০৯:৩৩ অপরাহ্ন, রবিবার, ০৩ মার্চ ২০২৪, ২০ ফাল্গুন ১৪৩০ বঙ্গাব্দ

পানছড়ি বাজার বয়কট সাময়িক স্থগিতের সিদ্ধান্ত

 

ইউনাইটেড পিপলস ডেমোক্রেটিক ফ্রন্ট (ইউপিডিএফ) পানছড়ি ইউনিট চলমান পানছড়ি বাজার বয়কট কর্মসূচি সাময়িকভাবে স্থগিত রাখার সিদ্ধান্ত নিয়েছে।
স্থানীয় প্রশাসনের অনুরোধের প্রেক্ষিতে এবং সাধারণ পাহাড়ি—বাঙালি জনগণের অসুবিধার কথা বিবেচনা করে উক্ত সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে বলে ইউপিডিএফ পানছড়ি ইউনিটের সংগঠক অপু ত্রিপুরা আজ ২৯ জানুয়ারি ২০২৪, সোমবার সংবাদ মাধ্যমে দেয়া এক বিবৃতিতে জানিয়েছেন।

সিদ্ধান্ত মোতাবেক আগামী ১ ফেব্রুয়ারি থেকে ১৫ ফেব্রুয়ারি ২০২৪ পর্যন্ত বাজার বয়কট কর্মসূচি স্থগিত থাকবে; উক্ত সময়ের মধ্যে দাবি পূরণ করা না হলে বা দাবি পূরণে দৃশ্যমান অগ্রগতি পরিলক্ষিত না হলে বাজার বয়কট পুনরায় চলবে বলে তিনি জানান।

ইউপিডিএফ নেতা ক্ষোভের সাথে বলেন, বিপুল চাকমাসহ চার যুব নেতার খুনীদের গ্রেফতার না করার কারণে গত ২৪ জানুয়ারি মহালছড়িতে তারা আরও দুই ইউপিডিএফ কমীর্কে হত্যা করেছে।

এ হত্যার দায় স্থানীয় সামরিক ও বেসামরিক প্রশাসনকে নিতে হবে বলে তিনি মন্তব্য করেন এবং অবিলম্বে খুনীদের গ্রেফতার ও বিচার এবং ঠ্যাঙাড়ে বাহিনী ভেঙে দেয়ার দাবি জানান।

উল্লেখ্য, গত ১১ ডিসেম্বর খাগড়াছড়ির পানছড়ির অনিলপাড়ায় ইউপিডিএফ-ভুক্ত গণসংগঠনের নেতা বিপুল চাকমা, সুনীল ত্রিপুরা, লিটন চাকমা ও রুহিন ত্রিপুরাকে হত্যার পর ইউপিডিএফ পানছড়ি ইউনিট খুনীদের গ্রেফতার ও ঠ্যাঙাড়ে বাহিনী ভেঙে দেয়ার দাবিতে উক্ত বাজার বয়কট কর্মসূচি ঘোষণা করেছে।

কাপ্তাইয়ে সড়ক দূর্ঘটনায় এক শিক্ষার্থীর মৃত্যু : আহত ২ জন

পানছড়ি বাজার বয়কট সাময়িক স্থগিতের সিদ্ধান্ত

আপডেট সময় : ০৭:২৭:৩১ অপরাহ্ন, সোমবার, ২৯ জানুয়ারী ২০২৪

 

ইউনাইটেড পিপলস ডেমোক্রেটিক ফ্রন্ট (ইউপিডিএফ) পানছড়ি ইউনিট চলমান পানছড়ি বাজার বয়কট কর্মসূচি সাময়িকভাবে স্থগিত রাখার সিদ্ধান্ত নিয়েছে।
স্থানীয় প্রশাসনের অনুরোধের প্রেক্ষিতে এবং সাধারণ পাহাড়ি—বাঙালি জনগণের অসুবিধার কথা বিবেচনা করে উক্ত সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে বলে ইউপিডিএফ পানছড়ি ইউনিটের সংগঠক অপু ত্রিপুরা আজ ২৯ জানুয়ারি ২০২৪, সোমবার সংবাদ মাধ্যমে দেয়া এক বিবৃতিতে জানিয়েছেন।

সিদ্ধান্ত মোতাবেক আগামী ১ ফেব্রুয়ারি থেকে ১৫ ফেব্রুয়ারি ২০২৪ পর্যন্ত বাজার বয়কট কর্মসূচি স্থগিত থাকবে; উক্ত সময়ের মধ্যে দাবি পূরণ করা না হলে বা দাবি পূরণে দৃশ্যমান অগ্রগতি পরিলক্ষিত না হলে বাজার বয়কট পুনরায় চলবে বলে তিনি জানান।

ইউপিডিএফ নেতা ক্ষোভের সাথে বলেন, বিপুল চাকমাসহ চার যুব নেতার খুনীদের গ্রেফতার না করার কারণে গত ২৪ জানুয়ারি মহালছড়িতে তারা আরও দুই ইউপিডিএফ কমীর্কে হত্যা করেছে।

এ হত্যার দায় স্থানীয় সামরিক ও বেসামরিক প্রশাসনকে নিতে হবে বলে তিনি মন্তব্য করেন এবং অবিলম্বে খুনীদের গ্রেফতার ও বিচার এবং ঠ্যাঙাড়ে বাহিনী ভেঙে দেয়ার দাবি জানান।

উল্লেখ্য, গত ১১ ডিসেম্বর খাগড়াছড়ির পানছড়ির অনিলপাড়ায় ইউপিডিএফ-ভুক্ত গণসংগঠনের নেতা বিপুল চাকমা, সুনীল ত্রিপুরা, লিটন চাকমা ও রুহিন ত্রিপুরাকে হত্যার পর ইউপিডিএফ পানছড়ি ইউনিট খুনীদের গ্রেফতার ও ঠ্যাঙাড়ে বাহিনী ভেঙে দেয়ার দাবিতে উক্ত বাজার বয়কট কর্মসূচি ঘোষণা করেছে।