১২:০৫ পূর্বাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ১৩ জুন ২০২৪, ২৯ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

টাইমস হায়ার এডুকেশনের বিষয়ভিত্তিক র‍্যাঙ্কিংয়ে স্থান পেল রাবির ৪ বিষয়

যুক্তরাজ্যভিত্তিক শিক্ষা সাময়িকী ‘টাইমস হায়ার এডুকেশন ওয়ার্ল্ড ইউনিভার্সিটি (টিএইচই)’ বিষয়ভিত্তিক র‍্যাঙ্কিং-২০২৪ প্রকাশ করেছে। এই তালিকায় প্রথমবারের মতো রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের ৪টি বিষয় স্থান পেয়েছে। বৃহস্পতিবার (২৬ অক্টোবর) প্রতিষ্ঠানটির ওয়েবসাইটে প্রকাশিত তালিকা থেকে এ তথ্য পাওয়া যায়।

আর্টস অ্যান্ড হিউম্যানিটিজ, বিজনেস অ্যান্ড ইকোনমিকস, ক্লিনিক্যাল অ্যান্ড হেলথ, কম্পিউটার সায়েন্স, শিক্ষা, ইঞ্জিনিয়ারিং, আইন, লাইফ সায়েন্স, ফিজিক্যাল সায়েন্স এবং সামাজিক বিজ্ঞান এই ১০ বিষয় নিয়ে তালিকা প্রকাশ করা হয়েছে।

প্রতিবেদন অনুযায়ী, বিষয়ভিত্তিক র‌্যাংকিংয়ে জায়গা করে নেওয়া রাবির বিষয় ৪টি হলো- ইঞ্জিনিয়ারিং (১৩৭৪ বিশ্ববিদ্যালয়ের মধ্যে অবস্থান ৬০১-৮০০), লাইফ সায়েন্সেস (১০৫৯ বিশ্ববিদ্যালয়ের মধ্যে অবস্থান ৮০১-১০০০), কম্পিউটার সায়েন্সেস (১০২৭ বিশ্ববিদ্যালয়ের মধ্যে অবস্থান ৮০১-১০০০) এবং ফিজিক্যাল সায়েন্সেস (১৩৭০ বিশ্ববিদ্যালয়ের মধ্যে অবস্থান ১০০১+)।

এই ৪টি বিষয়ের মধ্যে আবার বিভিন্ন বিষয় অন্তর্ভুক্ত রয়েছে। ইঞ্জিনিয়ারিং বিষয়ের মধ্যে রয়েছে- কেমিক্যাল ইঞ্জিনিয়ারিং, সিভিল ইঞ্জিনিয়ারিং, ইলেকট্রিক্যাল অ্যান্ড ইলেকট্রনিক ইঞ্জিনিয়ারিং, জেনারেল ইঞ্জিনিয়ারিং এবং মেকানিক্যাল অ্যান্ড এরোস্পেস ইঞ্জিনিয়ারিং।

লাইফ সায়েন্সেস বিষয়ের মধ্যে রয়েছে অ্যাগ্রিকালচার অ্যান্ড ফরেস্ট্রি, বায়োলজিক্যাল সায়েন্সেস, স্পোর্টস সায়েন্স, ভেটেরিনারি সায়েন্স। কম্পিউটার সায়েন্স বিষয়ের মধ্যে শুধু এই বিষয়টিই অন্তর্ভুক্ত রয়েছে। ফিজিক্যাল সায়েন্সেস বিষয়ের মধ্যে রয়েছে কেমিস্ট্রি; জিওলজি, এনভায়রনমেন্টাল, আর্থ অ্যান্ড মেরিন সায়েন্সেস; ম্যাথমেটিকস অ্যান্ড স্টাটিসটিক্স এবং ফিজিক্স অ্যান্ড অ্যাস্ট্রোনমি।

বিষয়ভিত্তিক র‌্যাংকিং করার সময় টিএইচই বিশ্ববিদ্যালয় র‌্যাংকিংয়ের সর্বমোট ১৩টি সুনির্দিষ্ট ইনডিকেটরের সাথে ঐ সুনির্দিষ্ট বিষয়গুলোর বিগত পাঁচ বছরের প্রকাশিত নির্দিষ্ট মানসম্পন্ন প্রবন্ধের ন্যূনতম সংখ্যা (বিষয় ভেদে ১০০ হতে ৫০০) বিবেচনা করে থাকে।

গত ২৭ সেপ্টেম্বর প্রতিষ্ঠানটির প্রকাশিত ওয়ার্ল্ড ইউনিভার্সিটি র‌্যাঙ্কিংয়-২০২৪ এ প্রথমবারের মতো দেশের সেরা বিশ্ববিদ্যালয়গুলোর তালিকায় নাম লেখার গৌরব অর্জন করে রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়। ১ হাজার ৯০৪ টি বিশ্ববিদ্যালয়ের মধ্যে ১০০১ থেকে ১২০০ এর মধ্যে অবস্থান ছিল বিশ্ববিদ্যালয়টির। এবার বিষয়ভিত্তিক র‌্যাংকিংয়ে জায়গা পেল বিশ্ববিদ্যালয়টির ৪টি বিষয়।

