১১:৪৫ অপরাহ্ন, বুধবার, ১২ জুন ২০২৪, ২৯ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

চবিতে আয়োজিত কবি নজরুলের ১২৫ তম জন্মজয়ন্তী

জাতীয় কবি কাজী নজরুল ইসলামের ১২৫তম জন্মজয়ন্তী উপলক্ষে চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় নজরুল গবেষণা কেন্দ্রের উদ্যোগে আলোচনাসভা ও৷ সংগীত অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়েছে।
মঙ্গলবার (১১ জুন) বিশ্ববিদ্যালয়ের ব্যবসায় প্রশাসন অনুষদ মিলনায়তনে পালিত হয় এই আয়োজন। এতে পার্থ প্রতিম মহাজন ও নাজরাতুন নাঈম তিভার সঞ্চালনায় ও চবি নজরুল গবেষণা কেন্দ্রের পরিচালক অধ্যাপক ড. মোহাম্মদ আনোয়ার সাঈদের সভাপতিত্বে  প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন  উপাচার্য অধ্যাপক ড. মো. আবু তাহের, বিশেষ অতিথি ছিলেন, উপ উপাচার্য (প্রশাসন) অধ্যাপক ড. মো. সেকান্দর চৌধুরী। এতে মূল প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন, বিশিষ্ট নজরুল গবেষক ও জাতীয় কবি কাজী নজরুল ইসলাম জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড. সৌমিত্র শেখর।
আলোচনা সভায় আলোচক হিসেবে আরও উপস্থিত ছিলেন, চবি বাংলা বিভাগের অধ্যাপক ড. মোহাম্মদ মহীবুল আজিজ ও অধ্যাপক ড. মোহাম্মদ শেখ সাদী। চবি উপাচার্য তাঁর বক্তব্যে  বলেন, “কবি কাজী নজরুল ইসলাম এর পরিচিতি বহুমাত্রিক। তিনি আমাদের জাতীয় কবি। তঁার জীবনাদর্শন যেন এক উজ্জ্বল আলোকবর্তিকা। বহুমাত্রিক প্রতিভাধর এ কবির কবিতা, গল্প, সাহিত্য, নাটক, সংগীত, প্রবন্ধ জয় করেছে বাঙ্গালীর হৃদয়। দারিদ্র্য, সামাজিক বৈষম্য, শোষণ-বঞ্চনা, ধমর্ীয় গোঁড়ামির বিরুদ্ধে তিনি ছিলেন সর্বদা সোচ্চার। লেখনীর মাধ্যমে কবি নজরুল অন্যায়ের বিরুদ্ধে এবং সত্য ও সুন্দরের পক্ষে সংগ্রাম করে গেছেন।”
 উপাচার্য আরও বলেন, ‘তারুণ্য, উদ্যম, প্রেম, ভালবাসা, সাম্য ও বিদ্রোহ নজরুলের জীবনে যেন নিবিড়ভাবে জড়িত। দ্রোহ, ভালোবাসা ও মানবতার কবি তঁার জীবনে জাতি, ধর্ম, বর্ণ নির্বিশেষে সকলের জন্য কাজ করে গেছেন।’ প্রসঙ্গক্রমে মাননীয় উপাচার্য বলেন, “কবি নজরুলের বিদ্রোহী, প্রতিবাদী, চেতনামূলক গান, কবিতা বাংলাদেশের মহান স্বাধীনতা যুদ্ধে অনুপ্রেরণা হিসেবে কাজ করেছে।” তিনি তরুন প্রজন্মকে নজরুলের জীবনাদর্শ ধারণ, লালন ও চর্চার মাধ্যমে মানবতাবাদী মানুষ হিসেবে গড়ে উঠার আহবান জানান।
সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানে নজরুল সঙ্গীত পরিবেশন করেন, ছায়ানটের(কোলকাতা) সভাপতি ও নজরুল সঙ্গীত শিল্পী সোমঋতা মল্লিক।
জনপ্রিয় সংবাদ

