০৬:০৮ পূর্বাহ্ন, সোমবার, ২২ এপ্রিল ২০২৪, ৯ বৈশাখ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

আমাকে জেলে রেখে নেতাকর্মীদের ছেড়ে দিন : ইমরান খান

 

 

পাকিস্তানের বিচার বিভাগের প্রতি আহ্বান জানিয়ে দেশটির সাবেক প্রধানমন্ত্রী ও তেহরিক-ই-ইনসাফ পার্টির (পিটিআই) প্রতিষ্ঠাতা ইমরান খান বলেছেন, তাকে জেলে রাখতে চাইলে রাখা হোক, তবু তার দলের নেতা-কর্মীদের ছেড়ে দেওয়া হোক। পাকিস্তানি সংবাদমাধ্যম এক্সপ্রেস ট্রিবিউনের প্রতিবেদনে জানিয়েছে, গত মঙ্গলবার ১৯০ মিলিয়ন পাউন্ড দুর্নীতি মামলার শুনানির পর সংবাদকর্মীদের সঙ্গে আলাপকালে ইমরান খান এই আহ্বান জানান।

 

 

পাকিস্তানের প্রধান বিচারপতি কাজী ফয়েজ ঈসার প্রতি আহ্বান করে ইমরান খান জানান, গত বছরের ৯ মে সেনা স্থাপনায় ভাঙচুরের অভিযোগে তার দলের নেতা-কর্মীদের বিরুদ্ধে যেসব মামলা হয়েছে, সেগুলোর তদন্তে একটি বিচার বিভাগীয় কমিটি গঠন করা হোক। এ ঘটনায় এখন পর্যন্ত কোনো তদন্তই হয়নি। তথ্য-প্রমাণ লোপাট ও লুকিয়ে রাখাও এক ধরনের অপরাধ। একটি রাজনৈতিক দলকে ৯ মে’র ঘটনার ওপর ভিত্তি করে স্রেফ নাই করে ফেলা হচ্ছে।

 

 

এ মামলার বিচারে ন্যায্যতা নিশ্চিতের দাবি জানিয়ে ইমরান খান বলেন, পিটিআই নেতা-কর্মীদের মুক্তি দেওয়ার বিষয়টি কর্তৃপক্ষের ভেবে দেখা উচিত। যদি আপনারা আমাকে জেলে রাখতে চান, রাখুন। তার পরও বাকিদের ছেড়ে দিন।

 

এর আগে ইমরান খানকে গ্রেপ্তারের প্রতিবাদে পাকিস্তানজুড়ে বিক্ষোভ-মিছিল করেন ইমরান খানের ভক্ত-সমর্থকেরা। সরকার ও সেনাবাহিনীর অভিযোগ, সেদিন তার সমর্থকেরা দেশের বিভিন্ন স্থানে সেনা স্থাপনায় ভাঙচুর চালিয়েছিল। সেই অভিযোগে ইমরান খানসহ পিটিআইয়ের বিপুলসংখ্যক নেতা-কর্মীর বিরুদ্ধে মামলা দায়ের ও গ্রেপ্তার করা হয়।

 

জনপ্রিয় সংবাদ

আমাকে জেলে রেখে নেতাকর্মীদের ছেড়ে দিন : ইমরান খান

আপডেট সময় : ০৭:৩৬:৫৬ পূর্বাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ২৮ মার্চ ২০২৪

 

 

পাকিস্তানের বিচার বিভাগের প্রতি আহ্বান জানিয়ে দেশটির সাবেক প্রধানমন্ত্রী ও তেহরিক-ই-ইনসাফ পার্টির (পিটিআই) প্রতিষ্ঠাতা ইমরান খান বলেছেন, তাকে জেলে রাখতে চাইলে রাখা হোক, তবু তার দলের নেতা-কর্মীদের ছেড়ে দেওয়া হোক। পাকিস্তানি সংবাদমাধ্যম এক্সপ্রেস ট্রিবিউনের প্রতিবেদনে জানিয়েছে, গত মঙ্গলবার ১৯০ মিলিয়ন পাউন্ড দুর্নীতি মামলার শুনানির পর সংবাদকর্মীদের সঙ্গে আলাপকালে ইমরান খান এই আহ্বান জানান।

 

 

পাকিস্তানের প্রধান বিচারপতি কাজী ফয়েজ ঈসার প্রতি আহ্বান করে ইমরান খান জানান, গত বছরের ৯ মে সেনা স্থাপনায় ভাঙচুরের অভিযোগে তার দলের নেতা-কর্মীদের বিরুদ্ধে যেসব মামলা হয়েছে, সেগুলোর তদন্তে একটি বিচার বিভাগীয় কমিটি গঠন করা হোক। এ ঘটনায় এখন পর্যন্ত কোনো তদন্তই হয়নি। তথ্য-প্রমাণ লোপাট ও লুকিয়ে রাখাও এক ধরনের অপরাধ। একটি রাজনৈতিক দলকে ৯ মে’র ঘটনার ওপর ভিত্তি করে স্রেফ নাই করে ফেলা হচ্ছে।

 

 

এ মামলার বিচারে ন্যায্যতা নিশ্চিতের দাবি জানিয়ে ইমরান খান বলেন, পিটিআই নেতা-কর্মীদের মুক্তি দেওয়ার বিষয়টি কর্তৃপক্ষের ভেবে দেখা উচিত। যদি আপনারা আমাকে জেলে রাখতে চান, রাখুন। তার পরও বাকিদের ছেড়ে দিন।

 

এর আগে ইমরান খানকে গ্রেপ্তারের প্রতিবাদে পাকিস্তানজুড়ে বিক্ষোভ-মিছিল করেন ইমরান খানের ভক্ত-সমর্থকেরা। সরকার ও সেনাবাহিনীর অভিযোগ, সেদিন তার সমর্থকেরা দেশের বিভিন্ন স্থানে সেনা স্থাপনায় ভাঙচুর চালিয়েছিল। সেই অভিযোগে ইমরান খানসহ পিটিআইয়ের বিপুলসংখ্যক নেতা-কর্মীর বিরুদ্ধে মামলা দায়ের ও গ্রেপ্তার করা হয়।