০৭:০৩ পূর্বাহ্ন, সোমবার, ২২ এপ্রিল ২০২৪, ৯ বৈশাখ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

কান্দাহারে আত্মঘাতী বোমা হামলায় নিহত ২১

 

আফগানিস্তানের দ্বিতীয় বৃহত্তম শহর কান্দাহারের একটি ব্যাংক কার্যালয়ে আত্মঘাতী বোমা হামলায় অন্তত ২১ জন নিহত হয়েছেন, আহত হয়েছেন আরো ৫০ জন। হামলার পর কান্দাহারের মিরওয়াইস হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয় হতাহতদের। সেই হাসপাতালের চিকৎসকদের বরাত দিয়ে এই তথ্য নিশ্চিত করেছে এএফপি। তবে বিস্তারিত আর কোনো তথ্য জানাতে চাননি চিকিৎসকরা; বলেছেন, সংবাদমাধ্যমের সঙ্গে কথা বলার অনুমতি নেই তাদের।

এক বিবৃতিতে কান্দাহার পুলিশ জানিয়েছে, বৃহস্পতিবার দুপুরে সরকার নিয়ন্ত্রিত কাবুল ব্যাংক কার্যালয়ের ক্যাশ কাউন্টারে ঘটেছে এই হামলা। নিহতদের সবাই বেসামরিক নাগরিক। বেতন তোলার জন্য ব্যাংকে এসেছিলেন তারা।

বর্তমানে আফগানিস্তানে ক্ষমতাসীন তালেবান সবচেয়ে বড় প্রতিপক্ষ ইসলামিক স্টেট খোরাসানসহ (আইএসকে) কয়েকটি সশস্ত্র গোষ্ঠী সক্রিয় রয়েছে। তবে কারা এই হামলা করেছে তা এখনও স্পষ্ট নয়। এখন পর্যন্ত কেউ হামলার দায় স্বীকার করেনি। পুলিশ বা প্রশাসনের কোনো কর্মকর্তাও কোনো সন্দেহভাজনের নাম প্রকাশ করেনি।

জানা গেছে, চলতি বছর রমজানের শুরু থেকে এ পর্যন্ত আফগানিস্তানজুড়ে বেশ কয়েকটি বোমা হামলার ঘটনা ঘটেছে। কিন্তু অধিকাংশ ঘটনাই ধামাচাপা দেওয়ার চেষ্টা করেছে তালেবান সরকার।

 

জনপ্রিয় সংবাদ

কান্দাহারে আত্মঘাতী বোমা হামলায় নিহত ২১

আপডেট সময় : ০৭:২৯:৫৬ পূর্বাহ্ন, শনিবার, ২৩ মার্চ ২০২৪

 

আফগানিস্তানের দ্বিতীয় বৃহত্তম শহর কান্দাহারের একটি ব্যাংক কার্যালয়ে আত্মঘাতী বোমা হামলায় অন্তত ২১ জন নিহত হয়েছেন, আহত হয়েছেন আরো ৫০ জন। হামলার পর কান্দাহারের মিরওয়াইস হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয় হতাহতদের। সেই হাসপাতালের চিকৎসকদের বরাত দিয়ে এই তথ্য নিশ্চিত করেছে এএফপি। তবে বিস্তারিত আর কোনো তথ্য জানাতে চাননি চিকিৎসকরা; বলেছেন, সংবাদমাধ্যমের সঙ্গে কথা বলার অনুমতি নেই তাদের।

এক বিবৃতিতে কান্দাহার পুলিশ জানিয়েছে, বৃহস্পতিবার দুপুরে সরকার নিয়ন্ত্রিত কাবুল ব্যাংক কার্যালয়ের ক্যাশ কাউন্টারে ঘটেছে এই হামলা। নিহতদের সবাই বেসামরিক নাগরিক। বেতন তোলার জন্য ব্যাংকে এসেছিলেন তারা।

বর্তমানে আফগানিস্তানে ক্ষমতাসীন তালেবান সবচেয়ে বড় প্রতিপক্ষ ইসলামিক স্টেট খোরাসানসহ (আইএসকে) কয়েকটি সশস্ত্র গোষ্ঠী সক্রিয় রয়েছে। তবে কারা এই হামলা করেছে তা এখনও স্পষ্ট নয়। এখন পর্যন্ত কেউ হামলার দায় স্বীকার করেনি। পুলিশ বা প্রশাসনের কোনো কর্মকর্তাও কোনো সন্দেহভাজনের নাম প্রকাশ করেনি।

জানা গেছে, চলতি বছর রমজানের শুরু থেকে এ পর্যন্ত আফগানিস্তানজুড়ে বেশ কয়েকটি বোমা হামলার ঘটনা ঘটেছে। কিন্তু অধিকাংশ ঘটনাই ধামাচাপা দেওয়ার চেষ্টা করেছে তালেবান সরকার।