০৬:৪০ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ১৬ জুলাই ২০২৪, ১ শ্রাবণ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

রাজশাহীতে ভারতীয় ভিসা পেতে জাল ডকুমেন্ট: গ্রেফতার ২

  • সবুজ বাংলা
  • আপডেট সময় : ০৪:৪৯:৩৩ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ১০ অক্টোবর ২০২৩
  • 29

রাজশাহীতে ভারতীয় ভিসার জন্য জাল ডকুমেন্ট প্রদান করায় দুজনকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। সোমবার দুপুরে নগরীর বর্ণালী
মোড়ে রাজশাহী ভারতীয় ভিসা সেন্টার থেকে তাদের গ্রেফতার করা হয়। গ্রেফতাররা হলেন, পাবনার ঈশ্বরদী উপজেলার সিভিলহাট তালতলা এলাকার দেলোয়ার হোসেনের ছেলে মো. জমির (৩৪) ও একই উপজেলার পেয়ারাখালি এলাকার শাহ্ধসঢ়; আলমের ছেলে মো. সুমন (২৫)।
রাজশাহী নগরীর বোয়ালিয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) সোহরাওয়ার্দী হোসেন এসব তথ্য নিশ্চিত করেছেন। রাজশাহী ভারতীয় ভিসা সেন্টারের সুপারভাইজার বিল্পব কুমার সাহা বলেন, তারা ৫ বছরের ব্যবসায়ী ভিসার জন্য আবেদন করেছিলেন। আজ ভিসার আবেদন জমা দিতে গেলে তাদের কাগজপত্র যাচাই- বাছাইকালে বোঝা যায় এগুলো জাল ডকুমেন্ট। তাই তাদের আটক করে জিজ্ঞাসাবাদ করা হয়। তারা জানান কামাল নামের এক দালালের কাছে ৮ মাস ঘুরে আজ তারা সেটি জমা দিতে এসেছেন।
ভিসার জন্য তারা টাকার বিনিময়ে চুক্তি করেন। তিনি আরও বলেন, এর আগেও তারা জাল ডকুমেন্ট দিয়ে ব্যবসায়ী ভিসা নিয়েছেন। তাদের দুজনের ৬টি করে মোট ১২টি পাসপোর্ট আছে। একাধিকবার ভারত গেছেন। জালিয়াতির অভিযোগ তাদের পুলিশের হাতে তুলে দেওয়া হয়েছে।
বোয়ালিয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) সোহরাওয়ার্দী হোসেন বলেন, ভিসার জন্য জাল ডকুমেন্ট ব্যবহারের জন্য দুজনকে
গ্রেফতার করা হয়েছে। তাদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করা হচ্ছে। এর পাশাপাশি এই চক্রের সঙ্গে কারা কারা জড়িতে সেটিও খুঁজে বের করা হবে।

কোটা আন্দোলন : চট্টগ্রামে সংঘর্ষে নিহতের সংখ্যা বেড়ে ৩

রাজশাহীতে ভারতীয় ভিসা পেতে জাল ডকুমেন্ট: গ্রেফতার ২

আপডেট সময় : ০৪:৪৯:৩৩ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ১০ অক্টোবর ২০২৩

রাজশাহীতে ভারতীয় ভিসার জন্য জাল ডকুমেন্ট প্রদান করায় দুজনকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। সোমবার দুপুরে নগরীর বর্ণালী
মোড়ে রাজশাহী ভারতীয় ভিসা সেন্টার থেকে তাদের গ্রেফতার করা হয়। গ্রেফতাররা হলেন, পাবনার ঈশ্বরদী উপজেলার সিভিলহাট তালতলা এলাকার দেলোয়ার হোসেনের ছেলে মো. জমির (৩৪) ও একই উপজেলার পেয়ারাখালি এলাকার শাহ্ধসঢ়; আলমের ছেলে মো. সুমন (২৫)।
রাজশাহী নগরীর বোয়ালিয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) সোহরাওয়ার্দী হোসেন এসব তথ্য নিশ্চিত করেছেন। রাজশাহী ভারতীয় ভিসা সেন্টারের সুপারভাইজার বিল্পব কুমার সাহা বলেন, তারা ৫ বছরের ব্যবসায়ী ভিসার জন্য আবেদন করেছিলেন। আজ ভিসার আবেদন জমা দিতে গেলে তাদের কাগজপত্র যাচাই- বাছাইকালে বোঝা যায় এগুলো জাল ডকুমেন্ট। তাই তাদের আটক করে জিজ্ঞাসাবাদ করা হয়। তারা জানান কামাল নামের এক দালালের কাছে ৮ মাস ঘুরে আজ তারা সেটি জমা দিতে এসেছেন।
ভিসার জন্য তারা টাকার বিনিময়ে চুক্তি করেন। তিনি আরও বলেন, এর আগেও তারা জাল ডকুমেন্ট দিয়ে ব্যবসায়ী ভিসা নিয়েছেন। তাদের দুজনের ৬টি করে মোট ১২টি পাসপোর্ট আছে। একাধিকবার ভারত গেছেন। জালিয়াতির অভিযোগ তাদের পুলিশের হাতে তুলে দেওয়া হয়েছে।
বোয়ালিয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) সোহরাওয়ার্দী হোসেন বলেন, ভিসার জন্য জাল ডকুমেন্ট ব্যবহারের জন্য দুজনকে
গ্রেফতার করা হয়েছে। তাদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করা হচ্ছে। এর পাশাপাশি এই চক্রের সঙ্গে কারা কারা জড়িতে সেটিও খুঁজে বের করা হবে।