০৭:০৪ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ৩০ মে ২০২৪, ১৬ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

সিলেটে ভারি বৃষ্টিপাতে হাওর ও নদীর পানি বৃদ্ধির পূর্বাভাস

সিলেটে ভারি বৃষ্টিপাতে হাওর ও নদীর পানি বৃদ্ধির পূর্বাভাস পাওয়া গেছে। আবহাওয়া অধিদপ্তর  মে মাসের আবহাওয়ার দীর্ঘমেয়াদি পূর্বাভাস দিয়েছে। বলা হয়েছে, এ মাসে দেশের উত্তরাঞ্চল বা উত্তর-পূর্বাঞ্চলের (সিলেটসহ হাওর অঞ্চলে) নদ-নদীর পানি দ্রুত বাড়তে পারে। কিছু কিছু জায়গায় তা বিপদসীমা অতিক্রম করতে পারে।

অধিদপ্তরের পরিচালক মো. আজিজুর রহমান (২ মে) বৃহস্পতিবার এ পূর্বাভাস দেন। সেখানে মে মাসের গরম, তাপপ্রবাহ, বৃষ্টি, নিম্নচাপ, ঘূর্ণিঝড়-এসব বিষয়ে পূর্বাভাস দেওয়া হয়ছে।

পাউবো জানিয়েছে, ইতিমধ্যে সিলেটের নদী গুলোতে কিছু পানি বৃদ্ধি পেয়েছে। তবে তা বিপদসীমার অনেক নিচ দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে।
আবহাওয়া অধিদপ্তরের পূর্বাভাসে বলা হয়েছে, মে মাসে স্বাভাবিক বৃষ্টিই হতে পারে। দেশের  কোথাও কোথাও এক থেকে তিনটি মৃদু ও মাঝারি এবং এক থেকে দুটি তীব্র তাপপ্রবাহ বয়ে যেতে পারে। এ মাসে দিনের তাপমাত্রা স্বাভাবিকের চেয়ে  বেশি থাকবে বলেও জানিয়েছে আবহাওয়া অফিস।
সদ্য শেষ হওয়া এপ্রিল মাস জুড়ে দেশের বিভিন্ন স্থানে তাপ প্রবাহ বয়ে গেছে। এমন অবস্থা গত ৭৬ বছরে হয়নি বলে আবহাওয়া অফিস জানিয়েছিল।
তবে মে মাসের তাপমাত্রা এপ্রিল মাসের চেয়ে কিছুটা কম থাকবে বলে জানিয়েছেন আবহাওয়া অধিদপ্তরের পরিচালক মো. আজিজুর রহমান। তিনি বলেন, মে মাসে স্বাভাবিক বৃষ্টি হলেও তাপমাত্রা একটু বেশি থাকতে পারে বিদায় ভারি বৃষ্টিপাত হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে। মে মাসে তিন থেকে পাঁচ দিন হালকা ধরনের কালবৈশাখী হতে পারে বলে জানিয়েছে আবহাওয়া অফিস। আর দুই থেকে তিন দিন বজ্র-শিলাবৃষ্টিসহ মাঝারি ও তীব্র কালবৈশাখী হতে পারে।

চলতি মাসে বঙ্গোপসাগরে এক থেকে দুটি লঘুচাপ সৃষ্টি হতে পারে বলে জানিয়েছে আবহাওয়া অফিস। এ মাসের মাঝামাঝি সময়ে একটি নিম্নচাপ ঘূর্ণিঝড়ে রূপ নিতে পারে বলেও এ বার্তায় বলা হয়েছে।

সিলেটে ভারি বৃষ্টিপাতে হাওর ও নদীর পানি বৃদ্ধির পূর্বাভাস

আপডেট সময় : ০১:৫৮:১৪ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ৩ মে ২০২৪

সিলেটে ভারি বৃষ্টিপাতে হাওর ও নদীর পানি বৃদ্ধির পূর্বাভাস পাওয়া গেছে। আবহাওয়া অধিদপ্তর  মে মাসের আবহাওয়ার দীর্ঘমেয়াদি পূর্বাভাস দিয়েছে। বলা হয়েছে, এ মাসে দেশের উত্তরাঞ্চল বা উত্তর-পূর্বাঞ্চলের (সিলেটসহ হাওর অঞ্চলে) নদ-নদীর পানি দ্রুত বাড়তে পারে। কিছু কিছু জায়গায় তা বিপদসীমা অতিক্রম করতে পারে।

অধিদপ্তরের পরিচালক মো. আজিজুর রহমান (২ মে) বৃহস্পতিবার এ পূর্বাভাস দেন। সেখানে মে মাসের গরম, তাপপ্রবাহ, বৃষ্টি, নিম্নচাপ, ঘূর্ণিঝড়-এসব বিষয়ে পূর্বাভাস দেওয়া হয়ছে।

পাউবো জানিয়েছে, ইতিমধ্যে সিলেটের নদী গুলোতে কিছু পানি বৃদ্ধি পেয়েছে। তবে তা বিপদসীমার অনেক নিচ দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে।
আবহাওয়া অধিদপ্তরের পূর্বাভাসে বলা হয়েছে, মে মাসে স্বাভাবিক বৃষ্টিই হতে পারে। দেশের  কোথাও কোথাও এক থেকে তিনটি মৃদু ও মাঝারি এবং এক থেকে দুটি তীব্র তাপপ্রবাহ বয়ে যেতে পারে। এ মাসে দিনের তাপমাত্রা স্বাভাবিকের চেয়ে  বেশি থাকবে বলেও জানিয়েছে আবহাওয়া অফিস।
সদ্য শেষ হওয়া এপ্রিল মাস জুড়ে দেশের বিভিন্ন স্থানে তাপ প্রবাহ বয়ে গেছে। এমন অবস্থা গত ৭৬ বছরে হয়নি বলে আবহাওয়া অফিস জানিয়েছিল।
তবে মে মাসের তাপমাত্রা এপ্রিল মাসের চেয়ে কিছুটা কম থাকবে বলে জানিয়েছেন আবহাওয়া অধিদপ্তরের পরিচালক মো. আজিজুর রহমান। তিনি বলেন, মে মাসে স্বাভাবিক বৃষ্টি হলেও তাপমাত্রা একটু বেশি থাকতে পারে বিদায় ভারি বৃষ্টিপাত হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে। মে মাসে তিন থেকে পাঁচ দিন হালকা ধরনের কালবৈশাখী হতে পারে বলে জানিয়েছে আবহাওয়া অফিস। আর দুই থেকে তিন দিন বজ্র-শিলাবৃষ্টিসহ মাঝারি ও তীব্র কালবৈশাখী হতে পারে।

চলতি মাসে বঙ্গোপসাগরে এক থেকে দুটি লঘুচাপ সৃষ্টি হতে পারে বলে জানিয়েছে আবহাওয়া অফিস। এ মাসের মাঝামাঝি সময়ে একটি নিম্নচাপ ঘূর্ণিঝড়ে রূপ নিতে পারে বলেও এ বার্তায় বলা হয়েছে।