১০:৪৭ অপরাহ্ন, শনিবার, ০২ মার্চ ২০২৪, ১৯ ফাল্গুন ১৪৩০ বঙ্গাব্দ

সিরাজগঞ্জে মাদক মামলায় নারীর যাবজ্জীবন কারাদন্ড

হেরোইন রাখার দায়ে সিরাজগঞ্জের কামারখন্দে সাবিনা খাতুন (৩৭) নামে এক নারী মাদক ব্যবসায়িকে যাবজ্জীবন কারাদন্ড দিয়েছে আদালত। একই সঙ্গে ১০ হাজার টাকা অর্থদন্ড অনাদায়ে আরো এক বছরের বিনাশ্রম কারাদন্ড দেয়া হয়েছে।

 

এছাড়া একই মামলায় সাবিনা খাতুনকে চোলাইমদ রাখার দায়ে দুই বছরের সশ্রম কারাদন্ড পাঁচ হাজার টাকা অর্থদন্ড, অনাদায়ে আরো তিন মাসের বিনাশ্রম কারাদন্ড এবং গাঁজা রাখার দায়ে  দুই বছরের সশ্রম কারাদন্ড পাঁচ হাজার টাকা অর্থদন্ড, অনাদায়ে আরো তিন মাসের বিনাশ্রম কারাদন্ড দেয়া হয়েছে।

 

আজ রোববার (৪ জানুয়ারি) বেলা সাড়ে ১১টার দিকে সিরাজগঞ্জের জেলা ও দায়রা জজ আদালতের বিচারক ফজলে খোদা মো: নাজির এই কারাদন্ড প্রদান করেন।

 

দন্ডপ্রাপ্ত সাবিনা খাতুন সিরাজগঞ্জের কামারখন্দ উপজেলার জামতৈল উত্তরপাড়া গ্রামের সাইফুল ইসলাম সরকারের স্ত্রী। জেলা ও দায়রা জজ আদালতের স্টেনোগ্রফার রাশেদুল ইসলাম এতথ্য নিশ্চিত করেছেন।

 

মামলার অভিযোগ পত্রে বলা হয়েছে, ২০১৬ সালের ১০ নভেম্বর বিকেলে কামারখন্দ থানা ও এর আশপাশের এলাকায় টহল ডিউটি করে র‌্যাব-১২ এর সদস্যরা। এসময় তাদের কাছে খবর আসে সিরাজগঞ্জের কামারখন্দ উপজেলার জামতৈল উত্তরপাড়া গ্রামের সাবিনা খাতুনের বাড়িতে হেরোইন, গাঁজা ও চোলাইমদ ক্রয়-বিক্রয় হচ্ছে। এমন খবর পেয়ে সেখানে অভিযান চালায় র‌্যাব সদস্যরা। এসময় র‌্যাবের উপস্থিতি টের পেয়ে মাদক বিক্রেতা সাবিনা খাতুন দৌড়ে পালিয়ে যায়। আসামীর ফেলে যাওয়া ৪৮ গ্রাম হেরোইন, ১.৮ কেজি গাঁজা ও ১৪ লিটার চোলাইমদ জব্দ করা হয়।

 

এঘটনায় র‌্যাব-১২ এর ডিএডি প্রদীপ কুমার সাহা বাদী হয়ে কামারখন্দ থানায় সাবিনা খাতুনের নাম উল্লেখ করে মামলা দায়ের করেন। পরে সাবিনা খাতুনকে গ্রেপ্তার করে র‌্যাব-১২ এর সদস্যরা।

 

মামলা চলাকালে ১০ জন স্বাক্ষীর স্বাক্ষ্য গ্রহন করে আদালত। স্বাক্ষ্য গ্রহন শেষে আজ সাবিনা খাতুনকে যাবজ্জীবন সহ বিভিন্ন মেয়াদে কারাদন্ড দেয় আদালত। রায় ঘোষণা শেষে আসামীকে কারাগারে প্রেরণ করা হয়েছে।

 

রাষ্ট্র পক্ষে মামলা পরিচালনা করেন, পি.পি আব্দুর রহমান এবং আসামী পক্ষে মামলা পরিচালনা করেন এ্যাডঃ মো. নজরুল ইসলাম।

