০৮:৪৯ অপরাহ্ন, রবিবার, ১৪ এপ্রিল ২০২৪, ১ বৈশাখ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

মুন্সিগঞ্জে ব্যবসা প্রতিষ্ঠানে আক্রমণ নগদ অর্থ ছিনতাই সহ ভাংচুর করার অভিযোগ

মুন্সিগঞ্জের গজারিয়ায় পূর্ব শত্রুতার জেড়ে ব্যবসা প্রতিষ্ঠানে আক্রমণ দুই ব্যবসায়ীকে মারধর করে নগদ অর্থ লুটকরাসহ দোকানের মালামাল ভাংচুর করার অভিযোগ উঠেছে পরে ৯৯৯ কল দিয়ে পুলিশের সহতায় রক্ষা পেয়েছে ব্যবসায়ীরা।
অভিযুক্ত ব্যক্তিরা হল মোঃ রেনু মিয়া (৩৬), পিতা- মৃত সিদ্দিকুর রহমান, মোঃ আব্দুর রব (৪৫), পিতা- মিয়া চাঁন, মোঃ মতিউর রহমান (৬২), পিতা- মৃত আজগর আলী, ১৯ (মার্চ) মঙ্গলবার সকালে উপজেলার হোসেন্দী ইউনিয়নের জামালদি বাস স্ট্যান্ডের তিন রাস্তার মোড়ে হাজী জিন্নত আলী মার্কেটে ফলমূল এবং পল্ট্রি মুরগীর দুই দোকানদার শান্তি ও তার ছোট ভাই স্বাধীন এর উপর অতর্কিত হামলা চালিয়ে রেনু মিয়া,আব্দুল রব,মতিউর রহমান শরীরে নীলাফোঁলা জখম করে। ঘটনার পর শান্ত ও স্বাধীন কে উদ্ধার করে গজারিয়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স নিয়ে গেলে সেখানে প্রাথমিক চিকিৎসা শেষে গজারিয়া থানায় এসে শান্ত একটি লিখিত অভিযোগ করেন।
এ বিষয়ে আভিযোগ কারী শান্ত বলেন,আমার পরিবারের লোকজনের সাথে দীর্ঘদিন যাবৎ জায়গা জমি নিয়ে বিরুদ্ধ চলতেছে। বিরোধ সংক্রাগতততন্তে বিভিন্ন তারিখ ও সময় আমাদের ভয়ভীতি ও মিথ্যা মামলা দিয়া হয়রানী করার হুমকি দেওয়া হয়েছে। আমি ও আমার ছোট ভাই স্বাধীন (২২) উপজেলার হোসেন্দী ইউনিয়নের অদন্তর্গত জামালদী বাস স্ট্যান্ডের ফলমূল এবং পল্ট্রি মুরগীর দোকান দিয়া ব্যবসা করে আসছি। মঙ্গলবার সকাল অনুমানিক ০৮.৩০ এর দিকে পূর্ব শত্রুতার জের ধরে  আমাদের ব্যবসা প্রতিষ্ঠানের সামনে পাকা রাস্তার উপর  আমাকে এবং আমার ছোট ভাই স্বাধীনকে উদ্দেশ্য করে অকথ্য ভাষায় গালিগালাজ করতে থাকে। আমি তাদের গালিগালাজ করতে নিষেধ করলে তারা আমাদের দোকানের ভিতরে প্রবেশ করে দোকনের বিভিন্ন জিনিসপত্র ভাংচুর করে, বিভিন্ন ধরনের সব্জি, ফলমূলসহ চার খাচি ডিম ভেঙ্গে ফেলে এতে অনুমানিক ৫০,০০০/- (পঞ্চাশ হাজার) টাকার ক্ষতি সাধন করে। এক পর্যায়ে আমি ও আমার ছোট ভাই তাদের বাধা প্রদান করলে তারা আমাদের এলোপাথারী ভাবে আঘাত করে শরীরের বিভিন্ন স্থানে নীলাফুলা জখম করে। তাছাড়া আব্দুল রব আমার ছোট ভাইকে পিছন থেকে ঝাপটাইয়া ধরে রাখে এবং রেনু মিয়া  আমার দোকানের ক্যাশবক্সে থাকা নগদ ৫৭,৩৪০ টাকা নিয়া যায়। পরে আমাদের ডাক চিৎকারে আশপাশের লোকজন আগিয়ে এসে। পরে হামলাকারীরা চলে যাওয়ার সময় আমাদের প্রানে মারিয়া লাশ গুম করিয়া ফেলার হুমকি প্রদান করে। উপস্থিত লোকজনের সহায়াতায় গজারিয়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স হাসপাতালে যাইয়া চিকিৎসা গ্রহন করি। কিছুটা সুস্থ্য হইয়া বিষয়টি এলাকার গন্যমান্য ব্যক্তিদের জানিয়ে থানায় এসে অভিযোগ দায়ের করি।
তবে অভিযুক্ত ব্যক্তি মো: রেনু মিয়া জানান,তাদের সঙ্গে আমাদের মামলা চললে জমিসংক্রান্ত বিষয়ে।সে জের ধরে আজ এ মিথ্যা অভিযোগ করছে তারা।
জনপ্রিয় সংবাদ

