০৭:১৩ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ১৬ জুলাই ২০২৪, ১ শ্রাবণ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

নরসিংদীতে ট্রেনের ধাক্কায় এইচএসসি পরীক্ষার্থী নিহত

‘শিক্ষক-সহপাঠীশিক্ষার্থীদের মধ্যে শোকের ছায়া’

নরসিংদী প্রতিনিধি

নরসিংদীতে আন্ত:নগর সুবর্ণ এক্সপ্রেস ট্রেনের ধাক্কায় মুমিত হাসান ওরফে তনু (১৯) নামের এক এইচএসসি পরীক্ষার্থী নিহত হয়েছেন। রবিবার (১ অক্টোবর) সকাল সাড়ে ৯টার দিকে শহরের বাসাইল রেলগেট সংলগ্ন স্থানে এই দুর্ঘটনা ঘটে। সকালে শেষ ব্যবহারিক পরীক্ষায় অংশ নিতে বাসা থেকে বের হয়েছিলেন ওই শিক্ষার্থী।
নিহত মুমিত হাসান ওরফে তনু (১৯) কুমিল্লার দেবিদ্বার উপজেলার রাজনেরহাট এলাকার মো. মোমিন মিয়ার ছেলে। নরসিংদীর স্বনামধন্য শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান আবদুল কাদির মোল্লা সিটি কলেজের মানবিক বিভাগের ছাত্র মুমিত হাসান এবার এইচএসসি পরীক্ষা দিচ্ছিলেন। বাসাইল রেলগেট সংলগ্ন একটি বাসায় সাবলেট থেকে পড়াশোনা করতেন তিনি।
রেলওয়ে পুলিশ, সহপাঠী ও স্থানীয়রা জানান, সকাল সাড়ে ৯টার দিকে বাসা থেকে বের হয়ে আরেক বন্ধুর সঙ্গে শেষ ব্যবহারিক পরীক্ষায় অংশ নিতে যাচ্ছিলেন মুমিত হাসান। তারা অসাবধানতাবশত রেললাইন পার হচ্ছিলেন। এ সময় ঢাকা থেকে ছেড়ে আসা আন্তনগর সুবর্ণ এক্সপ্রেস চট্টগ্রামের দিকে যাচ্ছিল। ওই ট্রেনটির ধাক্কায় মুমিত রেললাইনের পাথরে ছিটকে পড়েন। এতে তাঁর মাথা থেঁতলে যায় ও শরীরের বিভিন্ন জায়গা ছিলে যায়। এতে ঘটনাস্থলেই তাঁর মৃত্যু হয়।
স্থানীয় লোকজনের মাধ্যমে এই খবর পেয়ে নরসিংদী রেলওয়ে পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ উপ-পরিদর্শক কার্তিক চন্দ্র রায় ঘটনাস্থলে যান। এ সময় নিহতের লাশ উদ্ধার করে সুরতহাল প্রতিবেদন তৈরির পর ফাঁড়িতে নিয়ে আসেন । এরই মধ্যে নিহতের স্বজনরা ফাঁড়িতে এসে লাশ শনাক্ত করেন। তাদের আবেদনের প্রেক্ষিতে বিনা ময়নাতদন্তে লাশ হস্তান্তর করে রেলওয়ে পুলিশ।
নরসিংদী রেলওয়ে পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ কার্তিক চন্দ্র রায় জানান, অসাবধানতাবশত রেললাইন পার হওয়ার সময় সুবর্ণ এক্সপ্রেস ট্রেনের ধাক্কায় ওই পরীক্ষার্থীর মৃত্যু হয়েছে। তাঁর পরিবারের সদস্যদের অভিযোগ না থাকায় তার পরিবারের কাছে বিনা ময়নাতদন্তে লাশ হস্তান্তর করা হয়েছে বলে জানা যায়।
এ বিষয়ে জানতে চাইলে আবদুল কাদির মোল্লা সিটি কলেজের অধ্যক্ষ মাহমুদুল হাসান বলেন, মুমিত হাসান আমাদের কলেজের মানবিক বিভাগের একজন শিক্ষার্থী ছিলেন। তাঁর মত এমন মেধাবী শিক্ষার্থীর অকালমৃত্যু কোনভাবেই মেনে নেওয়া যাচ্ছে না। দুর্ঘটনার খবর শোনার পর থেকেই কলেজের শিক্ষক-শিক্ষার্থীদের মধ্যে শোকের ছায়া নেমে এসেছে।

 

