১১:১১ পূর্বাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ২৯ ফেব্রুয়ারী ২০২৪, ১৭ ফাল্গুন ১৪৩০ বঙ্গাব্দ

বাংলাদেশ রিজার্ভ সংকট কাটিয়ে উঠছে : অর্থমন্ত্রী

বাংলাদেশ ধীরে ধীরে উন্নতি করছে মন্তব্য করে অর্থমন্ত্রী আবুল হাসান মাহমুদ আলী বলেন, বাংলাদেশে সংকট আছে কিন্তু আমরা ওভারকাম করছি। একই সঙ্গে বাংলাদেশ এখন ঊর্ধ্বমুখীর দিকে। বাংলাদেশ যে সম্ভাবনার দেশ সেই ট্র্যাকেই ফিরে এসেছি। গতকাল সোমবার সচিবালয়ে অর্থ মন্ত্রণালয়ের নিজ দপ্তরে এশিয়া উন্নয়ন ব্যাংক (এডিবি) প্রতিনিধি, ফ্রান্স সরকারের জলবায়ু বিষয়ক বিশেষ দূত স্টিফেন ক্রোজা ও আন্তর্জাতিক কৃষি উন্নয়ন তহবিল (আইএফডি) কান্ট্রি ডিরেক্টর আর্নড হেমলিয়ারসের সঙ্গে সৌজন্য সাক্ষাৎ শেষে সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের উত্তরে তিনি এ কথা বলেন।

অর্থমন্ত্রী বলেন, বাংলাদেশে যে ইন্টারন্যাশনাল ফান্ড ফর এগ্রিকালচারাল ডেভেলপমেন্ট বা আন্তর্জাতিক কৃষি উন্নয়ন তহবিলের (আইএফডি) প্রজেক্ট কার্যক্রম চালু আছে। সেখানে তারা নতুন নতুন আইডিয়া নিয়ে আসছে সেগুলো নিয়েই আলোচনা হচ্ছে। নির্দিষ্ট কোনো বিষয়ে ফোকাসের কথা বলা হয়েছে কি না জানতে চাইলে তিনি বলেন, সে রকম কিছু নেই। তবে তারা ধীরে ধীরে উন্নয়ন করে। প্রতি বছরই আমাদের সঙ্গে আলোচনা হয়। চলতি বছর ইনোভেশন (উদ্ভাবনী) বিষয়ে বাংলাদেশসহ অন্য সবার সঙ্গে আলোচনা হয়েছে।

আইএফডি বলেছে তারা আরো কো-অপারেশন চায়, সেদিক থেকে আমাদের প্রত্যাশাটা কী? এমন প্রশ্নের উত্তরে তিনি বলেন, সবাই তাদের আইডিয়ার কথা বলে, আপনারা চিন্তা করেন কী করা যায়। বাংলাদেশে এখন অনেক ধরনের সমস্যা আছে। এর মধ্যে মার্কেটিং একটা সমস্যা। কৃষকের কাছ থেকে পণ্য ঢাকায় আসতে আসতে এটা মধ্যস্বত্বভোগীদের হাতে চলে যায়। এটা একটা বড় সমস্যা। আমরা চিন্তা-ভাবনা করছি কীভাবে এটা পরিবর্তন করা যায়। আইএফডি এখানে সবসময় আমাদেন সাহায্য করে। শুধু তারা একা নয়, আমাদের অনেক পার্টনার আছে, যেমন জাপান, এশিয়া ডেভেলপমেন্ট ব্যাংক। এছাড়া আমাদের ডেভেলপমেন্ট পার্টনার আছে তারা বিভিন্ন আইডিয়া নিয়ে আসে। তারপর মিলেমিশে আমরা একটা রাস্তা বের করে যেতে শুরু করি।

তিনি বলেন, আমরা কোনো নির্দিষ্ট দেশের ওপর নির্ভরশীল না। কিন্তু আমরা সবার সঙ্গে পরামর্শ করে কাজ করি, আইডিয়া গ্রহণ করি, বড় করি। আর্থিকভাবে বিভিন্ন পার্টনার সহায়তা করে। এডিবি ও ফ্রান্সের প্রতিনিধিদলের সঙ্গে বৈঠক করেছেন সেখানে কী আলোচনা হয়েছে? সাংবাদিকদের এমন প্রশ্নের উত্তরে তিনি বলেন, দেখা যাক বাংলাদেশ তো এখন ভালো করছে। তবে আমরা সমস্যা থেকে একেবারে বের হয়ে গেছি তা নয়। কিন্তু জিসিনটা তো চলছে।

