০৭:৪৬ অপরাহ্ন, রবিবার, ১৪ এপ্রিল ২০২৪, ১ বৈশাখ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

ব্যাংক অ্যাকাউন্ট বন্ধে বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয় সমিতির উদ্বেগ 

 

আয়কর আদায়ে রাজস্ব বোর্ড বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয়ের ব্যাংক একাউন্ট স্থগিত করেছে বলে অভিযোগ করেছে বাংলাদেশ বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয় সমিতি (এপিইউবি)। এতে সংশ্লিষ্ট খাতে চরম উদ্বেগ-উৎকণ্ঠা সৃষ্টি হয়েছে বলেও জানিয়েছে সংগঠনটি।

গতকাল রোববার বাংলাদেশ বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয় সমিতির চেয়ারম্যান শেখ কবির হোসেন স্বাক্ষরিত এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ উদ্বেগের কথা জানানো হয়।

বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, সম্প্রতি বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ের ওপর ১৫ শতাংশ হারে আয়কর প্রদান সংক্রান্ত রিট আপিলের নিষ্পত্তি করার ব্যাপারে মাননীয় আদালত কর্তৃক রায় প্রদান করা হয়েছে। উক্ত আদালতের ‘আপিল বিভাগের পর্যবেক্ষণের বিশদ বিবরণ আদেশের পূর্ণাঙ্গ পাঠ’ এখনো প্রকাশিত হয়নি। তথাপি জাতীয় রাজস্ব বোর্ড কর্তৃক বিভিন্ন বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ে কর প্রদানের চাহিদা পত্র পাঠানো হয়েছে এবং দুঃখজনকভাবে বেশ কিছু বিশ্ববিদ্যালয়ের ব্যাংক একাউন্ট স্থগিত করা হয়েছে।

আদালত কর্তৃক পূর্ণাঙ্গ রায় প্রকাশ এবং তদনুযায়ী আয়কর প্রদান সংক্রান্ত প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ গ্রহণের কোনোরূপ সুযোগ না দিয়ে রোজা চলাকালীন সময় মুসলমানদের বৃহৎ ধর্মীয় উৎসব পবিত্র ঈদুল ফিতরের পূর্বে বিশ্ববিদ্যালয়গুলোর ব্যাংক অ্যাকাউন্ট স্থগিত করা একটি অমানবিক পদক্ষেপ হিসেবে প্রতীয়মান। কেননা, এর ফলে বিশ্ববিদ্যালয়ের বিশাল সংখ্যক শিক্ষক, কর্মকর্তা-কর্মচারী পরিবারের বেতন, বোনাস এবং অন্যান্য প্রদেয় বিল পরিশোধ করা সম্ভব হবে না।

বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়গুলোর প্রতিষ্ঠাতাদের সংগঠন বাংলাদেশ বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয় সমিতি দেশের প্রচলিত আইন অনুযায়ী বিশ্ববিদ্যালয়ের সব কার্যক্রম পরিচালনার বিষয়ে সর্বদা সচেষ্ট। এক্ষেত্রে সরকার কর্তৃক প্রণীত বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয় আইন এবং আয়কর আইন অনুযায়ী আয়কর প্রদান সংক্রান্ত বিষয়ে আদালতের পূর্ণাঙ্গ দিকনির্দেশনা প্রকাশের পূর্বে জাতীয় রাজস্ব বোর্ড কর্তৃক বিশ্ববিদ্যালয়গুলোর ব্যাংক অ্যাকাউন্ট স্থগিত করায় বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয় খাতে চরম উদ্বেগ-উৎকণ্ঠার সৃষ্টি হয়েছে।

আইনগত জটিলতা নিরসনের পূর্বে বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয় থেকে কর আদায় না করা এবং ঈদের পূর্বে বিশ্ববিদ্যালয়গুলোর ব্যাংক একাউন্ট স্থগিত করার মতো চূড়ান্ত পদক্ষেপ প্রত্যাহার ও অনতিবিলম্বে ভুক্তভোগী সকল বিশ্ববিদ্যালয়ের স্থগিতকৃত ব্যাংক অ্যাকাউন্ট পুনরায় চালুর নির্দেশনা প্রদানের জন্য বাংলাদেশ বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয় সমিতির পক্ষ থেকে সবিনয় অনুরোধ জানানো হয়েছে।

 

এর আগে গত ২৭ ফেব্রুয়ারি দেশের সব বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়কে ১৫ শতাংশ ট্যাক্স দিতেই হবে বলে রায় দিয়েছেন আপিল বিভাগ। বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয় থেকে সরকারের ১৫ শতাংশ হারে আয়কর আদায় সংক্রান্ত আপিল নিষ্পত্তি করে এ রায় দেন আদালত।

