০৭:৩৭ অপরাহ্ন, রবিবার, ১৪ এপ্রিল ২০২৪, ১ বৈশাখ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

চট্টগ্রামে মাদ ব্যবসায়ির যাবজ্জীবন কারাদণ্ড

  নগরীর কোতোয়ালী থানার একটি মাদকের মামলায় আসাদুজ্জামান বাপ্পী (৪০) নামে এক মাইক্রোবাস চালকের যাবজ্জীবন সশ্রম কারাদণ্ড দিয়েছেন আদালত।  গত সোমবার (১৮ মার্চ) চতুর্থ অতিরিক্ত চট্টগ্রাম মহানগর দায়রা জজ শরীফুল আলম ভূঁঞার আদালত এই রায় দেন।

কারাদণ্ডপ্রাপ্ত আসাদুজ্জামান বাপ্পী, কুমিল্লা জেলার কোতোয়ালী থানার চকবাজার কাটা বিলের হয়রত পাড়ার শফিকুর রহমান মাস্টারের ছেলে। মামলার নথি থেকে জানা যায়, নগরের কোতোয়ালী থানার পুরাতন রেলওয়ে স্টেশন এলাকায় ২০১২ সালের ৪ জুলাই  র‌্যাব দেখে মাইক্রোবাস থেকে নেমে পালানোর সময় চালক বাপ্পীকে গ্রেপ্তার করা হয়।

এই সময় মাইক্রোবাসের ভিতর থেকে তাঁর দেখানোমতে ৫৪০ বোতল ফেনসিডিল উদ্ধার করে র‌্যাব-৭। ওই ঘটনায় র‌্যাব-৭ এর তৎকালীন ডিএডি কাজী মিজানুর রহমান বাদী হয়ে কোতোয়ালী থানায় মাদক একটি মামলা করেন। ওই বছরই পুলিশ তদন্ত শেষে  অভিযোগপত্র দাখিল করলে ২০১৩ সালে ২২ মে আদালত আসামির বিরুদ্ধে অভিযোগ গঠন করে বিচার শুরুর আদেশ দেন।  

আদালতের বেঞ্চ সহকারী মো. ওমর ফুয়াদ জানান, মাদকের মামলায় ৫ জন সাক্ষীর সাক্ষ্য প্রমাণে আনীত অভিযোগ সন্দেহাতীতভাবে প্রমাণিত হওয়ায় আসামি আসাদুজ্জামান বাপ্পীকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড, ১০ হাজার টাকা জরিমানা অনাদায়ে আরও ১ বছর বিনাশ্রম কারাদণ্ড দিয়েছেন আদালত। রায়ের সময় আসামি আদালতে অনুপস্থিত ছিলেন। তার বিরুদ্ধে সাজা পরোয়ানা মূলে গ্রেপ্তারি পরোয়ানা জারি করা হয়েছে।  

জনপ্রিয় সংবাদ

চট্টগ্রামে মাদ ব্যবসায়ির যাবজ্জীবন কারাদণ্ড

আপডেট সময় : ০৮:৪৬:৩০ অপরাহ্ন, সোমবার, ১৮ মার্চ ২০২৪

  নগরীর কোতোয়ালী থানার একটি মাদকের মামলায় আসাদুজ্জামান বাপ্পী (৪০) নামে এক মাইক্রোবাস চালকের যাবজ্জীবন সশ্রম কারাদণ্ড দিয়েছেন আদালত।  গত সোমবার (১৮ মার্চ) চতুর্থ অতিরিক্ত চট্টগ্রাম মহানগর দায়রা জজ শরীফুল আলম ভূঁঞার আদালত এই রায় দেন।

কারাদণ্ডপ্রাপ্ত আসাদুজ্জামান বাপ্পী, কুমিল্লা জেলার কোতোয়ালী থানার চকবাজার কাটা বিলের হয়রত পাড়ার শফিকুর রহমান মাস্টারের ছেলে। মামলার নথি থেকে জানা যায়, নগরের কোতোয়ালী থানার পুরাতন রেলওয়ে স্টেশন এলাকায় ২০১২ সালের ৪ জুলাই  র‌্যাব দেখে মাইক্রোবাস থেকে নেমে পালানোর সময় চালক বাপ্পীকে গ্রেপ্তার করা হয়।

এই সময় মাইক্রোবাসের ভিতর থেকে তাঁর দেখানোমতে ৫৪০ বোতল ফেনসিডিল উদ্ধার করে র‌্যাব-৭। ওই ঘটনায় র‌্যাব-৭ এর তৎকালীন ডিএডি কাজী মিজানুর রহমান বাদী হয়ে কোতোয়ালী থানায় মাদক একটি মামলা করেন। ওই বছরই পুলিশ তদন্ত শেষে  অভিযোগপত্র দাখিল করলে ২০১৩ সালে ২২ মে আদালত আসামির বিরুদ্ধে অভিযোগ গঠন করে বিচার শুরুর আদেশ দেন।  

আদালতের বেঞ্চ সহকারী মো. ওমর ফুয়াদ জানান, মাদকের মামলায় ৫ জন সাক্ষীর সাক্ষ্য প্রমাণে আনীত অভিযোগ সন্দেহাতীতভাবে প্রমাণিত হওয়ায় আসামি আসাদুজ্জামান বাপ্পীকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড, ১০ হাজার টাকা জরিমানা অনাদায়ে আরও ১ বছর বিনাশ্রম কারাদণ্ড দিয়েছেন আদালত। রায়ের সময় আসামি আদালতে অনুপস্থিত ছিলেন। তার বিরুদ্ধে সাজা পরোয়ানা মূলে গ্রেপ্তারি পরোয়ানা জারি করা হয়েছে।