এডিবি নতুন কোনো কমিটমেন্ট করেছে কি না? এমন প্রশ্নের উত্তরে অর্থমন্ত্রী বলেন, নিশ্চয়ই করেছে, তারা তো বাংলাদেশকে সাহায্য করছে। এটা চলমান, চলতে থাকবে। তাহলে একটা কথা অনেকেই বলে বাংলাদেশ কী দেউলিয়া হয়ে গেল। না বাংলাদেশ কোথায় দেউলিয়া। এত বড় একটা দেশ দেউলিয়া হতে পারে না। আমাদের রিজার্ভ উন্নতি করছে।

দেশের সংকট কি কেটে যাচ্ছে বলা যায়? এমন প্রশ্নের উত্তরে আবুল হাসান মাহমুদ আলী বলেন, হ্যাঁ, সংকট অন গোয়িং। সংকট আছে কিন্তু আমরা ওভারকাম করছি। ধীরে ধীরে আমরা উন্নতি করছি। একদিনে যদি ধারণা করে থাকেন, নতুন মন্ত্রিসভা হলো কালকে সব ঠিক হয়ে যাবে। এ রকম হবে না। কিন্তু অন দি ওয়ে, ধীরে ধীরে করতে হবে। আমরা ট্র্যাকে ফিরলাম কি না এমন প্রশ্নের জবাবে অর্থমন্ত্রী বলেন, হ্যাঁ আমরা ট্র্যাকে ফিরলাম। অবশ্যই, আমি এটা আগেও বলেছি। বাংলাদেশ এখন ঊর্ধ্বমুখী, সম্ভাবনার বাংলাদেশ সেই ট্র্যাকেই ফিরে এসেছি।

 

 

 

অব্যাহত অভিযানেও চলছে অবৈধ ক্লিনিক হাসপাতাল-ডায়াগনস্টিক সেন্টার

বাংলাদেশ রিজার্ভ সংকট কাটিয়ে উঠছে : অর্থমন্ত্রী

আপডেট সময় : ১২:০৮:০৯ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ১৩ ফেব্রুয়ারী ২০২৪

বাংলাদেশ ধীরে ধীরে উন্নতি করছে মন্তব্য করে অর্থমন্ত্রী আবুল হাসান মাহমুদ আলী বলেন, বাংলাদেশে সংকট আছে কিন্তু আমরা ওভারকাম করছি। একই সঙ্গে বাংলাদেশ এখন ঊর্ধ্বমুখীর দিকে। বাংলাদেশ যে সম্ভাবনার দেশ সেই ট্র্যাকেই ফিরে এসেছি। গতকাল সোমবার সচিবালয়ে অর্থ মন্ত্রণালয়ের নিজ দপ্তরে এশিয়া উন্নয়ন ব্যাংক (এডিবি) প্রতিনিধি, ফ্রান্স সরকারের জলবায়ু বিষয়ক বিশেষ দূত স্টিফেন ক্রোজা ও আন্তর্জাতিক কৃষি উন্নয়ন তহবিল (আইএফডি) কান্ট্রি ডিরেক্টর আর্নড হেমলিয়ারসের সঙ্গে সৌজন্য সাক্ষাৎ শেষে সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের উত্তরে তিনি এ কথা বলেন।

অর্থমন্ত্রী বলেন, বাংলাদেশে যে ইন্টারন্যাশনাল ফান্ড ফর এগ্রিকালচারাল ডেভেলপমেন্ট বা আন্তর্জাতিক কৃষি উন্নয়ন তহবিলের (আইএফডি) প্রজেক্ট কার্যক্রম চালু আছে। সেখানে তারা নতুন নতুন আইডিয়া নিয়ে আসছে সেগুলো নিয়েই আলোচনা হচ্ছে। নির্দিষ্ট কোনো বিষয়ে ফোকাসের কথা বলা হয়েছে কি না জানতে চাইলে তিনি বলেন, সে রকম কিছু নেই। তবে তারা ধীরে ধীরে উন্নয়ন করে। প্রতি বছরই আমাদের সঙ্গে আলোচনা হয়। চলতি বছর ইনোভেশন (উদ্ভাবনী) বিষয়ে বাংলাদেশসহ অন্য সবার সঙ্গে আলোচনা হয়েছে।

