০৫:২০ পূর্বাহ্ন, সোমবার, ২২ এপ্রিল ২০২৪, ৮ বৈশাখ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

চট্টগ্রামে জুতার কারখানায় ভয়াবহ আগুন

 

 

চট্টগ্রাম মহানগরীর বায়োজিদ থানাধীন টেক্সটাইল গেইট এলাকায় একটি বিদেশি জুতার ইনসোল তৈরির কারখানায় অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা ঘটেছে। খবর পেয়ে ফায়ার সার্ভিসের ৯ টি ইউনিট দুই ঘণ্টার চেষ্টায় আগুন নিয়ন্ত্রণে আনে।

 

 

শুক্রবার (২৯ মার্চ) বিকেল ৪টার দিকে এ আগুনের সূত্রপাত হয়। খবর পেয়ে ফায়ার সার্ভিসের ৯টি ইউনিট আগুন নিয়ন্ত্রণে একের পর এক করে ঘটনাস্থলে যোগ দেয়। পরে সন্ধ্যা ৬টার দিকে আগুন নিয়ন্ত্রণে আসে।

 

 

আগ্রাবাদ ফায়ার সার্ভিসের উপসহকারী পরিচালক আব্দুল্লাহ হারুন পাশা জানান, ৯টি ইউনিটের প্রায় দুঘণ্টা প্রচেষ্টা চালিয়ে সন্ধ্যা ৬টার দিকে আগুন নিয়ন্ত্রণ আসে। এটি একটি কোরিয়ান জুতার ইনসোল তৈরির কারখানা। ওই কারখানার দ্বিতীয় তলা থেকে আগুনের সূত্রপাত হয়। সেখান জুতার অনেকগুলো ইনসোল ছিল। এখন ডাম্পিংয়ের কাজ চলছে। কেউ হতাহত হোয়ার খবর জানা যায়নি। তিনি বলেন, আগুন লাগার কারণ এখনো জানা যায়নি। ওই কারখানায় কনস্ট্রাকশনের কাজ চলছিল। শুক্রবার হওয়াতে তেমন শ্রমিকও ছিল না। আগুন লাগার কারণ ও ক্ষয়ক্ষতি তদন্ত সাপেক্ষে বলা যাবে।

 

জনপ্রিয় সংবাদ

চট্টগ্রামে জুতার কারখানায় ভয়াবহ আগুন

আপডেট সময় : ০৯:০৪:৫০ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ২৯ মার্চ ২০২৪

 

 

চট্টগ্রাম মহানগরীর বায়োজিদ থানাধীন টেক্সটাইল গেইট এলাকায় একটি বিদেশি জুতার ইনসোল তৈরির কারখানায় অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা ঘটেছে। খবর পেয়ে ফায়ার সার্ভিসের ৯ টি ইউনিট দুই ঘণ্টার চেষ্টায় আগুন নিয়ন্ত্রণে আনে।

 

 

শুক্রবার (২৯ মার্চ) বিকেল ৪টার দিকে এ আগুনের সূত্রপাত হয়। খবর পেয়ে ফায়ার সার্ভিসের ৯টি ইউনিট আগুন নিয়ন্ত্রণে একের পর এক করে ঘটনাস্থলে যোগ দেয়। পরে সন্ধ্যা ৬টার দিকে আগুন নিয়ন্ত্রণে আসে।

 

 

আগ্রাবাদ ফায়ার সার্ভিসের উপসহকারী পরিচালক আব্দুল্লাহ হারুন পাশা জানান, ৯টি ইউনিটের প্রায় দুঘণ্টা প্রচেষ্টা চালিয়ে সন্ধ্যা ৬টার দিকে আগুন নিয়ন্ত্রণ আসে। এটি একটি কোরিয়ান জুতার ইনসোল তৈরির কারখানা। ওই কারখানার দ্বিতীয় তলা থেকে আগুনের সূত্রপাত হয়। সেখান জুতার অনেকগুলো ইনসোল ছিল। এখন ডাম্পিংয়ের কাজ চলছে। কেউ হতাহত হোয়ার খবর জানা যায়নি। তিনি বলেন, আগুন লাগার কারণ এখনো জানা যায়নি। ওই কারখানায় কনস্ট্রাকশনের কাজ চলছিল। শুক্রবার হওয়াতে তেমন শ্রমিকও ছিল না। আগুন লাগার কারণ ও ক্ষয়ক্ষতি তদন্ত সাপেক্ষে বলা যাবে।