এ বিষয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের অফিস অব দ্য ইন্টারন্যাশনাল অ্যাফেয়ার্সের সহকারী পরিচালক ড. শামস মুহা. গালিব বলেন, এ ধরণের র‌্যাংকিং প্রস্তুতকারী প্রতিষ্ঠানগুলোকে বিশ্ববিদ্যালয়ের পক্ষ থেকেই ডেটা সরবরাহ করতে হয়। এই কাজটা আমরা আগে কখনোই করিনি। কিন্তু বর্তমান প্রশাসন এই বিষয়ে মনোযোগ দিয়েছে এবং উদ্যোগী হয়েছে। এ বছরের শুরু থেকে আমরা র‌্যাংকিং প্রস্তুতকারী প্রতিষ্ঠানগুলোকে ডেটাগুলো সরবারহ করার চেষ্টা করছি এবং সেটারই ফলাফল দৃশ্যমান হচ্ছে এখন।

তিনি আরও বলেন, টিএইচই-এর মতো বিশ্বসেরা র‌্যাংকিং বিষয়ক প্রতিষ্ঠানগুলো যেকোনো বিশ্ববিদ্যালয়ের কোয়ালিটির সবচেয়ে বড় ইনডিকেটর। আমাদের মতো বেশীর ভাগ উন্নয়নশীল দেশগুলির শিক্ষাব্যবস্থা উন্নত বিশ্বের দেশগুলির শিক্ষাব্যবস্থা হতে অনেক অনেক পিছিয়ে আছে। এ বছর আমাদের ৪টি বিষয় টিএইচই-এর র‌্যাংকিংয়ে স্থান পেয়েছে। আমরা আশা করি, সামনের বছরগুলিতে এই চারটির অবস্থানের উন্নয়নসহ অন্যান্য বিষয়গুলিও আমরা এই তালিকায় দেখতে পাবো। তবে সেজন্য সামগ্রিকভাবে সকলের অবদান দরকার।

জনপ্রিয় সংবাদ

টিউশনের নামে প্রতারণার ফাঁদ

টাইমস হায়ার এডুকেশনের বিষয়ভিত্তিক র‍্যাঙ্কিংয়ে স্থান পেল রাবির ৪ বিষয়

আপডেট সময় : ০৮:০৩:১৮ অপরাহ্ন, শনিবার, ২৮ অক্টোবর ২০২৩

যুক্তরাজ্যভিত্তিক শিক্ষা সাময়িকী ‘টাইমস হায়ার এডুকেশন ওয়ার্ল্ড ইউনিভার্সিটি (টিএইচই)’ বিষয়ভিত্তিক র‍্যাঙ্কিং-২০২৪ প্রকাশ করেছে। এই তালিকায় প্রথমবারের মতো রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের ৪টি বিষয় স্থান পেয়েছে। বৃহস্পতিবার (২৬ অক্টোবর) প্রতিষ্ঠানটির ওয়েবসাইটে প্রকাশিত তালিকা থেকে এ তথ্য পাওয়া যায়।

আর্টস অ্যান্ড হিউম্যানিটিজ, বিজনেস অ্যান্ড ইকোনমিকস, ক্লিনিক্যাল অ্যান্ড হেলথ, কম্পিউটার সায়েন্স, শিক্ষা, ইঞ্জিনিয়ারিং, আইন, লাইফ সায়েন্স, ফিজিক্যাল সায়েন্স এবং সামাজিক বিজ্ঞান এই ১০ বিষয় নিয়ে তালিকা প্রকাশ করা হয়েছে।

প্রতিবেদন অনুযায়ী, বিষয়ভিত্তিক র‌্যাংকিংয়ে জায়গা করে নেওয়া রাবির বিষয় ৪টি হলো- ইঞ্জিনিয়ারিং (১৩৭৪ বিশ্ববিদ্যালয়ের মধ্যে অবস্থান ৬০১-৮০০), লাইফ সায়েন্সেস (১০৫৯ বিশ্ববিদ্যালয়ের মধ্যে অবস্থান ৮০১-১০০০), কম্পিউটার সায়েন্সেস (১০২৭ বিশ্ববিদ্যালয়ের মধ্যে অবস্থান ৮০১-১০০০) এবং ফিজিক্যাল সায়েন্সেস (১৩৭০ বিশ্ববিদ্যালয়ের মধ্যে অবস্থান ১০০১+)।

