০৫:২৯ পূর্বাহ্ন, সোমবার, ২২ এপ্রিল ২০২৪, ৮ বৈশাখ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

কুবিতে সহকারী প্রক্টরের পদত্যাগ 

ব্যক্তিগত কারণ দেখিয়ে কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয়ের (কুবি) সহকারী প্রক্টর পদ থেকে পদত্যাগ করেছেন নৃবিজ্ঞান বিভাগের সহকারী অধ্যাপক হাসেনা বেগম। সোমবার (১ মার্চ) রেজিস্ট্রার বরাবর প্রেরিত এক পদত্যাগপত্র থেকে এই তথ্য জানা যায়।
পদত্যাগপত্রে তিনি বলেন, ‘ব্যক্তিগত কারণে বর্তমানে উক্ত পদে দায়িত্ব পালনে অপারগতা প্রকাশ করছি। তবে আমি ভবিষ্যতে বিশ্ববিদ্যালয়ের ও শিক্ষার্থীদের স্বার্থ সংশ্লিষ্ট যে কোনো দায়িত্ব নিষ্ঠার সাথে পালন করার অঙ্গিকার ব্যক্ত করছি’।
এর  আগে গত ০৬ ফেব্রুয়ারি বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান হলের প্রাধ্যক্ষ অধ্যাপক তোফায়েল হোসেন মজুমদার, ০৭ ফেব্রুয়ারি বিশ্ববিদ্যালয়ের গণমাধ্যম উপদেষ্টা মাহবুবুল হক ভূঁইয়া, ১৮ ফেব্রুয়ারি সহকারী প্রক্টর মাহমুদুল হাসান এবং ২০ ফেব্রুয়ারি সহকারী প্রক্টর মো: কামরুল হাসান ও শেখ হাসিনা হলের আবাসিক শিক্ষক কুলছুম আক্তার স্বপ্না পদত্যাগ করেন। এছাড়াও ১৯ মার্চ সিন্ডিকেট সভায় ‘এজেন্ডা বহির্ভূত ও বেআইনীভাবে ডিন নিয়োগ’ দেয়ার কারণ দেখিয়ে সিন্ডিকেট সদস্যর পদ থেকে  অধ্যাপক ড. শেখ মকছেদুর রহমান পদত্যাগ করেন। গত ২০ মার্চ চার হলের চার আবাসিক শিক্ষক পদত্যাগ করেছেন। সর্বশেষ গত ২৮ মার্চ পদত্যাগ করেছেন বিশ্ববিদ্যালয়ের ক্রীড়া পরিচালনা কমিটির আহ্বায়ক ও বিশ্ববিদ্যালয় ক্রীড়া প্রতিনিধি মোহাম্মদ আইনুল হক।
জনপ্রিয় সংবাদ

কুবিতে সহকারী প্রক্টরের পদত্যাগ 

আপডেট সময় : ০৩:৪৬:১৫ অপরাহ্ন, সোমবার, ১ এপ্রিল ২০২৪
ব্যক্তিগত কারণ দেখিয়ে কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয়ের (কুবি) সহকারী প্রক্টর পদ থেকে পদত্যাগ করেছেন নৃবিজ্ঞান বিভাগের সহকারী অধ্যাপক হাসেনা বেগম। সোমবার (১ মার্চ) রেজিস্ট্রার বরাবর প্রেরিত এক পদত্যাগপত্র থেকে এই তথ্য জানা যায়।
পদত্যাগপত্রে তিনি বলেন, ‘ব্যক্তিগত কারণে বর্তমানে উক্ত পদে দায়িত্ব পালনে অপারগতা প্রকাশ করছি। তবে আমি ভবিষ্যতে বিশ্ববিদ্যালয়ের ও শিক্ষার্থীদের স্বার্থ সংশ্লিষ্ট যে কোনো দায়িত্ব নিষ্ঠার সাথে পালন করার অঙ্গিকার ব্যক্ত করছি’।
এর  আগে গত ০৬ ফেব্রুয়ারি বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান হলের প্রাধ্যক্ষ অধ্যাপক তোফায়েল হোসেন মজুমদার, ০৭ ফেব্রুয়ারি বিশ্ববিদ্যালয়ের গণমাধ্যম উপদেষ্টা মাহবুবুল হক ভূঁইয়া, ১৮ ফেব্রুয়ারি সহকারী প্রক্টর মাহমুদুল হাসান এবং ২০ ফেব্রুয়ারি সহকারী প্রক্টর মো: কামরুল হাসান ও শেখ হাসিনা হলের আবাসিক শিক্ষক কুলছুম আক্তার স্বপ্না পদত্যাগ করেন। এছাড়াও ১৯ মার্চ সিন্ডিকেট সভায় ‘এজেন্ডা বহির্ভূত ও বেআইনীভাবে ডিন নিয়োগ’ দেয়ার কারণ দেখিয়ে সিন্ডিকেট সদস্যর পদ থেকে  অধ্যাপক ড. শেখ মকছেদুর রহমান পদত্যাগ করেন। গত ২০ মার্চ চার হলের চার আবাসিক শিক্ষক পদত্যাগ করেছেন। সর্বশেষ গত ২৮ মার্চ পদত্যাগ করেছেন বিশ্ববিদ্যালয়ের ক্রীড়া পরিচালনা কমিটির আহ্বায়ক ও বিশ্ববিদ্যালয় ক্রীড়া প্রতিনিধি মোহাম্মদ আইনুল হক।