০৭:০৬ পূর্বাহ্ন, সোমবার, ২২ এপ্রিল ২০২৪, ৯ বৈশাখ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

চলেন গেলেন টঙ্ক আন্দোলনের কিংবদন্তি  কুমুদিনী হাজং

ব্রিটিশ বিরোধী সংগ্রামী ও টঙ্ক আন্দোলনের কিংবদন্তি নারী কুমুদিনী হাজং (৯২) আর নেই। শনিবার (২৩ মার্চ) দুপুরে নেত্রকোণার দুর্গাপুর উপজেলার বহেরাতলী গ্রামে নিজ বাড়িতে তিনি শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন।
তার মৃত্যুতে দুর্গাপুরে শোকের ছায়া নেমে এসেছে। দুর্গাপুরের বিভিন্ন শ্রেণী পেশার মানুষ শোক ও শ্রদ্ধা জানিয়েছেন তার প্রতি।
কুমুদিনী হাজং এর মৃত্যুতে শোক জানিয়েছেন নেত্রকোণা ১ আসনের সংসদ সদস্য মোশতাক আহমেদ রুহী,আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় কার্যনির্বাহী সংসদের সদস্য উপাধ্যক্ষ রেমন্ড আরেং, সিপিবি কেন্দ্রীয় কমিটির নেতা কমরেড ডা: দিবালোক সিংহ,ক্ষুদ্র নৃ গোষ্ঠীর কালচারাল একাডেমি বিরিশিরি এর পরিচালক গীতিকবি সুজন হাজং,দুর্গাপুর উপজেলা আওয়ামী লীগ,উপজেলা প্রশাসন,দুর্গাপুর থানা,উপজেলা সিপিবি ,দুর্গাপুর সাংবাদিক সমিতি,বাংলাদেশ হাজং ছাত্র সংগঠন সহ বিভিন্ন সামাজিক সাংস্কৃতিক সংগঠনের নেতৃবৃন্দ। তারা কুমুদিনী হাজং এর পরিবারের প্রতি গভীর সমবেদনা জ্ঞাপন করেন। এই মহীয়সী নারী মৃত্যুকালে দুই ছেলে,দুই মেয়ে,নাতী- নাতনি সহ অসংখ্য গুণগ্রাহী রেখে গেছেন।
সমাজসেবায় অবদানের জন্য ২০১৯ সালে কুমুদিনী হাজংকে সম্মানসূচক ফেলোশিপ দেয় বাংলা একাডেমি। এছাড়া তিনি অনন্যা শীর্ষদশ (২০০৩), ড. আহমদ শরীফ স্মারক (২০০৫), কমরেড মণি সিংহ স্মৃতি পদক (২০০৭), সিধু-কানহু-ফুলমণি পদক (২০১০), জলসিঁড়ি (২০১৪) ও হাজং জাতীয় পুরস্কার (২০১৮) পেয়েছেন।
জনপ্রিয় সংবাদ

চলেন গেলেন টঙ্ক আন্দোলনের কিংবদন্তি  কুমুদিনী হাজং

আপডেট সময় : ০৭:৪৪:৪৯ অপরাহ্ন, শনিবার, ২৩ মার্চ ২০২৪
ব্রিটিশ বিরোধী সংগ্রামী ও টঙ্ক আন্দোলনের কিংবদন্তি নারী কুমুদিনী হাজং (৯২) আর নেই। শনিবার (২৩ মার্চ) দুপুরে নেত্রকোণার দুর্গাপুর উপজেলার বহেরাতলী গ্রামে নিজ বাড়িতে তিনি শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন।
তার মৃত্যুতে দুর্গাপুরে শোকের ছায়া নেমে এসেছে। দুর্গাপুরের বিভিন্ন শ্রেণী পেশার মানুষ শোক ও শ্রদ্ধা জানিয়েছেন তার প্রতি।
কুমুদিনী হাজং এর মৃত্যুতে শোক জানিয়েছেন নেত্রকোণা ১ আসনের সংসদ সদস্য মোশতাক আহমেদ রুহী,আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় কার্যনির্বাহী সংসদের সদস্য উপাধ্যক্ষ রেমন্ড আরেং, সিপিবি কেন্দ্রীয় কমিটির নেতা কমরেড ডা: দিবালোক সিংহ,ক্ষুদ্র নৃ গোষ্ঠীর কালচারাল একাডেমি বিরিশিরি এর পরিচালক গীতিকবি সুজন হাজং,দুর্গাপুর উপজেলা আওয়ামী লীগ,উপজেলা প্রশাসন,দুর্গাপুর থানা,উপজেলা সিপিবি ,দুর্গাপুর সাংবাদিক সমিতি,বাংলাদেশ হাজং ছাত্র সংগঠন সহ বিভিন্ন সামাজিক সাংস্কৃতিক সংগঠনের নেতৃবৃন্দ। তারা কুমুদিনী হাজং এর পরিবারের প্রতি গভীর সমবেদনা জ্ঞাপন করেন। এই মহীয়সী নারী মৃত্যুকালে দুই ছেলে,দুই মেয়ে,নাতী- নাতনি সহ অসংখ্য গুণগ্রাহী রেখে গেছেন।
সমাজসেবায় অবদানের জন্য ২০১৯ সালে কুমুদিনী হাজংকে সম্মানসূচক ফেলোশিপ দেয় বাংলা একাডেমি। এছাড়া তিনি অনন্যা শীর্ষদশ (২০০৩), ড. আহমদ শরীফ স্মারক (২০০৫), কমরেড মণি সিংহ স্মৃতি পদক (২০০৭), সিধু-কানহু-ফুলমণি পদক (২০১০), জলসিঁড়ি (২০১৪) ও হাজং জাতীয় পুরস্কার (২০১৮) পেয়েছেন।