১০:১৩ অপরাহ্ন, রবিবার, ০৩ মার্চ ২০২৪, ২০ ফাল্গুন ১৪৩০ বঙ্গাব্দ

ব্যাটিংয়ে লড়াইয়ের পুঁজি পেল খুলনা

আসরের বেশির ভাগ ম্যাচেই ব্যাটিংয়ে এভিন লুইসের ব্যাটে শক্ত ভিত পেয়েছে খুলনা টাইগার্স। এই ক্যারিবিয়ান ওপেনারের অনুপস্থিতি আজ ভুগিয়েছে টাইগার্সদের। টপ অর্ডার ব্যাটারদের ব্যর্থতার দিনে অবশ্য দুর্দান্ত ব্যাটিং করেছেন মোহাম্মদ নাওয়াজ ও ফাহিম আশরাফ। এই দুই পাকিস্তানির ঝোড়ো ব্যাটিংয়ে লড়াই করার পুঁজি পেয়েছে খুলনা।

আজ শনিবার (৩ ফেব্রুয়ারি) সিলেট আন্তর্জাতিক ক্রিকেট স্টেডিয়ামে টস হেরে আগে ব্যাটিং করতে নেমে নির্ধারিত ২০ ওভারে ৭ উইকেট হারিয়ে ১৫৪ রান সংগ্রহ করেছে খুলনা। দলের হয়ে সর্বোচ্চ অপরাজিত ৩৮ রান করেছেন নাওয়াজ।

ইনফর্ম এনামুল হক বিজয়কে আজ দাঁড়াতেই দেয়নি ফরচুন বরিশাল। ইনিংসের তৃতীয় ওভারের শেষ বলে টাইগার্স অধিনায়ককে বোল্ড করেন আকিফ জাভেদ। সাজঘরে ফেরার আগে বিজয়ের ব্যাট থেকে এসেছে ১৩ বলে ১২ রান।

তিনে নেমে সুবিধা করতে পারেননি হাবিবুর রহমান সোহান। ৭ বল খেলে করতে পেরেছেন কেবল ২ রান। সোহানের মতৈ এদিন ব্যর্থ ছিলেন মাহমুদুল হাসান জয়, আফিফ হোসেন ও দাসুন শানাকারা। ফলে ৮৮ রান তুলতেই সাজঘরে ফেরেন সাত ব্যাটার।

তবে অষ্টম উইকেট জুটিতে ফাহিম আশরাফ ও মোহাম্মদ নাওয়াজ মিলে যোগ করেন ২৪ বলে ৬৭ রান। ফাহিম ১৩ বলে করেছেন ৩২ রান। আর নাওয়াজ অপরাজিত ছিলেন ২৩ বলে ৩৮ রান করে। বরিশালের হয়ে ২টি করে উইকেট পেয়েছেন তাইজুল ইসলাম ও শোয়েব মালিক।

 

 

 

স/ম

ব্যাটিংয়ে লড়াইয়ের পুঁজি পেল খুলনা

আপডেট সময় : ০৩:৩২:৫৮ অপরাহ্ন, শনিবার, ৩ ফেব্রুয়ারী ২০২৪

আসরের বেশির ভাগ ম্যাচেই ব্যাটিংয়ে এভিন লুইসের ব্যাটে শক্ত ভিত পেয়েছে খুলনা টাইগার্স। এই ক্যারিবিয়ান ওপেনারের অনুপস্থিতি আজ ভুগিয়েছে টাইগার্সদের। টপ অর্ডার ব্যাটারদের ব্যর্থতার দিনে অবশ্য দুর্দান্ত ব্যাটিং করেছেন মোহাম্মদ নাওয়াজ ও ফাহিম আশরাফ। এই দুই পাকিস্তানির ঝোড়ো ব্যাটিংয়ে লড়াই করার পুঁজি পেয়েছে খুলনা।

আজ শনিবার (৩ ফেব্রুয়ারি) সিলেট আন্তর্জাতিক ক্রিকেট স্টেডিয়ামে টস হেরে আগে ব্যাটিং করতে নেমে নির্ধারিত ২০ ওভারে ৭ উইকেট হারিয়ে ১৫৪ রান সংগ্রহ করেছে খুলনা। দলের হয়ে সর্বোচ্চ অপরাজিত ৩৮ রান করেছেন নাওয়াজ।

ইনফর্ম এনামুল হক বিজয়কে আজ দাঁড়াতেই দেয়নি ফরচুন বরিশাল। ইনিংসের তৃতীয় ওভারের শেষ বলে টাইগার্স অধিনায়ককে বোল্ড করেন আকিফ জাভেদ। সাজঘরে ফেরার আগে বিজয়ের ব্যাট থেকে এসেছে ১৩ বলে ১২ রান।

তিনে নেমে সুবিধা করতে পারেননি হাবিবুর রহমান সোহান। ৭ বল খেলে করতে পেরেছেন কেবল ২ রান। সোহানের মতৈ এদিন ব্যর্থ ছিলেন মাহমুদুল হাসান জয়, আফিফ হোসেন ও দাসুন শানাকারা। ফলে ৮৮ রান তুলতেই সাজঘরে ফেরেন সাত ব্যাটার।

তবে অষ্টম উইকেট জুটিতে ফাহিম আশরাফ ও মোহাম্মদ নাওয়াজ মিলে যোগ করেন ২৪ বলে ৬৭ রান। ফাহিম ১৩ বলে করেছেন ৩২ রান। আর নাওয়াজ অপরাজিত ছিলেন ২৩ বলে ৩৮ রান করে। বরিশালের হয়ে ২টি করে উইকেট পেয়েছেন তাইজুল ইসলাম ও শোয়েব মালিক।

 

 

 

স/ম