১১:৫১ পূর্বাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ২৯ ফেব্রুয়ারী ২০২৪, ১৭ ফাল্গুন ১৪৩০ বঙ্গাব্দ
২০২৩-২৪ অর্থবছর

সৌদি থেকে রেমিট্যান্স আসা কমে অর্ধেক

জুলাইয়ে এসেছিল ৩০ কোটি ডলার

বাংলাদেশি শ্রমিকরা সবচেয়ে বেশি থাকে সৌদি আরবে। ২০২৩ সালেও রেকর্ড ৪ লাখ ৯৭ হাজার ৬৭৪ জন বাংলাদেশি শ্রমিক সৌদি আরব গিয়েছে। কিন্তু সেই তুলনায় সৌদি আরব থেকে প্রবাসী আয় আসা কমছে। এমনকি ২০২৩-২৪ অর্থবছরের প্রথম সাত মাস (জুলাই-জানুয়ারি) সৌদি থেকে প্রবাসী আয় আসা কমে অর্ধেকে নেমেছে। বাংলাদেশ ব্যাংকের সর্বশেষ হালনাগাদ প্রতিবেদন থেকে এসব তথ্য জানা গেছে।

প্রতিবেদন অনুযায়ী, ২০২৩-২৪ অর্থবছরের প্রথম মাস জুলাইয়ে সৌদি আরব থেকে বাংলাদেশে প্রবাসী আয় এসেছিল ৩০ কোটি ৫০ লাখ ডলার। আর অর্থবছরের সপ্তাম মাস জানুয়ারিতে সৌদি থেকে বাংলাদেশি শ্রমিকরা রেমিট্যান্স পাঠিয়েছে ১৭ কোটি ৬১ লাখ ডলার। সেই হিসাবে জানুয়ারি শেষে সৌদি থেকে বাংলাদেশে প্রবাসী আয় আসা কমেছে ১৩ কোটি ৮৯ লাখ ডলার।

তথ্যানুযায়ী, ২০২২-২৩ অর্থবছরে সৌদি থেকে বাংলাদেশে প্রবাসী আয় এসেছিল ৩৭৬ কোটি ২৯ লাখ ডলার। আর এর আগে ২০২১-২২ অর্থবছরে সৌদি থেকে বাংলাদেশে প্রবাসী আয় এসেছিল ৪৫৪ কোটি ৯৬ লাখ ডলার।

বাংলাদেশ ব্যাংকের সর্বশেষ হালনাগাদ প্রতিবেদন অনুযায়ী, যুক্তরাষ্ট্র থেকে ২০২৪ সালের প্রথম মাস জানুয়ারিতে প্রবাসী আয় এসেছে ২০ কোটি ডলার। এর আগের মাস ডিসেম্বরে যুক্তরাষ্ট্র থেকে বাংলাদেশে প্রবাসী আয় এসেছিল ২১ কোটি ডলার।

অপরদিকে, কয়েক মাস ধরেই ধারাবাহিকভাবে প্রবাসী আয় বেশি আসছে আরব আমিরাত থেকে। ২০২৪ সালের প্রথম মাস জানুয়ারিতে সবচেয়ে বেশি প্রবাসী আয় এসেছে দেশটি থেকে। প্রতিবেদন অনুযায়ী, জানুয়ারিতে আরব আমিরাত থেকে প্রবাসী আয় এসেছে ৪৪ কোটি ডলার। আগের মাস ডিসেম্বরেও এসেছিল ৪৪ কোটি ২৮ লাখ ডলার।

অপরদিকে যুক্তরাজ্য থেকে জানুয়ারিতে প্রবাসী আয় কম এসেছে। প্রতিবেদন অনুযায়ী, ২০২৪ সালের প্রথম মাস জানুয়ারিতে যুক্তরাজ্য থেকে প্রবাসী আয় এসেছে ২৪ কোটি ডলার। আর আগের মাস ডিসেম্বরে এসেছিল ২৮ কোটি ডলার। এর আগের মাস নভেম্বরে যুক্তরাজ্য থেকে প্রবাসী আয় এসেছিল ২৬ কোটি ৬৮ লাখ ডলার।