টিউশনের নামে প্রতারণার ফাঁদ

চবিতে আয়োজিত কবি নজরুলের ১২৫ তম জন্মজয়ন্তী

আপডেট সময় : ০৮:০৪:৫৩ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ১১ জুন ২০২৪
জাতীয় কবি কাজী নজরুল ইসলামের ১২৫তম জন্মজয়ন্তী উপলক্ষে চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় নজরুল গবেষণা কেন্দ্রের উদ্যোগে আলোচনাসভা ও৷ সংগীত অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়েছে।
মঙ্গলবার (১১ জুন) বিশ্ববিদ্যালয়ের ব্যবসায় প্রশাসন অনুষদ মিলনায়তনে পালিত হয় এই আয়োজন। এতে পার্থ প্রতিম মহাজন ও নাজরাতুন নাঈম তিভার সঞ্চালনায় ও চবি নজরুল গবেষণা কেন্দ্রের পরিচালক অধ্যাপক ড. মোহাম্মদ আনোয়ার সাঈদের সভাপতিত্বে  প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন  উপাচার্য অধ্যাপক ড. মো. আবু তাহের, বিশেষ অতিথি ছিলেন, উপ উপাচার্য (প্রশাসন) অধ্যাপক ড. মো. সেকান্দর চৌধুরী। এতে মূল প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন, বিশিষ্ট নজরুল গবেষক ও জাতীয় কবি কাজী নজরুল ইসলাম জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড. সৌমিত্র শেখর।
আলোচনা সভায় আলোচক হিসেবে আরও উপস্থিত ছিলেন, চবি বাংলা বিভাগের অধ্যাপক ড. মোহাম্মদ মহীবুল আজিজ ও অধ্যাপক ড. মোহাম্মদ শেখ সাদী। চবি উপাচার্য তাঁর বক্তব্যে  বলেন, “কবি কাজী নজরুল ইসলাম এর পরিচিতি বহুমাত্রিক। তিনি আমাদের জাতীয় কবি। তঁার জীবনাদর্শন যেন এক উজ্জ্বল আলোকবর্তিকা। বহুমাত্রিক প্রতিভাধর এ কবির কবিতা, গল্প, সাহিত্য, নাটক, সংগীত, প্রবন্ধ জয় করেছে বাঙ্গালীর হৃদয়। দারিদ্র্য, সামাজিক বৈষম্য, শোষণ-বঞ্চনা, ধমর্ীয় গোঁড়ামির বিরুদ্ধে তিনি ছিলেন সর্বদা সোচ্চার। লেখনীর মাধ্যমে কবি নজরুল অন্যায়ের বিরুদ্ধে এবং সত্য ও সুন্দরের পক্ষে সংগ্রাম করে গেছেন।”
 উপাচার্য আরও বলেন, ‘তারুণ্য, উদ্যম, প্রেম, ভালবাসা, সাম্য ও বিদ্রোহ নজরুলের জীবনে যেন নিবিড়ভাবে জড়িত। দ্রোহ, ভালোবাসা ও মানবতার কবি তঁার জীবনে জাতি, ধর্ম, বর্ণ নির্বিশেষে সকলের জন্য কাজ করে গেছেন।’ প্রসঙ্গক্রমে মাননীয় উপাচার্য বলেন, “কবি নজরুলের বিদ্রোহী, প্রতিবাদী, চেতনামূলক গান, কবিতা বাংলাদেশের মহান স্বাধীনতা যুদ্ধে অনুপ্রেরণা হিসেবে কাজ করেছে।” তিনি তরুন প্রজন্মকে নজরুলের জীবনাদর্শ ধারণ, লালন ও চর্চার মাধ্যমে মানবতাবাদী মানুষ হিসেবে গড়ে উঠার আহবান জানান।
সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানে নজরুল সঙ্গীত পরিবেশন করেন, ছায়ানটের(কোলকাতা) সভাপতি ও নজরুল সঙ্গীত শিল্পী সোমঋতা মল্লিক।