মুন্সিগঞ্জে ব্যবসা প্রতিষ্ঠানে আক্রমণ নগদ অর্থ ছিনতাই সহ ভাংচুর করার অভিযোগ

আপডেট সময় : ১১:১২:০২ পূর্বাহ্ন, বুধবার, ২০ মার্চ ২০২৪
মুন্সিগঞ্জের গজারিয়ায় পূর্ব শত্রুতার জেড়ে ব্যবসা প্রতিষ্ঠানে আক্রমণ দুই ব্যবসায়ীকে মারধর করে নগদ অর্থ লুটকরাসহ দোকানের মালামাল ভাংচুর করার অভিযোগ উঠেছে পরে ৯৯৯ কল দিয়ে পুলিশের সহতায় রক্ষা পেয়েছে ব্যবসায়ীরা।
অভিযুক্ত ব্যক্তিরা হল মোঃ রেনু মিয়া (৩৬), পিতা- মৃত সিদ্দিকুর রহমান, মোঃ আব্দুর রব (৪৫), পিতা- মিয়া চাঁন, মোঃ মতিউর রহমান (৬২), পিতা- মৃত আজগর আলী, ১৯ (মার্চ) মঙ্গলবার সকালে উপজেলার হোসেন্দী ইউনিয়নের জামালদি বাস স্ট্যান্ডের তিন রাস্তার মোড়ে হাজী জিন্নত আলী মার্কেটে ফলমূল এবং পল্ট্রি মুরগীর দুই দোকানদার শান্তি ও তার ছোট ভাই স্বাধীন এর উপর অতর্কিত হামলা চালিয়ে রেনু মিয়া,আব্দুল রব,মতিউর রহমান শরীরে নীলাফোঁলা জখম করে। ঘটনার পর শান্ত ও স্বাধীন কে উদ্ধার করে গজারিয়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স নিয়ে গেলে সেখানে প্রাথমিক চিকিৎসা শেষে গজারিয়া থানায় এসে শান্ত একটি লিখিত অভিযোগ করেন।
এ বিষয়ে আভিযোগ কারী শান্ত বলেন,আমার পরিবারের লোকজনের সাথে দীর্ঘদিন যাবৎ জায়গা জমি নিয়ে বিরুদ্ধ চলতেছে। বিরোধ সংক্রাগতততন্তে বিভিন্ন তারিখ ও সময় আমাদের ভয়ভীতি ও মিথ্যা মামলা দিয়া হয়রানী করার হুমকি দেওয়া হয়েছে। আমি ও আমার ছোট ভাই স্বাধীন (২২) উপজেলার হোসেন্দী ইউনিয়নের অদন্তর্গত জামালদী বাস স্ট্যান্ডের ফলমূল এবং পল্ট্রি মুরগীর দোকান দিয়া ব্যবসা করে আসছি। মঙ্গলবার সকাল অনুমানিক ০৮.৩০ এর দিকে পূর্ব শত্রুতার জের ধরে  আমাদের ব্যবসা প্রতিষ্ঠানের সামনে পাকা রাস্তার উপর  আমাকে এবং আমার ছোট ভাই স্বাধীনকে উদ্দেশ্য করে অকথ্য ভাষায় গালিগালাজ করতে থাকে। আমি তাদের গালিগালাজ করতে নিষেধ করলে তারা আমাদের দোকানের ভিতরে প্রবেশ করে দোকনের বিভিন্ন জিনিসপত্র ভাংচুর করে, বিভিন্ন ধরনের সব্জি, ফলমূলসহ চার খাচি ডিম ভেঙ্গে ফেলে এতে অনুমানিক ৫০,০০০/- (পঞ্চাশ হাজার) টাকার ক্ষতি সাধন করে। এক পর্যায়ে আমি ও আমার ছোট ভাই তাদের বাধা প্রদান করলে তারা আমাদের এলোপাথারী ভাবে আঘাত করে শরীরের বিভিন্ন স্থানে নীলাফুলা জখম করে। তাছাড়া আব্দুল রব আমার ছোট ভাইকে পিছন থেকে ঝাপটাইয়া ধরে রাখে এবং রেনু মিয়া  আমার দোকানের ক্যাশবক্সে থাকা নগদ ৫৭,৩৪০ টাকা নিয়া যায়। পরে আমাদের ডাক চিৎকারে আশপাশের লোকজন আগিয়ে এসে। পরে হামলাকারীরা চলে যাওয়ার সময় আমাদের প্রানে মারিয়া লাশ গুম করিয়া ফেলার হুমকি প্রদান করে। উপস্থিত লোকজনের সহায়াতায় গজারিয়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স হাসপাতালে যাইয়া চিকিৎসা গ্রহন করি। কিছুটা সুস্থ্য হইয়া বিষয়টি এলাকার গন্যমান্য ব্যক্তিদের জানিয়ে থানায় এসে অভিযোগ দায়ের করি।
তবে অভিযুক্ত ব্যক্তি মো: রেনু মিয়া জানান,তাদের সঙ্গে আমাদের মামলা চললে জমিসংক্রান্ত বিষয়ে।সে জের ধরে আজ এ মিথ্যা অভিযোগ করছে তারা।