মুক্তিযোদ্ধাদের সর্বোচ্চ সম্মান দেখাতে হবে : প্রধানমন্ত্রী

নরসিংদীতে ট্রেনের ধাক্কায় এইচএসসি পরীক্ষার্থী নিহত

আপডেট সময় : ০৩:৫৫:৪৮ অপরাহ্ন, রবিবার, ১ অক্টোবর ২০২৩

‘শিক্ষক-সহপাঠীশিক্ষার্থীদের মধ্যে শোকের ছায়া’

নরসিংদী প্রতিনিধি

নরসিংদীতে আন্ত:নগর সুবর্ণ এক্সপ্রেস ট্রেনের ধাক্কায় মুমিত হাসান ওরফে তনু (১৯) নামের এক এইচএসসি পরীক্ষার্থী নিহত হয়েছেন। রবিবার (১ অক্টোবর) সকাল সাড়ে ৯টার দিকে শহরের বাসাইল রেলগেট সংলগ্ন স্থানে এই দুর্ঘটনা ঘটে। সকালে শেষ ব্যবহারিক পরীক্ষায় অংশ নিতে বাসা থেকে বের হয়েছিলেন ওই শিক্ষার্থী।
নিহত মুমিত হাসান ওরফে তনু (১৯) কুমিল্লার দেবিদ্বার উপজেলার রাজনেরহাট এলাকার মো. মোমিন মিয়ার ছেলে। নরসিংদীর স্বনামধন্য শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান আবদুল কাদির মোল্লা সিটি কলেজের মানবিক বিভাগের ছাত্র মুমিত হাসান এবার এইচএসসি পরীক্ষা দিচ্ছিলেন। বাসাইল রেলগেট সংলগ্ন একটি বাসায় সাবলেট থেকে পড়াশোনা করতেন তিনি।
রেলওয়ে পুলিশ, সহপাঠী ও স্থানীয়রা জানান, সকাল সাড়ে ৯টার দিকে বাসা থেকে বের হয়ে আরেক বন্ধুর সঙ্গে শেষ ব্যবহারিক পরীক্ষায় অংশ নিতে যাচ্ছিলেন মুমিত হাসান। তারা অসাবধানতাবশত রেললাইন পার হচ্ছিলেন। এ সময় ঢাকা থেকে ছেড়ে আসা আন্তনগর সুবর্ণ এক্সপ্রেস চট্টগ্রামের দিকে যাচ্ছিল। ওই ট্রেনটির ধাক্কায় মুমিত রেললাইনের পাথরে ছিটকে পড়েন। এতে তাঁর মাথা থেঁতলে যায় ও শরীরের বিভিন্ন জায়গা ছিলে যায়। এতে ঘটনাস্থলেই তাঁর মৃত্যু হয়।
স্থানীয় লোকজনের মাধ্যমে এই খবর পেয়ে নরসিংদী রেলওয়ে পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ উপ-পরিদর্শক কার্তিক চন্দ্র রায় ঘটনাস্থলে যান। এ সময় নিহতের লাশ উদ্ধার করে সুরতহাল প্রতিবেদন তৈরির পর ফাঁড়িতে নিয়ে আসেন । এরই মধ্যে নিহতের স্বজনরা ফাঁড়িতে এসে লাশ শনাক্ত করেন। তাদের আবেদনের প্রেক্ষিতে বিনা ময়নাতদন্তে লাশ হস্তান্তর করে রেলওয়ে পুলিশ।
নরসিংদী রেলওয়ে পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ কার্তিক চন্দ্র রায় জানান, অসাবধানতাবশত রেললাইন পার হওয়ার সময় সুবর্ণ এক্সপ্রেস ট্রেনের ধাক্কায় ওই পরীক্ষার্থীর মৃত্যু হয়েছে। তাঁর পরিবারের সদস্যদের অভিযোগ না থাকায় তার পরিবারের কাছে বিনা ময়নাতদন্তে লাশ হস্তান্তর করা হয়েছে বলে জানা যায়।
এ বিষয়ে জানতে চাইলে আবদুল কাদির মোল্লা সিটি কলেজের অধ্যক্ষ মাহমুদুল হাসান বলেন, মুমিত হাসান আমাদের কলেজের মানবিক বিভাগের একজন শিক্ষার্থী ছিলেন। তাঁর মত এমন মেধাবী শিক্ষার্থীর অকালমৃত্যু কোনভাবেই মেনে নেওয়া যাচ্ছে না। দুর্ঘটনার খবর শোনার পর থেকেই কলেজের শিক্ষক-শিক্ষার্থীদের মধ্যে শোকের ছায়া নেমে এসেছে।