১০:২৪ অপরাহ্ন, রবিবার, ০৩ মার্চ ২০২৪, ২০ ফাল্গুন ১৪৩০ বঙ্গাব্দ

বিশ্ব ইজতেমা দ্বিতীয় পর্ব: তুরাগ তীরে দেশের সর্ববৃহৎ জুমার নামাজ অনুষ্ঠিত

গাজীপুরের টঙ্গী তুরাগ তীরে  আয়োজিত বিশ্ব ইজতেমার ময়দানে দেশের সর্ববৃহৎ জুমার নামাজ অনুষ্ঠিত হয়েছে। এ জুমার নামাজে অংশ নেয় দেশ-বিদেশের লাখ লাখ মুসল্লি।
শুক্রবার (৯ ফেব্রুয়ারি) বিশ্ব ইজতেমার দ্বিতীয় পর্বে জুমার নামাজে ইমামতি করেন মাওলানা সাদ’র বড় ছেলে মাওলানা ইউসুফ বিন সাদ। দুপুর ০১:৪৮ মিনিটে জুমার নামাজ অনুষ্ঠিত হয়।
বিশ্ব ইজতেমায় দ্বিতীয় পর্বে যোগ দিতে গত মঙ্গলবার থেকে দেশ-বিদেশের নিজামুদ্দিনের অনুসারী মুসল্লিরা টঙ্গীর তুরাগ তীরে আসতে শুরু করে। পরে তারা নিজ নিজ খিত্তায় অবস্থান নেয়। বৃহস্পতিবার (৮ ফেব্রুয়ারি) বাদ জোহর আম বয়ানের মধ্য দিয়ে শুরু হয় বিশ্ব ইজতেমার দ্বিতীয় পর্বের আনুষ্ঠানিকতা। শুক্রবার (৯ ফেব্রুয়ারি) লাখ লাখ মুসল্লিদের সঙ্গে শরিক হয়ে দেশের সর্ববৃহৎ জুমার নামাজ আদায় করতে সকাল থেকেই চারদিক হতে মুসল্লিরা ইজতেমার ময়দানে আসতে শুরু করে। কেউ নৌকাযোগে, কেউ বিভিন্ন গাড়ি, কেউ কেউ ট্রেনে করে ইজতেমার ময়দানে এসে পৌঁছায়। ময়দানে, সড়ক-মহাসড়ক, খালি জায়গা সহ বিভিন্ন স্থানে পলিথিন, খবরের কাগজ ও চট বিছিয়ে জুমার নামাজ আদায় করে মুসল্লিরা।
প্রথম পর্বের নেয় দ্বিতীয় পর্বে মুসল্লিদের ভিড় কম থাকায় মানুষ স্বস্তিতেই ইজতেমার ময়দানে আসতে পেরেছে। এদিকে ঢাকা-ময়মনসিংহ ও কামারপাড়া সড়কেও নেই যানজট। যানজট নিয়ন্ত্রণে ও লাখ লাখ মুসল্লির নিরাপত্তায় রয়েছে কয়েক হাজার আইন-শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী।
আজ বয়ান করেন যারা: শুক্রবার (৯ ফেব্রুয়ারি) ফজরের পরে বয়ান করেন মাওলানা ইলিয়াস বিন সাদ। পরে তার বয়ান বাংলায়  তরজমা করেন মাওলানা মনির বিন ইউসুফ। জুমার আগে জুমার ফাজায়েল বয়ান করেন  মাওলানা মনির বিন ইউসুফ। জুমার পরে বয়ান করবেন- শেখ মোফলে (আরবী)। পরে বাংলা তরজমা করবেন মাওলানা শেখ আব্দুল্লাহ মনসুর। আসরের পরে বয়ান করবেন মাওলানা মোশাররফ। মাগরিবের পরে বয়ান করবেন মাওলানা ইউসুফ বিন সাদ। পরে তা বাংলায় তরজমা করবেন মাওলানা জিয়া বিন কাশেম।
মুসল্লির মৃত্যু: বিশ্ব ইজতেমার দ্বিতীয় পর্বের আয়োজকরা  জানায়, শুক্রবার (৯ ফেব্রুয়ারি) সকাল পর্যন্ত বিশ্ব ইজতেমার দ্বিতীয় পর্বে চার মুসল্লির মৃত্যু হয়েছে।
নিহতরা হলেন- শেরপুর সদর থানার রামকৃষ্ণপুর এলাকার মৃত মফিজ উদ্দিনের ছেলে আবুল কালাম (৬৫), নেত্রকোনার কেন্দুয়া থানার কুতুবপুর এলাকার মৃত সুলতান উদ্দিনের ছেলে আব্দুল হেলিম মিয়া (৬৫),  দিনাজপুরের নবাবগঞ্জ থানার শিবনগর এলাকার মৃত্যু ইউসুফ উদ্দিনের ছেলে জহির উদ্দিন (৭০) ও জামালপুরের ইসলামপুর থানার গোয়ালের চর এলাকার ছবির উদ্দিনের ছেলে  নবীর উদ্দিন (৬৫)।