আইএফডি বলেছে তারা আরো কো-অপারেশন চায়, সেদিক থেকে আমাদের প্রত্যাশাটা কী? এমন প্রশ্নের উত্তরে তিনি বলেন, সবাই তাদের আইডিয়ার কথা বলে, আপনারা চিন্তা করেন কী করা যায়। বাংলাদেশে এখন অনেক ধরনের সমস্যা আছে। এর মধ্যে মার্কেটিং একটা সমস্যা। কৃষকের কাছ থেকে পণ্য ঢাকায় আসতে আসতে এটা মধ্যস্বত্বভোগীদের হাতে চলে যায়। এটা একটা বড় সমস্যা। আমরা চিন্তা-ভাবনা করছি কীভাবে এটা পরিবর্তন করা যায়। আইএফডি এখানে সবসময় আমাদেন সাহায্য করে। শুধু তারা একা নয়, আমাদের অনেক পার্টনার আছে, যেমন জাপান, এশিয়া ডেভেলপমেন্ট ব্যাংক। এছাড়া আমাদের ডেভেলপমেন্ট পার্টনার আছে তারা বিভিন্ন আইডিয়া নিয়ে আসে। তারপর মিলেমিশে আমরা একটা রাস্তা বের করে যেতে শুরু করি।

তিনি বলেন, আমরা কোনো নির্দিষ্ট দেশের ওপর নির্ভরশীল না। কিন্তু আমরা সবার সঙ্গে পরামর্শ করে কাজ করি, আইডিয়া গ্রহণ করি, বড় করি। আর্থিকভাবে বিভিন্ন পার্টনার সহায়তা করে। এডিবি ও ফ্রান্সের প্রতিনিধিদলের সঙ্গে বৈঠক করেছেন সেখানে কী আলোচনা হয়েছে? সাংবাদিকদের এমন প্রশ্নের উত্তরে তিনি বলেন, দেখা যাক বাংলাদেশ তো এখন ভালো করছে। তবে আমরা সমস্যা থেকে একেবারে বের হয়ে গেছি তা নয়। কিন্তু জিসিনটা তো চলছে।

এডিবি নতুন কোনো কমিটমেন্ট করেছে কি না? এমন প্রশ্নের উত্তরে অর্থমন্ত্রী বলেন, নিশ্চয়ই করেছে, তারা তো বাংলাদেশকে সাহায্য করছে। এটা চলমান, চলতে থাকবে। তাহলে একটা কথা অনেকেই বলে বাংলাদেশ কী দেউলিয়া হয়ে গেল। না বাংলাদেশ কোথায় দেউলিয়া। এত বড় একটা দেশ দেউলিয়া হতে পারে না। আমাদের রিজার্ভ উন্নতি করছে।

দেশের সংকট কি কেটে যাচ্ছে বলা যায়? এমন প্রশ্নের উত্তরে আবুল হাসান মাহমুদ আলী বলেন, হ্যাঁ, সংকট অন গোয়িং। সংকট আছে কিন্তু আমরা ওভারকাম করছি। ধীরে ধীরে আমরা উন্নতি করছি। একদিনে যদি ধারণা করে থাকেন, নতুন মন্ত্রিসভা হলো কালকে সব ঠিক হয়ে যাবে। এ রকম হবে না। কিন্তু অন দি ওয়ে, ধীরে ধীরে করতে হবে। আমরা ট্র্যাকে ফিরলাম কি না এমন প্রশ্নের জবাবে অর্থমন্ত্রী বলেন, হ্যাঁ আমরা ট্র্যাকে ফিরলাম। অবশ্যই, আমি এটা আগেও বলেছি। বাংলাদেশ এখন ঊর্ধ্বমুখী, সম্ভাবনার বাংলাদেশ সেই ট্র্যাকেই ফিরে এসেছি।