০৮:২৮ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ২৮ মে ২০২৪, ১৪ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

বিসিএসের প্রশ্নে ভুলের অভিযোগ পরীক্ষার্থীদের

৪৬তম বিসিএসের প্রিলিমিনারি পরীক্ষায় ভুল প্রশ্ন করার অভিযোগ তুলেছেন চাকরিপ্রার্থীরা। যদিও প্রশ্ন ভুলের কোনো অভিযোগ পায়নি সরকারি কর্ম কমিশন (পিএসসি)। অভিযোগ পেলে কমিটি করে তা যাচাই করে দেখার কথা জানিয়েছে সাংবিধানিক সংস্থাটি।

 

 

 

গত শুক্রবার সারা দেশের ৮টি বিভাগীয় শহরে ৪৬তম বিসিএসের প্রিলিমিনারি পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হয়। এর পর থেকেই সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমগুলোতে একাধিক প্রশ্ন ভুল বলে অভিযোগ তোলেন পরীক্ষায় অংশ নেওয়া প্রার্থীরা।

 

 

চাকরিপ্রার্থীরা বলছেন, ৪৬তম বিসিএসের গণিত অংশে তিনটি এবং ইংরেজি অংশের দুটি প্রশ্ন নিয়ে সমস্যা ছিল। এর মধ্যে গণিতের তিন প্রশ্নের একটি হলো- ‘১ হতে বড় ১০০০-এর মধ্যে কতগুলো সংখ্যা আছে যারা ১৬ দ্বারা বিভাজ্য নয়, কিন্তু ৩০ দ্বারা বিভাজ্য’; ‘পাঁচটি ধারাবাহিক পূর্ণসংখ্যার গড় হলো ১৫, সবচেয়ে বড় পূর্ণ সংখ্যা কত? এবং ‘একটি কমিটিতে পুরুষ এবং মহিলার সংখ্যা একটি অনুপাতে ৩:২ হলে এবং মহিলা সংখ্যা ২৫ হলে পুরুষের সংখ্যা কত? এ তিনটি প্রশ্নের সঠিক উত্তর দেওয়া ছিল না।

 

 

 

ইংরেজির ক্ষেত্রে একটি ‘হলো- he lay on the ground groaning’ প্রশ্নের সঠিক উত্তর দেওয়া ছিল না। The antonym of boisterous is’প্রশ্নের উত্তরের বানান ভুল ছিল।

 

 

দীর্ঘদিন ধরে বিসিএস নিয়ে কাজ করছেন গাজী মিজানুর রহমান। তিনি জানিয়েছেন, বিসিএসের প্রশ্ন তৈরির পর তা যাচাই করা হয়। এরপর প্রশ্নের মডারেশন হয়। মডারেশন করা হয় প্রশ্নে কোনো ভুল আছে কি না তা চেক করতে। অথচ এত প্রক্রিয়া অনুসরণ করেও ৪৬তম বিসিএসের প্রশ্নে এত ভুল। সাংবিধানিক একটি প্রতিষ্ঠানের কাছ থেকে এমন কিছু কেউ প্রত্যাশা করে না।

 

 

 

তিনি আরও বলেন, গণিতের একটি প্রশ্ন ছিল ‘একটি কমিটিতে পুরুষ এবং মহিলার সংখ্যা একটি অনুপাতে ৩:২ হলে এবং মহিলা সংখ্যা ২৫ হলে পুরুষের সংখ্যা কত?’ এই প্রশ্নে সঠিক উত্তর হয় ৩৭.৫। তবে মানুষ তো আর অর্ধেক হতে পারে না। পরীক্ষার হলে অনেকেই এই প্রশ্নের উত্তর করতে গিয়ে নাকানিচুবানি খেয়েছেন। প্রশ্ন তৈরির ক্ষেত্রে পিএসসিকে আরও সতর্ক হওয়ার পরামর্শ দেন এই লেখক।

 

 

এ বিষয়ে দৃষ্টি আকর্ষণ করা হলে পিএসসি’র কর্মকর্তারা জানিয়েছেন, বিসিএসের প্রশ্ন নিয়ে কোনো অভিযোগ থাকলে সেটি প্রাথমিকভাবে খতিয়ে দেখা হয়। প্রাথমিক তদন্তে অভিযোগের প্রমাণ পেলে একটি বিশেষজ্ঞ দল বিষয়টি খতিয়ে দেখে। বিশেষজ্ঞ কমিটি অভিযোগের সত্যতা পেলে ভুল প্রশ্নের জন্য কোনো নম্বর কাটা হয় না।
এ বিষয়ে পিএসসি’র পরীক্ষা নিয়ন্ত্রক (ক্যাডার) আনন্দ কুমার বিশ্বাস বলেন, ৪৬তম বিসিএসে ভুল প্রশ্নের কোনো অভিযোগ এখনো পাইনি। অভিযোগ পেলে বিষয়টি খতিয়ে দেখা হবে। প্রশ্নে যদি কোনো ভুল থাকে তাহলে সেই প্রশ্নের জন্য সবাইকে নাম্বার দেওয়া হবে।