সিরাজগঞ্জে মাদক মামলায় নারীর যাবজ্জীবন কারাদন্ড

আপডেট সময় : ০২:২০:০৭ অপরাহ্ন, রবিবার, ৪ ফেব্রুয়ারী ২০২৪

হেরোইন রাখার দায়ে সিরাজগঞ্জের কামারখন্দে সাবিনা খাতুন (৩৭) নামে এক নারী মাদক ব্যবসায়িকে যাবজ্জীবন কারাদন্ড দিয়েছে আদালত। একই সঙ্গে ১০ হাজার টাকা অর্থদন্ড অনাদায়ে আরো এক বছরের বিনাশ্রম কারাদন্ড দেয়া হয়েছে।

 

এছাড়া একই মামলায় সাবিনা খাতুনকে চোলাইমদ রাখার দায়ে দুই বছরের সশ্রম কারাদন্ড পাঁচ হাজার টাকা অর্থদন্ড, অনাদায়ে আরো তিন মাসের বিনাশ্রম কারাদন্ড এবং গাঁজা রাখার দায়ে  দুই বছরের সশ্রম কারাদন্ড পাঁচ হাজার টাকা অর্থদন্ড, অনাদায়ে আরো তিন মাসের বিনাশ্রম কারাদন্ড দেয়া হয়েছে।

 

আজ রোববার (৪ জানুয়ারি) বেলা সাড়ে ১১টার দিকে সিরাজগঞ্জের জেলা ও দায়রা জজ আদালতের বিচারক ফজলে খোদা মো: নাজির এই কারাদন্ড প্রদান করেন।

 

দন্ডপ্রাপ্ত সাবিনা খাতুন সিরাজগঞ্জের কামারখন্দ উপজেলার জামতৈল উত্তরপাড়া গ্রামের সাইফুল ইসলাম সরকারের স্ত্রী। জেলা ও দায়রা জজ আদালতের স্টেনোগ্রফার রাশেদুল ইসলাম এতথ্য নিশ্চিত করেছেন।

 

মামলার অভিযোগ পত্রে বলা হয়েছে, ২০১৬ সালের ১০ নভেম্বর বিকেলে কামারখন্দ থানা ও এর আশপাশের এলাকায় টহল ডিউটি করে র‌্যাব-১২ এর সদস্যরা। এসময় তাদের কাছে খবর আসে সিরাজগঞ্জের কামারখন্দ উপজেলার জামতৈল উত্তরপাড়া গ্রামের সাবিনা খাতুনের বাড়িতে হেরোইন, গাঁজা ও চোলাইমদ ক্রয়-বিক্রয় হচ্ছে। এমন খবর পেয়ে সেখানে অভিযান চালায় র‌্যাব সদস্যরা। এসময় র‌্যাবের উপস্থিতি টের পেয়ে মাদক বিক্রেতা সাবিনা খাতুন দৌড়ে পালিয়ে যায়। আসামীর ফেলে যাওয়া ৪৮ গ্রাম হেরোইন, ১.৮ কেজি গাঁজা ও ১৪ লিটার চোলাইমদ জব্দ করা হয়।

 

এঘটনায় র‌্যাব-১২ এর ডিএডি প্রদীপ কুমার সাহা বাদী হয়ে কামারখন্দ থানায় সাবিনা খাতুনের নাম উল্লেখ করে মামলা দায়ের করেন। পরে সাবিনা খাতুনকে গ্রেপ্তার করে র‌্যাব-১২ এর সদস্যরা।

 

মামলা চলাকালে ১০ জন স্বাক্ষীর স্বাক্ষ্য গ্রহন করে আদালত। স্বাক্ষ্য গ্রহন শেষে আজ সাবিনা খাতুনকে যাবজ্জীবন সহ বিভিন্ন মেয়াদে কারাদন্ড দেয় আদালত। রায় ঘোষণা শেষে আসামীকে কারাগারে প্রেরণ করা হয়েছে।

 

রাষ্ট্র পক্ষে মামলা পরিচালনা করেন, পি.পি আব্দুর রহমান এবং আসামী পক্ষে মামলা পরিচালনা করেন এ্যাডঃ মো. নজরুল ইসলাম।