০৮:৫৪ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ২৮ মে ২০২৪, ১৪ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ে শিক্ষার্থী ভর্তিতে ডোপ টেস্ট বাধ্যতমূলক করার অগণতান্ত্রিক সিদ্ধান্ত বাতিল কর

সমাজতান্ত্রিক ছাত্র ফ্রন্ট কেন্দ্রীয় কমিটির সভাপতি মুক্তা বাড়ৈ ও সাধারণ সম্পাদক রায়হান উদ্দিন আজ ৭ মে ২০২৪ সংবাদপত্র দেয়া এক যুক্ত বিবৃতিতে চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ে ২০২৩-২০২৪ শিক্ষাবর্ষে ভর্তিতে শিক্ষার্থীদের ডোপ টেস্ট বাধ্যমূলক করার সিদ্ধান্তে গভীর উদ্বেগ ও ক্ষোভ প্রকাশ করে অবিলম্বে ঐ অগণতান্ত্রিক সিদ্ধান্ত বাতিলের দাবি জানিয়েছেন।

 

 

বিবৃতিতে নেতৃবৃন্দ বলেন, চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন শিক্ষার্থী ভর্তিতে ডোপ টেস্ট বাধ্যতামূলক করার সিদ্ধান্ত চরম অগণতান্ত্রিক, শিক্ষার্থীদের জন্য অসম্মানজনক ও স্বৈরাচারী মনোভাবের বহিঃপ্রকাশ। গতকাল অনুষ্ঠিত ডিনস কমিটির সভা থেকে ডোপ টেস্টে পজিটিভ হলে শিক্ষার্থী ভর্তিতে অযোগ্য বলে বিবেচিত হবেন এবং চলতি শিক্ষাবর্ষ ২০২৩-২০২৪ থেকে এই সিদ্ধান্ত কার্যকর করার ঘোষণা দেয়া হয়েছে।

 

 

বিবৃতিতে নেতৃবৃন্দ বলেন, বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তি হওয়ার জন্য ভর্তি পরীক্ষা তো আছেই তাহলে আলাদাকরে এই ডোপ টেস্ট কেনো করাতে হবে? রাষ্ট্রের অগণতান্ত্রিক চরিত্রের সাথে তাল মিলিয়ে একটা বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রশাসনও কতটা অগণতান্ত্রিক ও স্বেচ্ছাচারি হয়ে উঠতে পারে এ ধরনের সিদ্ধান্ত তারই নমুনা। ছাত্রত্ব বাতিলের নতুন কৌশলের এই সিদ্ধান্তের মানে বিশ্ববিদ্যালয় শুরু থেকেই একজন শিক্ষার্থীকে অশ্রদ্ধা ও অপরাধী হিসেবে সন্দেহের চোখেই দেখবে।

 

 

 

একজন ছাত্র বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তি হওয়ার পরেও তো মাদকাসক্ত হয়ে উঠতে পারে। ক্যাম্পাসে রয়েছে ক্ষমতাসীন ছাত্র সংগঠনের সন্ত্রাস-দখলদারিত্ব , টেন্ডার বাণিজ্য, একচ্ছত্র আধিপত্য। তাদের ছত্রছায়ায় মাদকের রমরমা বাণিজ্যের খবর  সংবাদপত্রের শিরোনাম হয়েছে বিভিন্ন সময়ে। প্রশাসন সে বিষয়ে পদক্ষেপ না নিয়ে শিক্ষার্থীদের উপর এহেন অপমানজনক, অগণতান্ত্রিক ও স্বৈরাচারী সিদ্ধান্ত চাপিয়ে দিয়েছে যাতে শিক্ষার্থীরা প্রশাসনের ও সরকারের ছাত্র ও শিক্ষা বিরোধী কোন সিদ্ধান্তের বিরুদ্ধে প্রতিবাদ না করতে পারে, একটা ভয়ের মধ্যে থাকে । নেতৃবৃন্দ অবিলম্বে   বিশ্ববিদ্যালয়ের এই অগণতান্ত্রিক সিদ্ধান্ত  বাতিলের দাবি জানান।