উন্নয়নের অভিজ্ঞতা নিতে রাসিকে ময়মনসিংহ সিটি কর্পোরেশনের কাউন্সিলরগণ

বিসিএসের প্রশ্নে ভুলের অভিযোগ পরীক্ষার্থীদের

আপডেট সময় : ০৭:২৯:৫৬ পূর্বাহ্ন, রবিবার, ২৮ এপ্রিল ২০২৪

৪৬তম বিসিএসের প্রিলিমিনারি পরীক্ষায় ভুল প্রশ্ন করার অভিযোগ তুলেছেন চাকরিপ্রার্থীরা। যদিও প্রশ্ন ভুলের কোনো অভিযোগ পায়নি সরকারি কর্ম কমিশন (পিএসসি)। অভিযোগ পেলে কমিটি করে তা যাচাই করে দেখার কথা জানিয়েছে সাংবিধানিক সংস্থাটি।

 

 

 

গত শুক্রবার সারা দেশের ৮টি বিভাগীয় শহরে ৪৬তম বিসিএসের প্রিলিমিনারি পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হয়। এর পর থেকেই সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমগুলোতে একাধিক প্রশ্ন ভুল বলে অভিযোগ তোলেন পরীক্ষায় অংশ নেওয়া প্রার্থীরা।

 

 

চাকরিপ্রার্থীরা বলছেন, ৪৬তম বিসিএসের গণিত অংশে তিনটি এবং ইংরেজি অংশের দুটি প্রশ্ন নিয়ে সমস্যা ছিল। এর মধ্যে গণিতের তিন প্রশ্নের একটি হলো- ‘১ হতে বড় ১০০০-এর মধ্যে কতগুলো সংখ্যা আছে যারা ১৬ দ্বারা বিভাজ্য নয়, কিন্তু ৩০ দ্বারা বিভাজ্য’; ‘পাঁচটি ধারাবাহিক পূর্ণসংখ্যার গড় হলো ১৫, সবচেয়ে বড় পূর্ণ সংখ্যা কত? এবং ‘একটি কমিটিতে পুরুষ এবং মহিলার সংখ্যা একটি অনুপাতে ৩:২ হলে এবং মহিলা সংখ্যা ২৫ হলে পুরুষের সংখ্যা কত? এ তিনটি প্রশ্নের সঠিক উত্তর দেওয়া ছিল না।

 

 

 

ইংরেজির ক্ষেত্রে একটি ‘হলো- he lay on the ground groaning’ প্রশ্নের সঠিক উত্তর দেওয়া ছিল না। The antonym of boisterous is’প্রশ্নের উত্তরের বানান ভুল ছিল।

 

 

দীর্ঘদিন ধরে বিসিএস নিয়ে কাজ করছেন গাজী মিজানুর রহমান। তিনি জানিয়েছেন, বিসিএসের প্রশ্ন তৈরির পর তা যাচাই করা হয়। এরপর প্রশ্নের মডারেশন হয়। মডারেশন করা হয় প্রশ্নে কোনো ভুল আছে কি না তা চেক করতে। অথচ এত প্রক্রিয়া অনুসরণ করেও ৪৬তম বিসিএসের প্রশ্নে এত ভুল। সাংবিধানিক একটি প্রতিষ্ঠানের কাছ থেকে এমন কিছু কেউ প্রত্যাশা করে না।

 

 

 

তিনি আরও বলেন, গণিতের একটি প্রশ্ন ছিল ‘একটি কমিটিতে পুরুষ এবং মহিলার সংখ্যা একটি অনুপাতে ৩:২ হলে এবং মহিলা সংখ্যা ২৫ হলে পুরুষের সংখ্যা কত?’ এই প্রশ্নে সঠিক উত্তর হয় ৩৭.৫। তবে মানুষ তো আর অর্ধেক হতে পারে না। পরীক্ষার হলে অনেকেই এই প্রশ্নের উত্তর করতে গিয়ে নাকানিচুবানি খেয়েছেন। প্রশ্ন তৈরির ক্ষেত্রে পিএসসিকে আরও সতর্ক হওয়ার পরামর্শ দেন এই লেখক।

 

 

এ বিষয়ে দৃষ্টি আকর্ষণ করা হলে পিএসসি’র কর্মকর্তারা জানিয়েছেন, বিসিএসের প্রশ্ন নিয়ে কোনো অভিযোগ থাকলে সেটি প্রাথমিকভাবে খতিয়ে দেখা হয়। প্রাথমিক তদন্তে অভিযোগের প্রমাণ পেলে একটি বিশেষজ্ঞ দল বিষয়টি খতিয়ে দেখে। বিশেষজ্ঞ কমিটি অভিযোগের সত্যতা পেলে ভুল প্রশ্নের জন্য কোনো নম্বর কাটা হয় না।
এ বিষয়ে পিএসসি’র পরীক্ষা নিয়ন্ত্রক (ক্যাডার) আনন্দ কুমার বিশ্বাস বলেন, ৪৬তম বিসিএসে ভুল প্রশ্নের কোনো অভিযোগ এখনো পাইনি। অভিযোগ পেলে বিষয়টি খতিয়ে দেখা হবে। প্রশ্নে যদি কোনো ভুল থাকে তাহলে সেই প্রশ্নের জন্য সবাইকে নাম্বার দেওয়া হবে।