্ধক্যজনিত বিভিন্ন রোগ ও হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে তারা মারা যান। মারা যাওয়া মুসল্লিরা হলেনÑ শেরপুর সদরের জুগনিবাগ গ্রামের মৃত শমশের আলীর ছেলে নওশের আলী (৬৫), ভোলার সামানদার গ্রামের বেলায়েত হোসেনের ছেলে আব্দুল কাদের (৫৫) ও নেত্রকোনা সদরের কালিয়াঝুড়ি এলাকার হোসেন আহম্মদের ছেলে স্বাধীন (৪৫)।
এর আগে গত বুধ ও বৃহস্পতিবার মারা যান চারজন। এছাড়া, ময়দানে আসার সময় এক পুলিশ সদস্যসহ তিনজনের মৃত্যু হয়। ইজতেমা আয়োজক কমিটির গণমাধ্যম সমন্বয়ক হাবিবুল্লাহ রায়হান এসব তথ্য নিশ্চিত করেছেন।
বয়ানে ওলামায়ে কেরাম বলেন, ‘পরকালের চিরস্থায়ী সুখ শান্তির জন্য আমাদের প্রত্যককে দুনিয়াতে জীবিত থাকা অবস্থায় দ্বীনের দাওয়াতের কাজে জানমাল দিয়ে মেহনত করতে হবে।
ঈমান-আমলের মেহনত ছাড়া কেউ হাশরের ময়দানে কামিয়াব হতে পারবে না।
যৌতুকবিহীন বিয়ে : বিশ্ব ইজতেমার অন্যতম আকর্ষণ যৌতুকবিহীন বিয়ে গতকাল বাদ আসর ইজতেমার বয়ান মঞ্চের পাশেই অনুষ্ঠিত হয়। ভারতের মাওলানা জোবায়রুল হাসান এই বিয়ে পড়ান। বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন বিশ্ব ইজতেমার মিডিয়া সমন্বয়ক হাবিবুল্লাহ রায়হান। কনের সম্মতিতে ও তার অনুপস্থিতিতে বর এবং কনে পক্ষের লোকজনের উপস্থিতিতে ৭২ জোড়া বর-কনের যৌতুকবিহীন বিয়ে সম্পন্ন হয়। বিয়েতে মোহরানা ধার্য করা হয় ‘মোহর ফাতেমী’র নিয়মানুযায়ী। এ নিয়ম অনুযায়ী মোহরানা ধরা হয় দেড়শ’ তোলা রুপা বা এর সমমূল্যের অর্থ। এজন্য সকাল থেকে অভিভাবকরা হবু দম্পতির নাম তালিকাভুক্ত করান। বিয়ের পর বয়ান মঞ্চ থেকে মোনাজাতের মাধ্যমে সব নব দম্পতির সুখ-সমৃদ্ধিময় জীবন কামনা করা হয় এবং মঞ্চের আশপাশের মুসল্লিদের মাঝে খোরমা-খেজুর বিতরণ করা হয়।

 

 

 

স/ম