বাংলাদেশ ব্যাংকের প্রতিবেদন অনুযায়ী, মধ্যপ্রাচ্যের দেশ ওমান থেকেও ২০২৪ সালের শেষ মাস ডিসেম্বরে প্রবাসী আয় বেশি এসেছে। জানুয়ারিতে দেশটিতে অবস্থান করা বাংলাদেশিরা ৮ কোটি ডলার দেশে পাঠিয়েছে। আর আগের মাস ডিসেম্বর ওমান থেকে রেমিট্যান্স এসেছিল ৭ কোটি মার্কিন ডলার।

অপরদিকে নভেম্বরের তুলনায় প্রবাসী আয় বেশি এসেছে মালয়েশিয়া থেকেও। প্রতিবেদন অনুযায়ী, বছরের প্রথম মাস জানুয়ারিতে মালয়েশিয়া থেকে প্রবাসী আয় এসেছে ১৫ কোটি ৯৭ লাখ ডলার।

বাংলাদেশ ব্যাংকের প্রতিবেদন অনুযায়ী, ২০২৪ সালের প্রথম মাস জানুয়ারিতে কুয়েত থেকে প্রবাসী আয় এসেছে ১৩ কোটি ডলার, ইতালী থেকে ১৩ কোটি ডলার, কাতার থেকে ১১ কোটি ডলার, বাহরাইন থেকে ৬ কোটি ডলার, সিঙ্গাপুর থেকে এসেছে ৭ কোটি ডলার,
প্রতিবেদন অনুযায়ী, ২০২৪ সালের প্রথম মাস জানুয়ারিতে অন্যান্য দেশগুলো থেকে বাংলাদেশে প্রবাসী আয় এসেছে ৬ কোটি ডলার।

 

 

স/মিফা

অব্যাহত অভিযানেও চলছে অবৈধ ক্লিনিক হাসপাতাল-ডায়াগনস্টিক সেন্টার

২০২৩-২৪ অর্থবছর

সৌদি থেকে রেমিট্যান্স আসা কমে অর্ধেক

আপডেট সময় : ১২:০৮:১৭ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ১৩ ফেব্রুয়ারী ২০২৪

বাংলাদেশি শ্রমিকরা সবচেয়ে বেশি থাকে সৌদি আরবে। ২০২৩ সালেও রেকর্ড ৪ লাখ ৯৭ হাজার ৬৭৪ জন বাংলাদেশি শ্রমিক সৌদি আরব গিয়েছে। কিন্তু সেই তুলনায় সৌদি আরব থেকে প্রবাসী আয় আসা কমছে। এমনকি ২০২৩-২৪ অর্থবছরের প্রথম সাত মাস (জুলাই-জানুয়ারি) সৌদি থেকে প্রবাসী আয় আসা কমে অর্ধেকে নেমেছে। বাংলাদেশ ব্যাংকের সর্বশেষ হালনাগাদ প্রতিবেদন থেকে এসব তথ্য জানা গেছে।

প্রতিবেদন অনুযায়ী, ২০২৩-২৪ অর্থবছরের প্রথম মাস জুলাইয়ে সৌদি আরব থেকে বাংলাদেশে প্রবাসী আয় এসেছিল ৩০ কোটি ৫০ লাখ ডলার। আর অর্থবছরের সপ্তাম মাস জানুয়ারিতে সৌদি থেকে বাংলাদেশি শ্রমিকরা রেমিট্যান্স পাঠিয়েছে ১৭ কোটি ৬১ লাখ ডলার। সেই হিসাবে জানুয়ারি শেষে সৌদি থেকে বাংলাদেশে প্রবাসী আয় আসা কমেছে ১৩ কোটি ৮৯ লাখ ডলার।