জনপ্রিয় সংবাদ

ব্যাংক অ্যাকাউন্ট বন্ধে বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয় সমিতির উদ্বেগ 

আপডেট সময় : ০৪:৪৭:৩৯ অপরাহ্ন, সোমবার, ১ এপ্রিল ২০২৪

 

আয়কর আদায়ে রাজস্ব বোর্ড বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয়ের ব্যাংক একাউন্ট স্থগিত করেছে বলে অভিযোগ করেছে বাংলাদেশ বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয় সমিতি (এপিইউবি)। এতে সংশ্লিষ্ট খাতে চরম উদ্বেগ-উৎকণ্ঠা সৃষ্টি হয়েছে বলেও জানিয়েছে সংগঠনটি।

গতকাল রোববার বাংলাদেশ বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয় সমিতির চেয়ারম্যান শেখ কবির হোসেন স্বাক্ষরিত এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ উদ্বেগের কথা জানানো হয়।

বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, সম্প্রতি বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ের ওপর ১৫ শতাংশ হারে আয়কর প্রদান সংক্রান্ত রিট আপিলের নিষ্পত্তি করার ব্যাপারে মাননীয় আদালত কর্তৃক রায় প্রদান করা হয়েছে। উক্ত আদালতের ‘আপিল বিভাগের পর্যবেক্ষণের বিশদ বিবরণ আদেশের পূর্ণাঙ্গ পাঠ’ এখনো প্রকাশিত হয়নি। তথাপি জাতীয় রাজস্ব বোর্ড কর্তৃক বিভিন্ন বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ে কর প্রদানের চাহিদা পত্র পাঠানো হয়েছে এবং দুঃখজনকভাবে বেশ কিছু বিশ্ববিদ্যালয়ের ব্যাংক একাউন্ট স্থগিত করা হয়েছে।

আদালত কর্তৃক পূর্ণাঙ্গ রায় প্রকাশ এবং তদনুযায়ী আয়কর প্রদান সংক্রান্ত প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ গ্রহণের কোনোরূপ সুযোগ না দিয়ে রোজা চলাকালীন সময় মুসলমানদের বৃহৎ ধর্মীয় উৎসব পবিত্র ঈদুল ফিতরের পূর্বে বিশ্ববিদ্যালয়গুলোর ব্যাংক অ্যাকাউন্ট স্থগিত করা একটি অমানবিক পদক্ষেপ হিসেবে প্রতীয়মান। কেননা, এর ফলে বিশ্ববিদ্যালয়ের বিশাল সংখ্যক শিক্ষক, কর্মকর্তা-কর্মচারী পরিবারের বেতন, বোনাস এবং অন্যান্য প্রদেয় বিল পরিশোধ করা সম্ভব হবে না।

বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়গুলোর প্রতিষ্ঠাতাদের সংগঠন বাংলাদেশ বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয় সমিতি দেশের প্রচলিত আইন অনুযায়ী বিশ্ববিদ্যালয়ের সব কার্যক্রম পরিচালনার বিষয়ে সর্বদা সচেষ্ট। এক্ষেত্রে সরকার কর্তৃক প্রণীত বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয় আইন এবং আয়কর আইন অনুযায়ী আয়কর প্রদান সংক্রান্ত বিষয়ে আদালতের পূর্ণাঙ্গ দিকনির্দেশনা প্রকাশের পূর্বে জাতীয় রাজস্ব বোর্ড কর্তৃক বিশ্ববিদ্যালয়গুলোর ব্যাংক অ্যাকাউন্ট স্থগিত করায় বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয় খাতে চরম উদ্বেগ-উৎকণ্ঠার সৃষ্টি হয়েছে।

আইনগত জটিলতা নিরসনের পূর্বে বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয় থেকে কর আদায় না করা এবং ঈদের পূর্বে বিশ্ববিদ্যালয়গুলোর ব্যাংক একাউন্ট স্থগিত করার মতো চূড়ান্ত পদক্ষেপ প্রত্যাহার ও অনতিবিলম্বে ভুক্তভোগী সকল বিশ্ববিদ্যালয়ের স্থগিতকৃত ব্যাংক অ্যাকাউন্ট পুনরায় চালুর নির্দেশনা প্রদানের জন্য বাংলাদেশ বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয় সমিতির পক্ষ থেকে সবিনয় অনুরোধ জানানো হয়েছে।

 

এর আগে গত ২৭ ফেব্রুয়ারি দেশের সব বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়কে ১৫ শতাংশ ট্যাক্স দিতেই হবে বলে রায় দিয়েছেন আপিল বিভাগ। বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয় থেকে সরকারের ১৫ শতাংশ হারে আয়কর আদায় সংক্রান্ত আপিল নিষ্পত্তি করে এ রায় দেন আদালত।