বিশ্ব ইজতেমা দ্বিতীয় পর্ব: তুরাগ তীরে দেশের সর্ববৃহৎ জুমার নামাজ অনুষ্ঠিত

আপডেট সময় : ০৫:০৫:২৭ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ৯ ফেব্রুয়ারী ২০২৪
গাজীপুরের টঙ্গী তুরাগ তীরে  আয়োজিত বিশ্ব ইজতেমার ময়দানে দেশের সর্ববৃহৎ জুমার নামাজ অনুষ্ঠিত হয়েছে। এ জুমার নামাজে অংশ নেয় দেশ-বিদেশের লাখ লাখ মুসল্লি।
শুক্রবার (৯ ফেব্রুয়ারি) বিশ্ব ইজতেমার দ্বিতীয় পর্বে জুমার নামাজে ইমামতি করেন মাওলানা সাদ’র বড় ছেলে মাওলানা ইউসুফ বিন সাদ। দুপুর ০১:৪৮ মিনিটে জুমার নামাজ অনুষ্ঠিত হয়।
বিশ্ব ইজতেমায় দ্বিতীয় পর্বে যোগ দিতে গত মঙ্গলবার থেকে দেশ-বিদেশের নিজামুদ্দিনের অনুসারী মুসল্লিরা টঙ্গীর তুরাগ তীরে আসতে শুরু করে। পরে তারা নিজ নিজ খিত্তায় অবস্থান নেয়। বৃহস্পতিবার (৮ ফেব্রুয়ারি) বাদ জোহর আম বয়ানের মধ্য দিয়ে শুরু হয় বিশ্ব ইজতেমার দ্বিতীয় পর্বের আনুষ্ঠানিকতা। শুক্রবার (৯ ফেব্রুয়ারি) লাখ লাখ মুসল্লিদের সঙ্গে শরিক হয়ে দেশের সর্ববৃহৎ জুমার নামাজ আদায় করতে সকাল থেকেই চারদিক হতে মুসল্লিরা ইজতেমার ময়দানে আসতে শুরু করে। কেউ নৌকাযোগে, কেউ বিভিন্ন গাড়ি, কেউ কেউ ট্রেনে করে ইজতেমার ময়দানে এসে পৌঁছায়। ময়দানে, সড়ক-মহাসড়ক, খালি জায়গা সহ বিভিন্ন স্থানে পলিথিন, খবরের কাগজ ও চট বিছিয়ে জুমার নামাজ আদায় করে মুসল্লিরা।
প্রথম পর্বের নেয় দ্বিতীয় পর্বে মুসল্লিদের ভিড় কম থাকায় মানুষ স্বস্তিতেই ইজতেমার ময়দানে আসতে পেরেছে। এদিকে ঢাকা-ময়মনসিংহ ও কামারপাড়া সড়কেও নেই যানজট। যানজট নিয়ন্ত্রণে ও লাখ লাখ মুসল্লির নিরাপত্তায় রয়েছে কয়েক হাজার আইন-শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী।
আজ বয়ান করেন যারা: শুক্রবার (৯ ফেব্রুয়ারি) ফজরের পরে বয়ান করেন মাওলানা ইলিয়াস বিন সাদ। পরে তার বয়ান বাংলায়  তরজমা করেন মাওলানা মনির বিন ইউসুফ। জুমার আগে জুমার ফাজায়েল বয়ান করেন  মাওলানা মনির বিন ইউসুফ। জুমার পরে বয়ান করবেন- শেখ মোফলে (আরবী)। পরে বাংলা তরজমা করবেন মাওলানা শেখ আব্দুল্লাহ মনসুর। আসরের পরে বয়ান করবেন মাওলানা মোশাররফ। মাগরিবের পরে বয়ান করবেন মাওলানা ইউসুফ বিন সাদ। পরে তা বাংলায় তরজমা করবেন মাওলানা জিয়া বিন কাশেম।
মুসল্লির মৃত্যু: বিশ্ব ইজতেমার দ্বিতীয় পর্বের আয়োজকরা  জানায়, শুক্রবার (৯ ফেব্রুয়ারি) সকাল পর্যন্ত বিশ্ব ইজতেমার দ্বিতীয় পর্বে চার মুসল্লির মৃত্যু হয়েছে।
নিহতরা হলেন- শেরপুর সদর থানার রামকৃষ্ণপুর এলাকার মৃত মফিজ উদ্দিনের ছেলে আবুল কালাম (৬৫), নেত্রকোনার কেন্দুয়া থানার কুতুবপুর এলাকার মৃত সুলতান উদ্দিনের ছেলে আব্দুল হেলিম মিয়া (৬৫),  দিনাজপুরের নবাবগঞ্জ থানার শিবনগর এলাকার মৃত্যু ইউসুফ উদ্দিনের ছেলে জহির উদ্দিন (৭০) ও জামালপুরের ইসলামপুর থানার গোয়ালের চর এলাকার ছবির উদ্দিনের ছেলে  নবীর উদ্দিন (৬৫)।