তথ্যানুযায়ী, ২০২২-২৩ অর্থবছরে সৌদি থেকে বাংলাদেশে প্রবাসী আয় এসেছিল ৩৭৬ কোটি ২৯ লাখ ডলার। আর এর আগে ২০২১-২২ অর্থবছরে সৌদি থেকে বাংলাদেশে প্রবাসী আয় এসেছিল ৪৫৪ কোটি ৯৬ লাখ ডলার।

বাংলাদেশ ব্যাংকের সর্বশেষ হালনাগাদ প্রতিবেদন অনুযায়ী, যুক্তরাষ্ট্র থেকে ২০২৪ সালের প্রথম মাস জানুয়ারিতে প্রবাসী আয় এসেছে ২০ কোটি ডলার। এর আগের মাস ডিসেম্বরে যুক্তরাষ্ট্র থেকে বাংলাদেশে প্রবাসী আয় এসেছিল ২১ কোটি ডলার।

অপরদিকে, কয়েক মাস ধরেই ধারাবাহিকভাবে প্রবাসী আয় বেশি আসছে আরব আমিরাত থেকে। ২০২৪ সালের প্রথম মাস জানুয়ারিতে সবচেয়ে বেশি প্রবাসী আয় এসেছে দেশটি থেকে। প্রতিবেদন অনুযায়ী, জানুয়ারিতে আরব আমিরাত থেকে প্রবাসী আয় এসেছে ৪৪ কোটি ডলার। আগের মাস ডিসেম্বরেও এসেছিল ৪৪ কোটি ২৮ লাখ ডলার।

অপরদিকে যুক্তরাজ্য থেকে জানুয়ারিতে প্রবাসী আয় কম এসেছে। প্রতিবেদন অনুযায়ী, ২০২৪ সালের প্রথম মাস জানুয়ারিতে যুক্তরাজ্য থেকে প্রবাসী আয় এসেছে ২৪ কোটি ডলার। আর আগের মাস ডিসেম্বরে এসেছিল ২৮ কোটি ডলার। এর আগের মাস নভেম্বরে যুক্তরাজ্য থেকে প্রবাসী আয় এসেছিল ২৬ কোটি ৬৮ লাখ ডলার।

বাংলাদেশ ব্যাংকের প্রতিবেদন অনুযায়ী, মধ্যপ্রাচ্যের দেশ ওমান থেকেও ২০২৪ সালের শেষ মাস ডিসেম্বরে প্রবাসী আয় বেশি এসেছে। জানুয়ারিতে দেশটিতে অবস্থান করা বাংলাদেশিরা ৮ কোটি ডলার দেশে পাঠিয়েছে। আর আগের মাস ডিসেম্বর ওমান থেকে রেমিট্যান্স এসেছিল ৭ কোটি মার্কিন ডলার।

অপরদিকে নভেম্বরের তুলনায় প্রবাসী আয় বেশি এসেছে মালয়েশিয়া থেকেও। প্রতিবেদন অনুযায়ী, বছরের প্রথম মাস জানুয়ারিতে মালয়েশিয়া থেকে প্রবাসী আয় এসেছে ১৫ কোটি ৯৭ লাখ ডলার।

বাংলাদেশ ব্যাংকের প্রতিবেদন অনুযায়ী, ২০২৪ সালের প্রথম মাস জানুয়ারিতে কুয়েত থেকে প্রবাসী আয় এসেছে ১৩ কোটি ডলার, ইতালী থেকে ১৩ কোটি ডলার, কাতার থেকে ১১ কোটি ডলার, বাহরাইন থেকে ৬ কোটি ডলার, সিঙ্গাপুর থেকে এসেছে ৭ কোটি ডলার,
প্রতিবেদন অনুযায়ী, ২০২৪ সালের প্রথম মাস জানুয়ারিতে অন্যান্য দেশগুলো থেকে বাংলাদেশে প্রবাসী আয় এসেছে ৬ কোটি ডলার।

 

 

স/মিফা