০৩:২৪ পূর্বাহ্ন, শুক্রবার, ২১ জুন ২০২৪, ৬ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

চিলিতে ভয়াবহ দাবানলে নিহতের সংখ্যা ৫১

দক্ষিণ আমেরিকার দেশ চিলিতে ভয়াবহ দাবানল ছড়িয়ে পড়েছে। এতে নিহতের সংখ্যা বেড়ে ৫১ জনে দাঁড়িয়েছে। তবে এ ঘটনায় হতাহতের সংখ্যা আরও বাড়তে পারে। তাছাড়া শহর এলাকায় যাতে আগুন ছড়িয়ে পড়তে না পারে সে জন্য দেশটির জরুরি সার্ভিস বিভাগ কাজ করছে।

মধ্য চিলিতে প্রায় ১০ লাখ মানুষের বাসস্থান ভালপারাইসো অঞ্চলের অনেক অংশে কালো ধোঁয়ায় আকাশ ঢেকে গেছে। দমকলকর্মীরা হেলিকপ্টার ও ট্রাক ব্যবহার করে আগুন নিয়ন্ত্রণের চেষ্টা করছেন।

সেখানের কর্তৃপক্ষ জানিয়েছেন, দাবনলে সবচেয়ে বেশি ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছে উপকূলীয় শহর ভিনা ডেল মার। সবজায়গায় পৌঁছাতে হিমশিম খাচ্ছে উদ্ধারকারীরা।

দেশটির স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী ক্যারোলিনা তোহা জানিয়েছেন, ২০১০ সালের ভূমিকম্পের পর সবচেয়ে বড় দুর্যোগের মুখোমুখি তার দেশ। ওই ভূম্পিকম্পে প্রায় ৫০ মানুষের মৃত্যু হয়েছিল।

গত শুক্রবার চিলিতে দাবানলের সূত্রপাত হয়। এরপর থেকেই পরিস্থিতি খারাপ হতে শুরু করে। সে কারণে দেশজুড়ে জরুরি অবস্থা জারি করতে বাধ্য হয়েছেন দেশটির প্রেসিডেন্ট গ্যাব্রিয়েল বোরিক।

এর আগে প্রেসিডেন্ট এক বিবৃতিতে জানিয়েছেন, দাবানল পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে সব ধরনের কৌশল ব্যবহারের নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। তিনি জানিয়েছেন, আগুন নিয়ন্ত্রণে এরই মধ্যে সব বাহিনীর সদস্যদের মোতায়েন করা হয়েছে।

 

 

 

স/ম

জনপ্রিয় সংবাদ

শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে গ্রীষ্মের ছুটি কমল

চিলিতে ভয়াবহ দাবানলে নিহতের সংখ্যা ৫১

আপডেট সময় : ১২:২৬:৫৮ অপরাহ্ন, রবিবার, ৪ ফেব্রুয়ারী ২০২৪

দক্ষিণ আমেরিকার দেশ চিলিতে ভয়াবহ দাবানল ছড়িয়ে পড়েছে। এতে নিহতের সংখ্যা বেড়ে ৫১ জনে দাঁড়িয়েছে। তবে এ ঘটনায় হতাহতের সংখ্যা আরও বাড়তে পারে। তাছাড়া শহর এলাকায় যাতে আগুন ছড়িয়ে পড়তে না পারে সে জন্য দেশটির জরুরি সার্ভিস বিভাগ কাজ করছে।

মধ্য চিলিতে প্রায় ১০ লাখ মানুষের বাসস্থান ভালপারাইসো অঞ্চলের অনেক অংশে কালো ধোঁয়ায় আকাশ ঢেকে গেছে। দমকলকর্মীরা হেলিকপ্টার ও ট্রাক ব্যবহার করে আগুন নিয়ন্ত্রণের চেষ্টা করছেন।

সেখানের কর্তৃপক্ষ জানিয়েছেন, দাবনলে সবচেয়ে বেশি ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছে উপকূলীয় শহর ভিনা ডেল মার। সবজায়গায় পৌঁছাতে হিমশিম খাচ্ছে উদ্ধারকারীরা।

দেশটির স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী ক্যারোলিনা তোহা জানিয়েছেন, ২০১০ সালের ভূমিকম্পের পর সবচেয়ে বড় দুর্যোগের মুখোমুখি তার দেশ। ওই ভূম্পিকম্পে প্রায় ৫০ মানুষের মৃত্যু হয়েছিল।

গত শুক্রবার চিলিতে দাবানলের সূত্রপাত হয়। এরপর থেকেই পরিস্থিতি খারাপ হতে শুরু করে। সে কারণে দেশজুড়ে জরুরি অবস্থা জারি করতে বাধ্য হয়েছেন দেশটির প্রেসিডেন্ট গ্যাব্রিয়েল বোরিক।

এর আগে প্রেসিডেন্ট এক বিবৃতিতে জানিয়েছেন, দাবানল পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে সব ধরনের কৌশল ব্যবহারের নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। তিনি জানিয়েছেন, আগুন নিয়ন্ত্রণে এরই মধ্যে সব বাহিনীর সদস্যদের মোতায়েন করা হয়েছে।

 

 

 

স/ম