০৯:১১ অপরাহ্ন, রবিবার, ১৪ এপ্রিল ২০২৪, ১ বৈশাখ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

চট্টগ্রামের রাংগুনিয়ায় ভয়াবহ অগ্নিকাণ্ড

 চট্টগ্রাম জেলার রাঙ্গুনিয়ায় ভয়াবহ অগ্নিকাণ্ডের ঘটনায় পুড়ে গেছে ৬টি দোকান ও বসতঘর। শুক্রবার (২৯ মার্চ) দিবাগত রাত দেড়টার দিকে চন্দ্রঘোনা সেগুনবাগান এলাকায় এই অগ্নিকাণ্ড ঘটেছে।

 

বৈদ্যুতিক শর্ট সার্কিট থেকে এই অগ্নিকাণ্ডের সুত্রপাত হয়েছে। এতে ১২ লক্ষাধিক টাকার ক্ষতি হয়েছে বলে দাবি ক্ষতিগ্রস্তদের। খবর পেয়ে ফায়ার সার্ভিসের কর্মীরা ঘটনাস্থলে এসে আগুন নিয়ন্ত্রণে আনেন। রাঙ্গুনিয়া ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্স স্টেশন সূত্রে জানা গেছে, রাত দেড়টার দিকে সেগুনবাগান কলাবাইজ্জাঘোনা এলাকায় একটি ঘরে হঠাৎ আগুন ধরে যায়। মুহুর্তে আগুন পাশের ঘর ও দোকানগুলোতে ছড়িয়ে পড়ে। এতে মোমিন উদ্দিন, মো. জসিম উদ্দিনের সেমিপাকা দোকান এবং মো. ইউসুফ ও দিদারুল আলমের একটি করে দুটি সেমিপাকা দোকান এবং তাদের দুটি বসতঘর পুড়ে যায়। তবে এসময় কেউ হতাহত হয়নি।

 

 

রাঙ্গুনিয়া ফায়ার সার্ভিসের স্টেশন কর্মকর্তা মো. কামরুজ্জামান সুমন জানান, রাত দেড়টার দিকে খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে গিয়ে দীর্ঘ দেড় ঘন্টার চেষ্টায় আগুন নেভানো হয়। বৈদ্যুতিক শর্ট সার্কিট থেকে এই অগ্নিকাণ্ডের সূত্রপাত হয়েছে বলে ধারণা করা হচ্ছে। এদিকে শনিবার (৩০ মার্চ) অগ্নিকান্ডে ক্ষতিগ্রস্তদের নিত্য প্রয়োজনীয় সহায়তা দিয়েছে স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান মুহাম্মদ ইদ্রিস আজগর।

 

জনপ্রিয় সংবাদ

চট্টগ্রামের রাংগুনিয়ায় ভয়াবহ অগ্নিকাণ্ড

আপডেট সময় : ০৮:১১:১৯ অপরাহ্ন, শনিবার, ৩০ মার্চ ২০২৪

 চট্টগ্রাম জেলার রাঙ্গুনিয়ায় ভয়াবহ অগ্নিকাণ্ডের ঘটনায় পুড়ে গেছে ৬টি দোকান ও বসতঘর। শুক্রবার (২৯ মার্চ) দিবাগত রাত দেড়টার দিকে চন্দ্রঘোনা সেগুনবাগান এলাকায় এই অগ্নিকাণ্ড ঘটেছে।

 

বৈদ্যুতিক শর্ট সার্কিট থেকে এই অগ্নিকাণ্ডের সুত্রপাত হয়েছে। এতে ১২ লক্ষাধিক টাকার ক্ষতি হয়েছে বলে দাবি ক্ষতিগ্রস্তদের। খবর পেয়ে ফায়ার সার্ভিসের কর্মীরা ঘটনাস্থলে এসে আগুন নিয়ন্ত্রণে আনেন। রাঙ্গুনিয়া ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্স স্টেশন সূত্রে জানা গেছে, রাত দেড়টার দিকে সেগুনবাগান কলাবাইজ্জাঘোনা এলাকায় একটি ঘরে হঠাৎ আগুন ধরে যায়। মুহুর্তে আগুন পাশের ঘর ও দোকানগুলোতে ছড়িয়ে পড়ে। এতে মোমিন উদ্দিন, মো. জসিম উদ্দিনের সেমিপাকা দোকান এবং মো. ইউসুফ ও দিদারুল আলমের একটি করে দুটি সেমিপাকা দোকান এবং তাদের দুটি বসতঘর পুড়ে যায়। তবে এসময় কেউ হতাহত হয়নি।

 

 

রাঙ্গুনিয়া ফায়ার সার্ভিসের স্টেশন কর্মকর্তা মো. কামরুজ্জামান সুমন জানান, রাত দেড়টার দিকে খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে গিয়ে দীর্ঘ দেড় ঘন্টার চেষ্টায় আগুন নেভানো হয়। বৈদ্যুতিক শর্ট সার্কিট থেকে এই অগ্নিকাণ্ডের সূত্রপাত হয়েছে বলে ধারণা করা হচ্ছে। এদিকে শনিবার (৩০ মার্চ) অগ্নিকান্ডে ক্ষতিগ্রস্তদের নিত্য প্রয়োজনীয় সহায়তা দিয়েছে স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান মুহাম্মদ ইদ্রিস আজগর।