০১:৪৬ পূর্বাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ১৩ জুন ২০২৪, ২৯ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

ভাঙা সেতুতে কাঠ ও গাছের গুঁড়ি দিয়ে জোড়াতালি

  • সবুজ বাংলা
  • আপডেট সময় : ০৩:১৫:২৭ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ১০ নভেম্বর ২০২৩
  • 21

সিরাজগঞ্জ প্রতিনিধি

সিরাজগঞ্জের রায়গঞ্জে খালের ওপর নির্মিত একটি সেতু পথচারীদের মরণ ফাঁদে পরিণত হয়ে দাড়িয়েছে। সেতুর মাঝের অংশ ভেঙে নিচে পড়ে গেছে। দেখা যাচ্ছে শুধু রড। কাঠ ও গাছের গুঁড়ি দিয়ে জোড়াতালির পর চলাচল করছে হাজারো মানুষ।

রায়গঞ্জ উপজেলার ধুবিল ইউনিয়নের ঝাউল গ্রামে সরজমিনে গিয়ে জানা যায়, দীর্ঘ সময় ধরে এ সেতুটি ভেঙে চলাচলের অযোগ্য হয়ে পড়ায় স্থানীয়রা ইউক্যালিপটাস গাছ ও নারিকেল গাছের গুঁড়ি এবং কাঠ দিয়ে জোড়াতালি মেরে কোনোরকম চলাচল করছেন। ব্রিজে ঝুঁকি নিয়ে চলাচল করতে গিয়ে প্রতিদিন ঘটছে দুর্ঘটনা।

স্থানীয় কৃষক হযরত আলী বলেন, ব্রিজটি বিএনপির আমলের হয়েছিল। কয়েক বছর ধরে সেতুর মাঝে একটু দেবে যায়। কিন্তু সম্প্রতি দেবে যাওয়া অংশে শুধু রড বের হয়ে আছে। এতে যেকোনো সময় মারাত্মক দুর্ঘটনা ঘটতে পারে। এ জন্য গ্রামের লোকজন কাঠ ও নারিকেল গাছের গুঁড়ি দিয়ে জোড়াতালি দিয়েছে।

নাম প্রকাশ না করার শর্তে এক স্কুল শিক্ষক বলেন, সেতুটি দিয়ে এলাকার ব্যবসা-বাণিজ্যসহ কৃষি মালামাল পরিবহন করা হয়। এ রাস্তা ছাড়া সলঙ্গা থেকে নিমগাছী বাজারে যাওয়ার কোনো বিকল্প ব্যবস্থা নেই। প্রতিদিন কয়েক হাজার মানুষ ব্রিজ দিয়ে চলাচল করে। ব্রিজটি সংস্কারের জন্য শুনেছি সরকারি বরাদ্দ হয়েছে। কিন্তু কাজ তো দেখি না।

রায়গঞ্জ উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ইমরুল হোসেন তালুকদার বলেন, ওই ব্রিজের সংস্কার কাজের জন্য উপজেলা পরিষদ থেকে ২ লাখ টাকা বরাদ্দ দেওয়া হয়েছে। দুয়েক দিনের মধ্যেই হয়তো ঠিকাদার কাজ শুরু করবে।

এ বিষয়ে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) তৃপ্তি কণা মন্ডল বলেন, সাধারণ মানুষের দুর্ভোগের কথা বিবেচনা করে ওই সেতুর সংস্কারের জন্য বরাদ্দ দেওয়া হয়েছে। অল্প দিনের মধ্যেই এ দুর্ভোগ দূর হবে।

জনপ্রিয় সংবাদ

টিউশনের নামে প্রতারণার ফাঁদ

ভাঙা সেতুতে কাঠ ও গাছের গুঁড়ি দিয়ে জোড়াতালি

আপডেট সময় : ০৩:১৫:২৭ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ১০ নভেম্বর ২০২৩

সিরাজগঞ্জ প্রতিনিধি

সিরাজগঞ্জের রায়গঞ্জে খালের ওপর নির্মিত একটি সেতু পথচারীদের মরণ ফাঁদে পরিণত হয়ে দাড়িয়েছে। সেতুর মাঝের অংশ ভেঙে নিচে পড়ে গেছে। দেখা যাচ্ছে শুধু রড। কাঠ ও গাছের গুঁড়ি দিয়ে জোড়াতালির পর চলাচল করছে হাজারো মানুষ।

রায়গঞ্জ উপজেলার ধুবিল ইউনিয়নের ঝাউল গ্রামে সরজমিনে গিয়ে জানা যায়, দীর্ঘ সময় ধরে এ সেতুটি ভেঙে চলাচলের অযোগ্য হয়ে পড়ায় স্থানীয়রা ইউক্যালিপটাস গাছ ও নারিকেল গাছের গুঁড়ি এবং কাঠ দিয়ে জোড়াতালি মেরে কোনোরকম চলাচল করছেন। ব্রিজে ঝুঁকি নিয়ে চলাচল করতে গিয়ে প্রতিদিন ঘটছে দুর্ঘটনা।

স্থানীয় কৃষক হযরত আলী বলেন, ব্রিজটি বিএনপির আমলের হয়েছিল। কয়েক বছর ধরে সেতুর মাঝে একটু দেবে যায়। কিন্তু সম্প্রতি দেবে যাওয়া অংশে শুধু রড বের হয়ে আছে। এতে যেকোনো সময় মারাত্মক দুর্ঘটনা ঘটতে পারে। এ জন্য গ্রামের লোকজন কাঠ ও নারিকেল গাছের গুঁড়ি দিয়ে জোড়াতালি দিয়েছে।

নাম প্রকাশ না করার শর্তে এক স্কুল শিক্ষক বলেন, সেতুটি দিয়ে এলাকার ব্যবসা-বাণিজ্যসহ কৃষি মালামাল পরিবহন করা হয়। এ রাস্তা ছাড়া সলঙ্গা থেকে নিমগাছী বাজারে যাওয়ার কোনো বিকল্প ব্যবস্থা নেই। প্রতিদিন কয়েক হাজার মানুষ ব্রিজ দিয়ে চলাচল করে। ব্রিজটি সংস্কারের জন্য শুনেছি সরকারি বরাদ্দ হয়েছে। কিন্তু কাজ তো দেখি না।

রায়গঞ্জ উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ইমরুল হোসেন তালুকদার বলেন, ওই ব্রিজের সংস্কার কাজের জন্য উপজেলা পরিষদ থেকে ২ লাখ টাকা বরাদ্দ দেওয়া হয়েছে। দুয়েক দিনের মধ্যেই হয়তো ঠিকাদার কাজ শুরু করবে।

এ বিষয়ে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) তৃপ্তি কণা মন্ডল বলেন, সাধারণ মানুষের দুর্ভোগের কথা বিবেচনা করে ওই সেতুর সংস্কারের জন্য বরাদ্দ দেওয়া হয়েছে। অল্প দিনের মধ্যেই এ দুর্ভোগ দূর হবে।