১০:২৬ অপরাহ্ন, শনিবার, ০২ মার্চ ২০২৪, ১৯ ফাল্গুন ১৪৩০ বঙ্গাব্দ

কোটচাঁদপুরে ব্যাংক এশিয়ার টাকা লোপাট-ঝিনাইদহে দুই ভাইয়ের বিরুদ্ধে মামলা

 ঝিনাইদহের কোটচাঁদপুরে ব্যাংক এশিয়ার এজেণ্ট ব্যাংকিং থেকে প্রবাসি’র ৬৩ লাখ টাকা গায়েব হওয়ার ঘটনায় অবশেষে মামলা হয়েছে। বুধবার (৭ ফেব্রুয়ারি) কোটচাঁদপুর থানায় ব্যাংক এশিয়ার ঝিনাইদহ এজেণ্ট ব্যাংকিংয়ের সিনিয়র রিলেশনসীপ অফিসার ও শাখা ব্যবস্থাপক নুরুন্নবী বাদী হয়ে মামলাটি করেন। মামলায় আসামী করা হয়েছে কোটচাঁদপুর উপজেলার জগদেশপুর গ্রামের মৃতঃ কওসার মন্ডলের ছেলে ঝিনাইদহ জেলা পরিষদের সদস্য রাজিবুল কবির রাজিব তার আপন ভাই মনিরুল ইসলাম। এর আগে গত মঙ্গলবার দিনব্যাপী ঢাকা থেকে আসা তদন্ত দলের দুই সদস্য ব্যাংটির ঝিনাইদহ শাখায় এ সংক্রান্ত কাগজপত্র যাচাই বাছাই করেন।ব্যাংক এশিয়ার ঝিনাইদহ শাখার ম্যানেজার সাইফুর রহমান জানান, ঢাকার তদন্ত দল নিবিড় ভাবে বিষয়টি তদন্ত করে কোটচাঁদপুর এজেন্ট ব্যাংকিংয়ের বিপুল পরিমান গ্রাহকের টাকা লোপাট করা তথ্য পান এবং টাকা উদ্ধারের স্বার্থে মামলা করার সিদ্ধন্ত গ্রহন করা হয়।
কোটচাঁদপুর উপজেলার রঘুনাথপুর গ্রামের কুয়েত প্রবাসী রোকনুজ্জামান রোকনের সঞ্চয়ী হিসাব নং-১০৮৩৪৪৪০০৬১০৬ এবং মুনাফা সঞ্চায়ী দুটি হিসাব নং-১০৮২৭৪৪০০০০০৮ ও ১০৮২৭৪৪০০০০০৯ থেকে প্রায় ৬৩ লাখ টাকা গায়েব করে দেন রাজিব। বিষয়টি নিয়ে রোকনুজ্জামান ব্যাংক এশিয়া এজেণ্ট ব্যাংকের সাবেক এজেণ্ট মনিরুল ইসলাম (বর্তমান ঝিনাইদহ ডাচ বাংলা ব্যাংকে কর্মরত) ও পরবর্তী এজেণ্ট তার ভাই রাজিবুল কবিরের বিরুদ্ধে এজেণ্ট ব্যাংকিং ডিভিশন, ব্যাংক এশিয়া লিমিটেড ঢাকা, ব্যাংক এশিয়া ঝিনাইদহ শাখা ও বাংলাদেশ ব্যাংকে লিখিত অভিযোগ করলে বিষয়টি তদন্ত করে টাকা লোপাটের বিষয়টি ধরা পড়ে। মামলার বিষয়ে কোটচাঁদপুর থানার ওসি সৈয়দ আল মামুন জানান, ঝিনাইদহ এজেণ্ট ব্যাংকিংয়ের সিনিয়র অফিসার ও শাখা ব্যবস্থাপক নুরুন্নবী বাদী হয়ে মামলা করেছেন। মামলায় দুইজনকে আসামী করা হয়েছে। অভিযোগটি গ্রহন করে পুলিশ তদন্ত ও দায়ী ব্যক্তিদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা গ্রহনের পক্রিয়া শুরু করেছে বলেও ওসি জানান।

