০৫:৫৫ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ১৬ জুলাই ২০২৪, ১ শ্রাবণ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

“২০ টাকার লোভ দেখিয়ে অপহরণ” অপহৃত শিশু উদ্ধার, চক্র পুলিশের হাতে আটক

  • সবুজ বাংলা
  • আপডেট সময় : ০৮:৪৩:২২ অপরাহ্ন, রবিবার, ৩ সেপ্টেম্বর ২০২৩
  • 40
উখিয়া প্রতিনিধি
কক্সবাজারের উখিয়ার কুতুপালং ক্যাম্প থেকে ২০ টাকার লোভ দেখিয়ে এক শিশুকে অপহরণের পর শিশুটিকে উদ্ধার করেছে উখিয়া পুলিশ। এ ঘটনায় জড়িত অপহরণ চক্রের এক নারীসহ তিনজনকে আটক করা হয়েছে।
অপহৃত শিশু রায়হান (৪) উখিয়া কুতুপালং ১৬ নং রোহিঙ্গা ক্যাম্পের আবু জাফরের ছেলে।
আটকরা হলেন- ক্যাম্প ২৬ এর বাসিন্দা মোহাম্মদ সাদেক (২৫) ও সাদেকের বোন রোকসানা (১৫), ফয়সাল (২৩)। তবে ফয়সাল জামতলী ক্যাম্পের পাশের একটি ভাড়া বাসায় বসবাস করছেন।
রোববার (৩ সেপ্টেম্বর) দুপুরে এক প্রেস ব্রিফিংয়ের মাধ্যমে শিশু উদ্ধারের বিষয়টি নিশ্চিত করেন উখিয়া টেকনাফের সার্কেলে ও সহকারী পুলিশ সুপার মো. রাসেল।
উখিয়া টেকনাফের সার্কেলে ও সহকারী পুলিশ সুপার মো. রাসেল জানান, এই শিশু অপহরণ চক্রের মূল পরিকল্পনাকারী সাদেক ও ফয়সাল শিশুটিকে ২০ টাকার লোভ দেখিয়ে অপহরণ করে টেকনাফের ২৬ নং মোছনি রেজিস্টার্ড ক্যাম্পের দূর্গম পাহাড়ে নিয়ে যায়। পরে মুক্তিপণ আদায়ে শিশুকে অমানুষিক নির্যাতন চালানো হয়। মুক্তিপণ হিসেবে ২ লাখ টাকা না দিলে তাকে মেরে ফেলার হুমকি দিতে থাকে পরিবারকে।
পরে শিশুটির মা-বাবা ধার দেনা করে ৪৫ হাজার ৭০০ টাকা সংগ্রহ করতে সক্ষম হয়। তবে এই টাকায় অপহরণকারীরা ছেড়ে দিতে রাজি হয় না।
পুলিশ গভীর রাতে বিভিন্ন কলাকৌশল ব্যবহার করে জামতলী থেকে ঘটনার মূলহোতা সাদেককে গ্রেফতার করে। পরে তার ভাষ্যমতে মুচুনি সি ব্লকের হোসেন নাম এক ব্যক্তির ঘর থেকে শিশুটি উদ্ধার করে অপহরণ চক্রের মোহাম্মদ ফয়সাল এবং নারী সদস্য রোকসানাকে আটক করা হয়। পরে প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে ঘটনার বিষয়টি তারা স্বীকার করে।
আটককৃতদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করার পাশাপাশি অপরাধী চক্রের সকল সদস্যকে শনাক্ত করতে সক্ষম হয়েছে পুলিশ বলে জানান এ কর্মকতা।

চট্টগ্রামে শিক্ষার্থীদের সঙ্গে ছাত্রলীগ-যুবলীগের সংঘর্ষে ২ জন নিহত

“২০ টাকার লোভ দেখিয়ে অপহরণ” অপহৃত শিশু উদ্ধার, চক্র পুলিশের হাতে আটক

আপডেট সময় : ০৮:৪৩:২২ অপরাহ্ন, রবিবার, ৩ সেপ্টেম্বর ২০২৩
উখিয়া প্রতিনিধি
কক্সবাজারের উখিয়ার কুতুপালং ক্যাম্প থেকে ২০ টাকার লোভ দেখিয়ে এক শিশুকে অপহরণের পর শিশুটিকে উদ্ধার করেছে উখিয়া পুলিশ। এ ঘটনায় জড়িত অপহরণ চক্রের এক নারীসহ তিনজনকে আটক করা হয়েছে।
অপহৃত শিশু রায়হান (৪) উখিয়া কুতুপালং ১৬ নং রোহিঙ্গা ক্যাম্পের আবু জাফরের ছেলে।
আটকরা হলেন- ক্যাম্প ২৬ এর বাসিন্দা মোহাম্মদ সাদেক (২৫) ও সাদেকের বোন রোকসানা (১৫), ফয়সাল (২৩)। তবে ফয়সাল জামতলী ক্যাম্পের পাশের একটি ভাড়া বাসায় বসবাস করছেন।
রোববার (৩ সেপ্টেম্বর) দুপুরে এক প্রেস ব্রিফিংয়ের মাধ্যমে শিশু উদ্ধারের বিষয়টি নিশ্চিত করেন উখিয়া টেকনাফের সার্কেলে ও সহকারী পুলিশ সুপার মো. রাসেল।
উখিয়া টেকনাফের সার্কেলে ও সহকারী পুলিশ সুপার মো. রাসেল জানান, এই শিশু অপহরণ চক্রের মূল পরিকল্পনাকারী সাদেক ও ফয়সাল শিশুটিকে ২০ টাকার লোভ দেখিয়ে অপহরণ করে টেকনাফের ২৬ নং মোছনি রেজিস্টার্ড ক্যাম্পের দূর্গম পাহাড়ে নিয়ে যায়। পরে মুক্তিপণ আদায়ে শিশুকে অমানুষিক নির্যাতন চালানো হয়। মুক্তিপণ হিসেবে ২ লাখ টাকা না দিলে তাকে মেরে ফেলার হুমকি দিতে থাকে পরিবারকে।
পরে শিশুটির মা-বাবা ধার দেনা করে ৪৫ হাজার ৭০০ টাকা সংগ্রহ করতে সক্ষম হয়। তবে এই টাকায় অপহরণকারীরা ছেড়ে দিতে রাজি হয় না।
পুলিশ গভীর রাতে বিভিন্ন কলাকৌশল ব্যবহার করে জামতলী থেকে ঘটনার মূলহোতা সাদেককে গ্রেফতার করে। পরে তার ভাষ্যমতে মুচুনি সি ব্লকের হোসেন নাম এক ব্যক্তির ঘর থেকে শিশুটি উদ্ধার করে অপহরণ চক্রের মোহাম্মদ ফয়সাল এবং নারী সদস্য রোকসানাকে আটক করা হয়। পরে প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে ঘটনার বিষয়টি তারা স্বীকার করে।
আটককৃতদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করার পাশাপাশি অপরাধী চক্রের সকল সদস্যকে শনাক্ত করতে সক্ষম হয়েছে পুলিশ বলে জানান এ কর্মকতা।