০৯:৩১ অপরাহ্ন, শনিবার, ০২ মার্চ ২০২৪, ১৯ ফাল্গুন ১৪৩০ বঙ্গাব্দ

এশিয়ায় শিরোপা ধরে রাখল কাতার

স্বপ্নের ফাইনালে পৌঁছে রূপকথার জন্ম দিয়েছিল জর্ডান। দক্ষিণ কোরিয়াকে হারিয়ে তারা পদার্পণ করেছিল এই ফাইনালে। তবে ফাইনালে আর সেই রূপকথার পুনরাবৃত্তি করতে পারেনি আরবের দেশটি। তিন পেনাল্টিতে কাতারের কাছে ৩-১ গোলে হেরে গেছে র‌্যাঙ্কিংয়ে ৮৭ নম্বর দল। এই জয়ে টানা দ্বিতীয়বার এশিয়ান কাপের শিরোপা জিতল স্বাগতিক দেশ কাতার। দক্ষিণ কোরিয়া, ইরান, সৌদি আরব ও জাপানের পর পঞ্চম দল হিসেবে টানা দুই আসরে এশিয়ান কাপ জয়ের নজির গড়ল কাতার।

লুসাইল আইকনিক স্টেডিয়ামে জর্ডানকে ৩-১ গোলে হারিয়ে টানা দ্বিতীয় এশিয়ান কাপ জিতেছে কাতার। স্বাগতিকদের হয়ে পেনাল্টিতে হ্যাটট্রিক করেন ফরোয়ার্ড আকরাম আফিফ। জর্ডানের পক্ষে একটি গোল পরিশোধ করেন ইয়াজান আল নাইমাত।

দেশের মাটিতে অনুষ্ঠিত এশিয়ান কাপের ফাইনালে শুরু থেকেই আক্রমণাত্মক ফুটবল খেলতে থাকে কাতার। প্রতিপক্ষ জর্ডানও তুমুল প্রতিদ্বন্দ্বিতার আভাস দেয়। কিন্তু তিন পেনাল্টিতে আর পেরে উঠেনি জর্ডান। ম্যাচের ২২ মিনিটে প্রথমবার লিড নেয় কাতার। পেনাল্টি থেকে গোল করেন ফরোয়ার্ড আকরাম আফিফ। এ গোলে এগিয়ে থেকে বিরতিতে যায় স্বাগতিকরা।

বিরতি থেকে ফিরে জর্ডানও ম্যাচে ফেরার জোর চেষ্টা চালায়। সেই ধারাবাহিকতায় ৬৭ মিনিটে সমতায় ফেরে জর্ডান। মিডফিল্ডার এহসান হাদ্দাদের অ্যাসিস্টে দুর্দান্ত এক গোলে ব্যবধান ১-১ করেন আল নাইমাত।

তবে ৬ মিনিট পর আবারও এগিয়ে যায় কাতার। আরো একবার পেনাল্টি পায় স্বাগতিকরা। গোলদাতা সেই আকরাম আফিফই। নির্ধারিত সময় পর্যন্ত ২-১ ব্যাবধানে এগিয়ে থাকে কাতার। ৯৫ মিনিটে জর্ডানের কফিনে শেষ আঘাত হানেন আকিফ। তিন পেনাল্টি থেকে নিজের হ্যাটট্রিক পূরণ করেন কাতারের ফরোয়ার্ড। ফলে টানা দ্বিতীয়বার এশিয়া মহাদেশের সেরার মুকুট পরল স্বাগতিক কাতার।

 

 

স/মিফা

এশিয়ায় শিরোপা ধরে রাখল কাতার

আপডেট সময় : ১২:১০:১২ অপরাহ্ন, সোমবার, ১২ ফেব্রুয়ারী ২০২৪

স্বপ্নের ফাইনালে পৌঁছে রূপকথার জন্ম দিয়েছিল জর্ডান। দক্ষিণ কোরিয়াকে হারিয়ে তারা পদার্পণ করেছিল এই ফাইনালে। তবে ফাইনালে আর সেই রূপকথার পুনরাবৃত্তি করতে পারেনি আরবের দেশটি। তিন পেনাল্টিতে কাতারের কাছে ৩-১ গোলে হেরে গেছে র‌্যাঙ্কিংয়ে ৮৭ নম্বর দল। এই জয়ে টানা দ্বিতীয়বার এশিয়ান কাপের শিরোপা জিতল স্বাগতিক দেশ কাতার। দক্ষিণ কোরিয়া, ইরান, সৌদি আরব ও জাপানের পর পঞ্চম দল হিসেবে টানা দুই আসরে এশিয়ান কাপ জয়ের নজির গড়ল কাতার।

লুসাইল আইকনিক স্টেডিয়ামে জর্ডানকে ৩-১ গোলে হারিয়ে টানা দ্বিতীয় এশিয়ান কাপ জিতেছে কাতার। স্বাগতিকদের হয়ে পেনাল্টিতে হ্যাটট্রিক করেন ফরোয়ার্ড আকরাম আফিফ। জর্ডানের পক্ষে একটি গোল পরিশোধ করেন ইয়াজান আল নাইমাত।

দেশের মাটিতে অনুষ্ঠিত এশিয়ান কাপের ফাইনালে শুরু থেকেই আক্রমণাত্মক ফুটবল খেলতে থাকে কাতার। প্রতিপক্ষ জর্ডানও তুমুল প্রতিদ্বন্দ্বিতার আভাস দেয়। কিন্তু তিন পেনাল্টিতে আর পেরে উঠেনি জর্ডান। ম্যাচের ২২ মিনিটে প্রথমবার লিড নেয় কাতার। পেনাল্টি থেকে গোল করেন ফরোয়ার্ড আকরাম আফিফ। এ গোলে এগিয়ে থেকে বিরতিতে যায় স্বাগতিকরা।

বিরতি থেকে ফিরে জর্ডানও ম্যাচে ফেরার জোর চেষ্টা চালায়। সেই ধারাবাহিকতায় ৬৭ মিনিটে সমতায় ফেরে জর্ডান। মিডফিল্ডার এহসান হাদ্দাদের অ্যাসিস্টে দুর্দান্ত এক গোলে ব্যবধান ১-১ করেন আল নাইমাত।

তবে ৬ মিনিট পর আবারও এগিয়ে যায় কাতার। আরো একবার পেনাল্টি পায় স্বাগতিকরা। গোলদাতা সেই আকরাম আফিফই। নির্ধারিত সময় পর্যন্ত ২-১ ব্যাবধানে এগিয়ে থাকে কাতার। ৯৫ মিনিটে জর্ডানের কফিনে শেষ আঘাত হানেন আকিফ। তিন পেনাল্টি থেকে নিজের হ্যাটট্রিক পূরণ করেন কাতারের ফরোয়ার্ড। ফলে টানা দ্বিতীয়বার এশিয়া মহাদেশের সেরার মুকুট পরল স্বাগতিক কাতার।

 

 

স/মিফা