০৫:২১ পূর্বাহ্ন, শুক্রবার, ২১ জুন ২০২৪, ৬ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

বিএনপির কর্মসূচির দিনে ভোলায় আওয়ামীলীগের  শান্তি ও উন্নয়ন শোভাযাত্রা

ভোলায় বিএনপির অবোরধ কর্মসূচির দিনে শান্তি ও উন্নয়ন শোভাযাত্রা করেছে আওয়ামীলীগ। রবিবার সকালে ভোলা-২ আসনের সংসদ সদস্য আলী  আজম মুকুল এর নেতৃত্বে শান্তি ও উন্নয়ন শোভাযাত্রা  অনুষ্ঠিত হয়। শোভাযাত্রায়
আওয়ামী লীগ সরকারের টানা ১৫ বছরের উন্নয়নমূলক কর্মকান্ড তুলে ধরে শোভাযাত্রা করে  দৌলতখান-বোরহানউদ্দিন উপজেলা আওয়ামী লীগ ও সব সহযোগী সংগঠন।

শোভাযাত্রার ভোলার ইলিশা লঞ্চঘাট থেকে শুরু হয়ে বোরহানউদ্দিনে গিয়ে শেষ হয়। শান্তি শোভাযাত্রায় দুটি উপজেলার   শত শত মোটরসাইকেল নিয়ে নেতা কর্মীরা শোভাযাত্রায় অংশ নেয়।

এসময় সংসদ সদস্য আলী  আজম মুকুল  বলেন,হরতাল, অবরোধ,আগুন সন্ত্রাস,বোমাবাজি করে কোনো লাভ হবে না। আওয়ামী লীগের শিকড় অনেক গভীরে। তাদের ধাক্কা দিয়ে নাড়ানো যাবে না। আর খুনিদের সঙ্গে কোনো সংলাপ হতে পারে না।
আলী আজম মুকুল বলেন, বাংলাদেশের মানুষ বিএনপিকে চিনে ফেলেছে।দেশের মানুষ এখন আর হরতাল-অবরোধ বিশ্বাস করে না। মানুষ মনে করে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ক্ষমতায় থাকলে দেশের মানুষ নিরাপদে থাকবে। বিএনপি  দেশকে পাকিস্তান বানাতে চায়, তারা শান্তির জনপদকে অশান্ত করতে চায়।

এ সময় আরও উপস্থিত ছিলেন,বোরহানউদ্দিন উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান আবুল কালাম আজাদ,পৌর মেয়র রফিকুল ইসলাম,দৌলতখান উপজেলা উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান মঞ্জুর আলম খান,পৌর মেয়র জাকির হোসেন তালুকদার  প্রমুখ।
বিএনপি ও জামায়াতের নৈরাজ্যের প্রতিবাদে অনুষ্ঠিত শান্তি শোভাযাত্রায় দুই উপজেলার আওয়ামী লীগ, যুবলীগ ও ছাত্রলীগসহ দলীয়  নেতাকর্মীরা উপস্থিত ছিলেন।

জনপ্রিয় সংবাদ

শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে গ্রীষ্মের ছুটি কমল

বিএনপির কর্মসূচির দিনে ভোলায় আওয়ামীলীগের  শান্তি ও উন্নয়ন শোভাযাত্রা

আপডেট সময় : ০১:০৫:৫৩ অপরাহ্ন, রবিবার, ৫ নভেম্বর ২০২৩

ভোলায় বিএনপির অবোরধ কর্মসূচির দিনে শান্তি ও উন্নয়ন শোভাযাত্রা করেছে আওয়ামীলীগ। রবিবার সকালে ভোলা-২ আসনের সংসদ সদস্য আলী  আজম মুকুল এর নেতৃত্বে শান্তি ও উন্নয়ন শোভাযাত্রা  অনুষ্ঠিত হয়। শোভাযাত্রায়
আওয়ামী লীগ সরকারের টানা ১৫ বছরের উন্নয়নমূলক কর্মকান্ড তুলে ধরে শোভাযাত্রা করে  দৌলতখান-বোরহানউদ্দিন উপজেলা আওয়ামী লীগ ও সব সহযোগী সংগঠন।

শোভাযাত্রার ভোলার ইলিশা লঞ্চঘাট থেকে শুরু হয়ে বোরহানউদ্দিনে গিয়ে শেষ হয়। শান্তি শোভাযাত্রায় দুটি উপজেলার   শত শত মোটরসাইকেল নিয়ে নেতা কর্মীরা শোভাযাত্রায় অংশ নেয়।

এসময় সংসদ সদস্য আলী  আজম মুকুল  বলেন,হরতাল, অবরোধ,আগুন সন্ত্রাস,বোমাবাজি করে কোনো লাভ হবে না। আওয়ামী লীগের শিকড় অনেক গভীরে। তাদের ধাক্কা দিয়ে নাড়ানো যাবে না। আর খুনিদের সঙ্গে কোনো সংলাপ হতে পারে না।
আলী আজম মুকুল বলেন, বাংলাদেশের মানুষ বিএনপিকে চিনে ফেলেছে।দেশের মানুষ এখন আর হরতাল-অবরোধ বিশ্বাস করে না। মানুষ মনে করে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ক্ষমতায় থাকলে দেশের মানুষ নিরাপদে থাকবে। বিএনপি  দেশকে পাকিস্তান বানাতে চায়, তারা শান্তির জনপদকে অশান্ত করতে চায়।

এ সময় আরও উপস্থিত ছিলেন,বোরহানউদ্দিন উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান আবুল কালাম আজাদ,পৌর মেয়র রফিকুল ইসলাম,দৌলতখান উপজেলা উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান মঞ্জুর আলম খান,পৌর মেয়র জাকির হোসেন তালুকদার  প্রমুখ।
বিএনপি ও জামায়াতের নৈরাজ্যের প্রতিবাদে অনুষ্ঠিত শান্তি শোভাযাত্রায় দুই উপজেলার আওয়ামী লীগ, যুবলীগ ও ছাত্রলীগসহ দলীয়  নেতাকর্মীরা উপস্থিত ছিলেন।