০৪:৫৫ পূর্বাহ্ন, রবিবার, ২৬ মে ২০২৪, ১১ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

সিলেটে টানা দু’দিন ধরে তাপপ্রবাহ বেড়েছে

সিলেটে টানা দু’দিন ধরে তাপপ্রবাহ বেড়েছে। তাপপ্রবাহ শুরু খবর দিয়েছে সিলেট আবহাওয়া অফিস। তাপমাত্রা দুই ডিগ্রি সেলসিয়াস পর্যন্ত বাড়তে পারে বলেও জানিয়েছে সংস্থাটি। তবে নতুন করে তাপপ্রবাহ শুরু হলেও তা গত এপ্রিল মাসের মত বিস্তুৃত এবং অতি তীব্র হওয়ার সম্ভাবনা নেই বলে জানিয়েছেন আবহাওয়াবিদরা। আবহাওয়া দপ্তরের তথ্য অনুযায়ী, মঙ্গলবার (১৪ মে)  থেকে গরম আরও বাড়তে পারে। এরমধ্যে সোমবার (১৩ মে) থেকে তাপমাত্রা কিছুটা  বেড়েছে।

সিলেট আবহাওয়া অফিস সূত্রে জানা গেছে, রোববার সিলেটের সর্বোচ্চ তাপমাত্রা ছিল ৩৪ দশমিক ৬ ডিগ্রি সেলসিয়াস।   সোমবার (১৩ মে) তাপামাত্রা বেড়ে দাঁড়িয়েছে ৩৫.২ ডিগ্রি সেলসিয়াস। এদিকে আবহাওয়াবিদ হাফিজুর রহমান জানান, সোমবার (১৩ মে) সকাল থেকে আগামী ২৪ ঘণ্টায় রংপুর, রাজশাহী ঢাকা, ময়মনসিংহ, খুলনা, বরিশাল ও সিলেট বিভাগ সমূহের দু’এক জায়গায় অস্থায়ী ভাবে দমকা বা ঝড়ো হাওয়াসহ বৃষ্টি বা বজ্রসহ বৃষ্টি হতে পারে। এছাড়া দেশের অন্যত্র অস্থায়ী ভাবে আংশিক মেঘলা আকাশসহ আবহাওয়া প্রধানত শুষ্ক থাকতে পারে। এ সময়ে সারাদেশে দিনের তাপমাত্রা ১ থেকে ২ ডিগ্রি সেলসিয়াস বাড়তে পারে এবং রাতের তাপমাত্রা সামান্য বাড়তে পারে বলেও জানিয়েছেন তিনি।

মঙ্গলবারও সারাদেশে দিন এবং রাতের তাপমাত্রা ১ থেকে ২ ডিগ্রি সেলসিয়াস বাড়তে পারে বলেও পূর্বাভাসে জানিয়েছে আবহাওয়া অধিদপ্তর। মঙ্গলবার সন্ধ্যা ৬টা পর্যন্ত দেশের অভ্যন্তরীণ নদী বন্দর গুলোর জন্য আবহাওয়ার পূর্বাভাসে বলা হয়েছে, খুলনা, ময়মনসিংহ এবং সিলেট অঞ্চলের ওপর দিয়ে পশ্চিম বা উত্তর-পশ্চিম দিক থেকে ঘণ্টায় ৪৫ থেকে ৬০ কি. মি বেগে দমকা বা ঝড়ো হাওয়াসহ অস্থায়ী ভাবে বৃষ্টি বা বজ্রসহ বৃষ্টি হতে পারে। এসব এলাকার নৌ বন্দরগুলোকে ১ নম্বর সংকেত দেখাতে বলা হয়েছে।
উল্রেখ্য, গত ৩১ মার্চ শুরু হয়ে ৬ মে পর্যন্ত টানা ৩৭ দিন দেশের ওপর দিয়ে বয়ে গেছে তাপ প্রবাহ। সে সময় কোথাও  কোথাও সর্বোচ্চ তাপমাত্রা ৪২ ডিগ্রি সেলসিয়াস পার হয়ে তাপ প্রবাহ অতি তীব্র আকার ধারণ করেছিল। তীব্র গরমে কষ্ট অতিষ্ঠ হয়ে পড়েছিল জনজীবন।

ঘূর্ণিঝড় রেমাল মোকাবেলায় কতটুকু প্রস্তুত পবিপ্রবি?