অপরাধ নিয়ন্ত্রণে সহযোগীতার আহ্বান এডিসি তৌহিদুল ইসলামের

চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ে শিক্ষার্থী ভর্তিতে ডোপ টেস্ট বাধ্যতমূলক করার অগণতান্ত্রিক সিদ্ধান্ত বাতিল কর

আপডেট সময় : ০৭:২১:২৭ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ৭ মে ২০২৪

সমাজতান্ত্রিক ছাত্র ফ্রন্ট কেন্দ্রীয় কমিটির সভাপতি মুক্তা বাড়ৈ ও সাধারণ সম্পাদক রায়হান উদ্দিন আজ ৭ মে ২০২৪ সংবাদপত্র দেয়া এক যুক্ত বিবৃতিতে চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ে ২০২৩-২০২৪ শিক্ষাবর্ষে ভর্তিতে শিক্ষার্থীদের ডোপ টেস্ট বাধ্যমূলক করার সিদ্ধান্তে গভীর উদ্বেগ ও ক্ষোভ প্রকাশ করে অবিলম্বে ঐ অগণতান্ত্রিক সিদ্ধান্ত বাতিলের দাবি জানিয়েছেন।

 

 

বিবৃতিতে নেতৃবৃন্দ বলেন, চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন শিক্ষার্থী ভর্তিতে ডোপ টেস্ট বাধ্যতামূলক করার সিদ্ধান্ত চরম অগণতান্ত্রিক, শিক্ষার্থীদের জন্য অসম্মানজনক ও স্বৈরাচারী মনোভাবের বহিঃপ্রকাশ। গতকাল অনুষ্ঠিত ডিনস কমিটির সভা থেকে ডোপ টেস্টে পজিটিভ হলে শিক্ষার্থী ভর্তিতে অযোগ্য বলে বিবেচিত হবেন এবং চলতি শিক্ষাবর্ষ ২০২৩-২০২৪ থেকে এই সিদ্ধান্ত কার্যকর করার ঘোষণা দেয়া হয়েছে।

 

 

বিবৃতিতে নেতৃবৃন্দ বলেন, বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তি হওয়ার জন্য ভর্তি পরীক্ষা তো আছেই তাহলে আলাদাকরে এই ডোপ টেস্ট কেনো করাতে হবে? রাষ্ট্রের অগণতান্ত্রিক চরিত্রের সাথে তাল মিলিয়ে একটা বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রশাসনও কতটা অগণতান্ত্রিক ও স্বেচ্ছাচারি হয়ে উঠতে পারে এ ধরনের সিদ্ধান্ত তারই নমুনা। ছাত্রত্ব বাতিলের নতুন কৌশলের এই সিদ্ধান্তের মানে বিশ্ববিদ্যালয় শুরু থেকেই একজন শিক্ষার্থীকে অশ্রদ্ধা ও অপরাধী হিসেবে সন্দেহের চোখেই দেখবে।

 

 

 

একজন ছাত্র বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তি হওয়ার পরেও তো মাদকাসক্ত হয়ে উঠতে পারে। ক্যাম্পাসে রয়েছে ক্ষমতাসীন ছাত্র সংগঠনের সন্ত্রাস-দখলদারিত্ব , টেন্ডার বাণিজ্য, একচ্ছত্র আধিপত্য। তাদের ছত্রছায়ায় মাদকের রমরমা বাণিজ্যের খবর  সংবাদপত্রের শিরোনাম হয়েছে বিভিন্ন সময়ে। প্রশাসন সে বিষয়ে পদক্ষেপ না নিয়ে শিক্ষার্থীদের উপর এহেন অপমানজনক, অগণতান্ত্রিক ও স্বৈরাচারী সিদ্ধান্ত চাপিয়ে দিয়েছে যাতে শিক্ষার্থীরা প্রশাসনের ও সরকারের ছাত্র ও শিক্ষা বিরোধী কোন সিদ্ধান্তের বিরুদ্ধে প্রতিবাদ না করতে পারে, একটা ভয়ের মধ্যে থাকে । নেতৃবৃন্দ অবিলম্বে   বিশ্ববিদ্যালয়ের এই অগণতান্ত্রিক সিদ্ধান্ত  বাতিলের দাবি জানান।