এই ৪টি বিষয়ের মধ্যে আবার বিভিন্ন বিষয় অন্তর্ভুক্ত রয়েছে। ইঞ্জিনিয়ারিং বিষয়ের মধ্যে রয়েছে- কেমিক্যাল ইঞ্জিনিয়ারিং, সিভিল ইঞ্জিনিয়ারিং, ইলেকট্রিক্যাল অ্যান্ড ইলেকট্রনিক ইঞ্জিনিয়ারিং, জেনারেল ইঞ্জিনিয়ারিং এবং মেকানিক্যাল অ্যান্ড এরোস্পেস ইঞ্জিনিয়ারিং।

লাইফ সায়েন্সেস বিষয়ের মধ্যে রয়েছে অ্যাগ্রিকালচার অ্যান্ড ফরেস্ট্রি, বায়োলজিক্যাল সায়েন্সেস, স্পোর্টস সায়েন্স, ভেটেরিনারি সায়েন্স। কম্পিউটার সায়েন্স বিষয়ের মধ্যে শুধু এই বিষয়টিই অন্তর্ভুক্ত রয়েছে। ফিজিক্যাল সায়েন্সেস বিষয়ের মধ্যে রয়েছে কেমিস্ট্রি; জিওলজি, এনভায়রনমেন্টাল, আর্থ অ্যান্ড মেরিন সায়েন্সেস; ম্যাথমেটিকস অ্যান্ড স্টাটিসটিক্স এবং ফিজিক্স অ্যান্ড অ্যাস্ট্রোনমি।

বিষয়ভিত্তিক র‌্যাংকিং করার সময় টিএইচই বিশ্ববিদ্যালয় র‌্যাংকিংয়ের সর্বমোট ১৩টি সুনির্দিষ্ট ইনডিকেটরের সাথে ঐ সুনির্দিষ্ট বিষয়গুলোর বিগত পাঁচ বছরের প্রকাশিত নির্দিষ্ট মানসম্পন্ন প্রবন্ধের ন্যূনতম সংখ্যা (বিষয় ভেদে ১০০ হতে ৫০০) বিবেচনা করে থাকে।

গত ২৭ সেপ্টেম্বর প্রতিষ্ঠানটির প্রকাশিত ওয়ার্ল্ড ইউনিভার্সিটি র‌্যাঙ্কিংয়-২০২৪ এ প্রথমবারের মতো দেশের সেরা বিশ্ববিদ্যালয়গুলোর তালিকায় নাম লেখার গৌরব অর্জন করে রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়। ১ হাজার ৯০৪ টি বিশ্ববিদ্যালয়ের মধ্যে ১০০১ থেকে ১২০০ এর মধ্যে অবস্থান ছিল বিশ্ববিদ্যালয়টির। এবার বিষয়ভিত্তিক র‌্যাংকিংয়ে জায়গা পেল বিশ্ববিদ্যালয়টির ৪টি বিষয়।

এ বিষয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের অফিস অব দ্য ইন্টারন্যাশনাল অ্যাফেয়ার্সের সহকারী পরিচালক ড. শামস মুহা. গালিব বলেন, এ ধরণের র‌্যাংকিং প্রস্তুতকারী প্রতিষ্ঠানগুলোকে বিশ্ববিদ্যালয়ের পক্ষ থেকেই ডেটা সরবরাহ করতে হয়। এই কাজটা আমরা আগে কখনোই করিনি। কিন্তু বর্তমান প্রশাসন এই বিষয়ে মনোযোগ দিয়েছে এবং উদ্যোগী হয়েছে। এ বছরের শুরু থেকে আমরা র‌্যাংকিং প্রস্তুতকারী প্রতিষ্ঠানগুলোকে ডেটাগুলো সরবারহ করার চেষ্টা করছি এবং সেটারই ফলাফল দৃশ্যমান হচ্ছে এখন।

তিনি আরও বলেন, টিএইচই-এর মতো বিশ্বসেরা র‌্যাংকিং বিষয়ক প্রতিষ্ঠানগুলো যেকোনো বিশ্ববিদ্যালয়ের কোয়ালিটির সবচেয়ে বড় ইনডিকেটর। আমাদের মতো বেশীর ভাগ উন্নয়নশীল দেশগুলির শিক্ষাব্যবস্থা উন্নত বিশ্বের দেশগুলির শিক্ষাব্যবস্থা হতে অনেক অনেক পিছিয়ে আছে। এ বছর আমাদের ৪টি বিষয় টিএইচই-এর র‌্যাংকিংয়ে স্থান পেয়েছে। আমরা আশা করি, সামনের বছরগুলিতে এই চারটির অবস্থানের উন্নয়নসহ অন্যান্য বিষয়গুলিও আমরা এই তালিকায় দেখতে পাবো। তবে সেজন্য সামগ্রিকভাবে সকলের অবদান দরকার।