০৬:১৪ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ৩০ মে ২০২৪, ১৬ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

ঋণের ভার সইতে না পেরে ফরিদগঞ্জে বৃদ্ধের আত্মহত্যা 

চাঁদপুরের ফরিদগঞ্জে ক্যান্সারে আক্রান্ত স্ত্রীকে বাঁচাতে বিভিন্ন ব্যাংক ও এনজিও সংস্থা থেকে ঋণ গ্রহণ করে সেই ঋণ পরিশোধে ব্যর্থ হয়ে এবং স্ত্রী’র সুচিকিৎসা করাতে না পেরে আবদুল মালেক মজুমদার (৬০) নামের এক বৃদ্ধা গলায় ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যা করেছেন। বৃহস্পতিবার (১৬ মে) ভোরে উপজেলার পাইকপাড়া উত্তর ইউনিয়নের শাশিয়ালী গ্রামের মজুমদার বাড়িতে এ ঘটনা ঘটে। সংবাদ পেয়ে পুলিশ তার মরদেহ উদ্ধার করে মর্গে পাঠিয়েছে। আবদুল মালেক মজুমদার উক্ত গ্রামের মৃত সেকান্দর আলীর ছেলে ও তিন সন্তানের জনক।
স্থানীয় গ্রাম পুলিশ সদস্য কবির হোসেন ও আজাদ জানান, আবদুল মালেক মজুমদার দীর্ঘদিন রাজধানী ঢাকাতে স্ত্রীসহ তিন সন্তান নিয়ে বসবাস করতেন। সেখানে তিনি ফলের ব্যবসা করতেন বলে শুনেছি। সম্প্রতি তার স্ত্রী ক্যান্সারে আক্রান্ত হলে তিনি স্ব-পরিবারে গ্রামের বাড়িতে চলে আসেন। পরে স্ত্রীর চিকিৎসার জন্য কয়েকটি ব্যাংক ও এনজিও সংস্থা থেকে ঋণ গ্রহণ করেন। আমরা শুনেছি সেই ঋণ পরিশোধে ব্যর্থ হয়ে এবং স্ত্রী’র সুচিকিৎসা করাতে না পেরে অদ্য ফজরের নামাজের পর তার বসত বাড়ির পাশে একটি গাছের সাথে গলায় লাইলনের রশি পেঁচিয়ে আত্মহত্যা করেন।
বিষয়টি নিয়ে ফরিদগঞ্জ থানার উপ-পুলিশ পরিদর্শক খোকন চন্দ্র দাশ বলেন, খবর পেয়ে ঘটনাস্থল থেকে মরদেহ উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য জেলা সদর হাসপাতালে প্রেরণ করেছি।

জামালপুরে শিক্ষার্থী হত্যা ও গুম করার উদ্দেশ্য : শাস্তির দাবিতে বিক্ষোভ

ঋণের ভার সইতে না পেরে ফরিদগঞ্জে বৃদ্ধের আত্মহত্যা 

আপডেট সময় : ০৪:২২:৫২ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ১৬ মে ২০২৪
চাঁদপুরের ফরিদগঞ্জে ক্যান্সারে আক্রান্ত স্ত্রীকে বাঁচাতে বিভিন্ন ব্যাংক ও এনজিও সংস্থা থেকে ঋণ গ্রহণ করে সেই ঋণ পরিশোধে ব্যর্থ হয়ে এবং স্ত্রী’র সুচিকিৎসা করাতে না পেরে আবদুল মালেক মজুমদার (৬০) নামের এক বৃদ্ধা গলায় ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যা করেছেন। বৃহস্পতিবার (১৬ মে) ভোরে উপজেলার পাইকপাড়া উত্তর ইউনিয়নের শাশিয়ালী গ্রামের মজুমদার বাড়িতে এ ঘটনা ঘটে। সংবাদ পেয়ে পুলিশ তার মরদেহ উদ্ধার করে মর্গে পাঠিয়েছে। আবদুল মালেক মজুমদার উক্ত গ্রামের মৃত সেকান্দর আলীর ছেলে ও তিন সন্তানের জনক।
স্থানীয় গ্রাম পুলিশ সদস্য কবির হোসেন ও আজাদ জানান, আবদুল মালেক মজুমদার দীর্ঘদিন রাজধানী ঢাকাতে স্ত্রীসহ তিন সন্তান নিয়ে বসবাস করতেন। সেখানে তিনি ফলের ব্যবসা করতেন বলে শুনেছি। সম্প্রতি তার স্ত্রী ক্যান্সারে আক্রান্ত হলে তিনি স্ব-পরিবারে গ্রামের বাড়িতে চলে আসেন। পরে স্ত্রীর চিকিৎসার জন্য কয়েকটি ব্যাংক ও এনজিও সংস্থা থেকে ঋণ গ্রহণ করেন। আমরা শুনেছি সেই ঋণ পরিশোধে ব্যর্থ হয়ে এবং স্ত্রী’র সুচিকিৎসা করাতে না পেরে অদ্য ফজরের নামাজের পর তার বসত বাড়ির পাশে একটি গাছের সাথে গলায় লাইলনের রশি পেঁচিয়ে আত্মহত্যা করেন।
বিষয়টি নিয়ে ফরিদগঞ্জ থানার উপ-পুলিশ পরিদর্শক খোকন চন্দ্র দাশ বলেন, খবর পেয়ে ঘটনাস্থল থেকে মরদেহ উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য জেলা সদর হাসপাতালে প্রেরণ করেছি।