কোটচাঁদপুরে ব্যাংক এশিয়ার টাকা লোপাট-ঝিনাইদহে দুই ভাইয়ের বিরুদ্ধে মামলা

আপডেট সময় : ০৬:১৪:৪১ অপরাহ্ন, বুধবার, ৭ ফেব্রুয়ারী ২০২৪
 ঝিনাইদহের কোটচাঁদপুরে ব্যাংক এশিয়ার এজেণ্ট ব্যাংকিং থেকে প্রবাসি’র ৬৩ লাখ টাকা গায়েব হওয়ার ঘটনায় অবশেষে মামলা হয়েছে। বুধবার (৭ ফেব্রুয়ারি) কোটচাঁদপুর থানায় ব্যাংক এশিয়ার ঝিনাইদহ এজেণ্ট ব্যাংকিংয়ের সিনিয়র রিলেশনসীপ অফিসার ও শাখা ব্যবস্থাপক নুরুন্নবী বাদী হয়ে মামলাটি করেন। মামলায় আসামী করা হয়েছে কোটচাঁদপুর উপজেলার জগদেশপুর গ্রামের মৃতঃ কওসার মন্ডলের ছেলে ঝিনাইদহ জেলা পরিষদের সদস্য রাজিবুল কবির রাজিব তার আপন ভাই মনিরুল ইসলাম। এর আগে গত মঙ্গলবার দিনব্যাপী ঢাকা থেকে আসা তদন্ত দলের দুই সদস্য ব্যাংটির ঝিনাইদহ শাখায় এ সংক্রান্ত কাগজপত্র যাচাই বাছাই করেন।ব্যাংক এশিয়ার ঝিনাইদহ শাখার ম্যানেজার সাইফুর রহমান জানান, ঢাকার তদন্ত দল নিবিড় ভাবে বিষয়টি তদন্ত করে কোটচাঁদপুর এজেন্ট ব্যাংকিংয়ের বিপুল পরিমান গ্রাহকের টাকা লোপাট করা তথ্য পান এবং টাকা উদ্ধারের স্বার্থে মামলা করার সিদ্ধন্ত গ্রহন করা হয়।
কোটচাঁদপুর উপজেলার রঘুনাথপুর গ্রামের কুয়েত প্রবাসী রোকনুজ্জামান রোকনের সঞ্চয়ী হিসাব নং-১০৮৩৪৪৪০০৬১০৬ এবং মুনাফা সঞ্চায়ী দুটি হিসাব নং-১০৮২৭৪৪০০০০০৮ ও ১০৮২৭৪৪০০০০০৯ থেকে প্রায় ৬৩ লাখ টাকা গায়েব করে দেন রাজিব। বিষয়টি নিয়ে রোকনুজ্জামান ব্যাংক এশিয়া এজেণ্ট ব্যাংকের সাবেক এজেণ্ট মনিরুল ইসলাম (বর্তমান ঝিনাইদহ ডাচ বাংলা ব্যাংকে কর্মরত) ও পরবর্তী এজেণ্ট তার ভাই রাজিবুল কবিরের বিরুদ্ধে এজেণ্ট ব্যাংকিং ডিভিশন, ব্যাংক এশিয়া লিমিটেড ঢাকা, ব্যাংক এশিয়া ঝিনাইদহ শাখা ও বাংলাদেশ ব্যাংকে লিখিত অভিযোগ করলে বিষয়টি তদন্ত করে টাকা লোপাটের বিষয়টি ধরা পড়ে। মামলার বিষয়ে কোটচাঁদপুর থানার ওসি সৈয়দ আল মামুন জানান, ঝিনাইদহ এজেণ্ট ব্যাংকিংয়ের সিনিয়র অফিসার ও শাখা ব্যবস্থাপক নুরুন্নবী বাদী হয়ে মামলা করেছেন। মামলায় দুইজনকে আসামী করা হয়েছে। অভিযোগটি গ্রহন করে পুলিশ তদন্ত ও দায়ী ব্যক্তিদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা গ্রহনের পক্রিয়া শুরু করেছে বলেও ওসি জানান।