সিলেটে টানা দু’দিন ধরে তাপপ্রবাহ বেড়েছে

আপডেট সময় : ০৩:৫১:৪৬ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ১৪ মে ২০২৪

সিলেটে টানা দু’দিন ধরে তাপপ্রবাহ বেড়েছে। তাপপ্রবাহ শুরু খবর দিয়েছে সিলেট আবহাওয়া অফিস। তাপমাত্রা দুই ডিগ্রি সেলসিয়াস পর্যন্ত বাড়তে পারে বলেও জানিয়েছে সংস্থাটি। তবে নতুন করে তাপপ্রবাহ শুরু হলেও তা গত এপ্রিল মাসের মত বিস্তুৃত এবং অতি তীব্র হওয়ার সম্ভাবনা নেই বলে জানিয়েছেন আবহাওয়াবিদরা। আবহাওয়া দপ্তরের তথ্য অনুযায়ী, মঙ্গলবার (১৪ মে)  থেকে গরম আরও বাড়তে পারে। এরমধ্যে সোমবার (১৩ মে) থেকে তাপমাত্রা কিছুটা  বেড়েছে।

সিলেট আবহাওয়া অফিস সূত্রে জানা গেছে, রোববার সিলেটের সর্বোচ্চ তাপমাত্রা ছিল ৩৪ দশমিক ৬ ডিগ্রি সেলসিয়াস।   সোমবার (১৩ মে) তাপামাত্রা বেড়ে দাঁড়িয়েছে ৩৫.২ ডিগ্রি সেলসিয়াস। এদিকে আবহাওয়াবিদ হাফিজুর রহমান জানান, সোমবার (১৩ মে) সকাল থেকে আগামী ২৪ ঘণ্টায় রংপুর, রাজশাহী ঢাকা, ময়মনসিংহ, খুলনা, বরিশাল ও সিলেট বিভাগ সমূহের দু’এক জায়গায় অস্থায়ী ভাবে দমকা বা ঝড়ো হাওয়াসহ বৃষ্টি বা বজ্রসহ বৃষ্টি হতে পারে। এছাড়া দেশের অন্যত্র অস্থায়ী ভাবে আংশিক মেঘলা আকাশসহ আবহাওয়া প্রধানত শুষ্ক থাকতে পারে। এ সময়ে সারাদেশে দিনের তাপমাত্রা ১ থেকে ২ ডিগ্রি সেলসিয়াস বাড়তে পারে এবং রাতের তাপমাত্রা সামান্য বাড়তে পারে বলেও জানিয়েছেন তিনি।

মঙ্গলবারও সারাদেশে দিন এবং রাতের তাপমাত্রা ১ থেকে ২ ডিগ্রি সেলসিয়াস বাড়তে পারে বলেও পূর্বাভাসে জানিয়েছে আবহাওয়া অধিদপ্তর। মঙ্গলবার সন্ধ্যা ৬টা পর্যন্ত দেশের অভ্যন্তরীণ নদী বন্দর গুলোর জন্য আবহাওয়ার পূর্বাভাসে বলা হয়েছে, খুলনা, ময়মনসিংহ এবং সিলেট অঞ্চলের ওপর দিয়ে পশ্চিম বা উত্তর-পশ্চিম দিক থেকে ঘণ্টায় ৪৫ থেকে ৬০ কি. মি বেগে দমকা বা ঝড়ো হাওয়াসহ অস্থায়ী ভাবে বৃষ্টি বা বজ্রসহ বৃষ্টি হতে পারে। এসব এলাকার নৌ বন্দরগুলোকে ১ নম্বর সংকেত দেখাতে বলা হয়েছে।
উল্রেখ্য, গত ৩১ মার্চ শুরু হয়ে ৬ মে পর্যন্ত টানা ৩৭ দিন দেশের ওপর দিয়ে বয়ে গেছে তাপ প্রবাহ। সে সময় কোথাও  কোথাও সর্বোচ্চ তাপমাত্রা ৪২ ডিগ্রি সেলসিয়াস পার হয়ে তাপ প্রবাহ অতি তীব্র আকার ধারণ করেছিল। তীব্র গরমে কষ্ট অতিষ্ঠ হয়ে পড়েছিল জনজীবন।